English Version   
আজ রবিবার,২৫শে জুন, ২০১৭ ইং, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১লা শাওয়াল, ১৪৩৮ হিজরী

সিরিয়ালের ঐশ্বর্যের থেকে কতটা আলাদা বাস্তবের নবনীতা

এপ্রিল ২১, ২০১৭ ৪:২৮ পূর্বাহ্ণ

 

শীর্ষ খবর:

‘এই ছেলেটা ভেলভেলেটা’ ধারাবাহিকের ঐশ্বর্য বা মিমিকে দেখে দর্শকদের রাগ হতে পারে, কিন্তু বাস্তবের নবনীতা কেমন? ধরা পড়ল এবেলা ওয়েবসাইটের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে।

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘এই ছেলেটা ভেলভেলেটা’-র ঐশ্বর্যকে এই মুহূর্তে  টেলিভিশনের বেশ কুখ্যাত খলনায়িকা বলা যায়। শুধুই নেগেটিভ বললে কম বলা হয়, ভীষণ রকম অপরাধপ্রবণতাও রয়েছে। চরিত্রটি আরও বিশ্বাসযোগ্য হয়ে উঠেছে নবনীতা মালাকারের অভিনয়ে। এই মিষ্টি টেলি-অভিনেত্রী আড্ডা দিলেন এবেলা ওয়েবসাইটের সঙ্গে। জীবনের অনেক কথাই উঠে এল আলাপচারিতায়—

নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করতে খারাপ লাগছে না? 

নবনীতা: অ্যাক্টিংটা তো অ্যাক্টিংই। অভিনেত্রীকে তো সবার আগে অভিনয়টা ভালবাসতে হয়, চরিত্রটা পজিটিভ হোক বা নেগেটিভ হোক। পজিটিভ চরিত্র তো সবাই করতে চায়। আমিও চাই কিন্তু এই নেগেটিভ চরিত্রটাও আমার কেরিয়ারের জন্য ভীষণই ভাল হবে বলে মনে হয় আমার। আমি ভ্যারাইটি চাই।

অভিনয় ভালবাসলে কবে থেকে?

নবনীতা: অভিনয় ভালবাসা শুরু হয়েছে অভিনয় করতে শুরু করার পর থেকে। আমি কখনও ভাবিইনি সেভাবে যে অভিনয় করব। আমি বেসিক্যালি ছিলাম ডান্সার। ১১ বছর কত্থক শিখেছি, ওয়েস্টার্নও শিখেছি ৭ মাস। ভেবেছিলাম যে, অডিশন দিয়ে ডান্স বাংলা ডান্সে ট্রাই করব। কিন্তু আমার ছবি দেখে আমাকে সিলেক্ট করা হয় সিরিয়ালের জন্য। প্রথম কাজ কালার্স বাংলার ‘আপনজন’, যেখানে আমি লিড করতাম। ওই কাজটা করতে করতেই অভিনয়টা ভালবেসেছি।

 

এপিসোড ডিরেক্টর দিগন্ত সিংহের সঙ্গে নবনীতা ও সোমরাজ

এতদিন ধরে নাচ শিখেছ, ওটাই তোমার প্যাশন তা হলে? 

নবনীতা: ওটা আমার ভালবাসার জায়গা, ভাল থাকার জায়গা। এখনও যদি সুযোগ পাই, আবারও শুরু করব, শুরু করতে চাই। আসলে গত ১১ মাস ধরে একটু চিন্তার মধ্যে আছি। এমএটা কমপ্লিট করব ভেবেছিলাম, পারলাম না। বাবা-মা খুবই অসুস্থ, বিশেষ করে মা।

তোমার পড়াশোনা কোন বিষয়ে? 

নবনীতা: আমি নর্থ বেঙ্গল ইউনিভার্সিটি থেকে বাংলায় অনার্স নিয়ে পাশ করেছি। আমি তো আসলে জলপাইগুড়ির মেয়ে। কাজের জন্যই গত দু’বছর হল কলকাতায় এসেছি। এখন এখানে একাই থাকি। আমার ছোট বোন আছে। সেকেন্ডে ইয়ারে পড়ে। ওই জলপাইগুড়িতে থেকে আমার ফ্যামিলিকে সামলাচ্ছে।

তুমি তো বাংলা সাহিত্যের ছাত্রী। কার লেখা পড়তে ভাল লাগে?

নবনীতা: রবীন্দ্রনাথ ভীষণ ভাবে আর বুদ্ধদেব গুহ।

মানে প্রেমের গল্প পড়তে ভালবাস?

নবনীতা: হ্যাঁ, একটু প্রেম প্রেম ব্যাপারটা আমার খুব পছন্দের।

বিশেষ কেউ নেই জীবনে? 

নবনীতা: আপাতত কেউ নেই। তবে স্কুল লাইফে বা কলেজ লাইফে প্রেম হয়েছে, ব্রেকআপ হয়েছে। এগুলো তো হতেই থাকে। শুনতে পাই যে এক্স বয়ফ্রেন্ডরা খোঁজ করে আমার, বন্ধুবান্ধবদের কাছে। তখন মনে হয় সত্যিই কিছু করতে পেরেছি এবং আরও কিছু করতে পারব। ভাল কাজ করার ইচ্ছেটা দ্বিগুণ বেড়ে যায়।

Print Friendly
 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1107 বার
 
শীর্ষ খবর/আ আ

 

ফেইসবুক লাইকবক্স

 
 
 
 
 
 

সম্পাদকীয়

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

ক্যালেন্ডার

 
 
 

জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:


কপিরাইট ©২০১০-২০১৬ সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত শীর্ষ খবর ডটকম

প্রধান সম্পাদক : ডাঃ আব্দুল আজিজ
পরিচালক বৃন্দ: সামছু মিয়া

ফোন নাম্বার: +447536574441
ই-মেইল: info.skhobor@gmail.com
ই-মেইল: info@sylheteralap.com