গাজীপুর মহানগর কমিটি নিয়ে বিএনপিতে ক্ষোভ

Pub: রবিবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ ৬:১৮ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: রবিবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ ৬:১৮ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর:
গাজীপুর মহানগরের প্রস্তাবিত কমিটি নিয়ে বিএনপিতে চাপা ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। জেলা শ্রমিক দলের নেতা সালাউদ্দিন সরকার মহানগর বিএনপির সভাপতি হতে যাচ্ছেন এমন খবরে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ২০১৩-১৪ সালের আন্দোলন-সংগ্রামে ওই নেতা কখনো মাঠে ছিলেন না। গত ৯ বছরে গুরুত্বপূর্ণ কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচিতে তাঁকে পাওয়া যায়নি। নেতাকর্মী ও দলের চরম দুর্দিনে তিনি বেশি সময় দেশের বাইরে কাটিয়েছেন। তাঁকে সভাপতি করা হলে গাজীপুরে দল চাঙ্গার পরিবর্তে অস্তিত্ব সংকটে পড়বে। তবে পদ বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় এসব নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলছেন না কেউ।

জেলার জ্যেষ্ঠ নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গাজীপুর মহানগর প্রতিষ্ঠার অর্ধযুগ পেরিয়ে গেলেও মহানগর ও সহযোগী সংগঠনের কমিটি দিতে পারেনি বিএনপি। এ ছাড়া জেলা বিএনপির কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে চার বছর আগে। জেলা ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি নেই ১৭ বছর ধরে। কমিটি না থাকায় নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা রয়েছে। দলেও বিশৃঙ্খলতা দেখা দিয়েছে। এসব কারণে বিএনপি বিগত সরকারবিরোধী আন্দোলনে গাজীপুরে তেমন সফলতা পায়নি।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত বছরের ৪ মে গাজীপুরে তৃণমূল বিএনপির প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হলে নেতাকর্মীরা প্রধান অতিথির কাছে একযোগে জেলা, মহানগর বিএনপি ও দলের সহযোগী সংগঠনের কমিটি ঘোষণার দাবি জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র থেকে প্রথমে গাজীপুর মহানগর বিএনপির কমিটি গঠনের তোড়জোড় শুরু হয়।

জেলা বিএনপির একাধিক জ্যেষ্ঠ নেতা জানান, জেলা শ্রমিক দলের নেতা সালাউদ্দিন সরকারকে সভাপতি ও একজন শিল্পপতিকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর বিএনপির কমিটি হচ্ছে—এমন খবর গাজীপুরজুড়ে ভেসে বেড়াচ্ছে। এ খবরে ত্যাগী নেতাকর্মীরা হতাশ ও ক্ষুব্ধ। কারণ ৯ বছরে সরকারবিরোধী কোনো কর্মসূচিতে ছিলেন না তাঁরা।

জেলা যুবদলের একাধিক নেতা জানান, দলের চরম দুর্দিনে নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠে ছিলেন সাবেক এমপি হাসান উদ্দিন সরকার।

তিনি জেলা পরিষদ ও টঙ্গী পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান। শ্রমিক নেতা এবং সৎ মানুষ হিসেবে তাঁর জেলাজুড়ে সুনাম রয়েছে। নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা ছিল, তিনিই হবেন দলের মহানগরের সভাপতি। কিন্তু সালাউদ্দিন সরকারের সভাপতি হওয়ার খবরে নেতাকর্মীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

নেতাদের অনেকে বলেন, গত কয়েক বছর ধরে আন্দোলন-সংগ্রাম ও মিছিল-মিটিংয়ে সাহসিকতার সঙ্গে রাজপথে ছিলেন সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সুরুজ আহমেদ। প্রস্তাবিত কমিটিতে তিনি সুবিধাজনক অবস্থানে নেই। এরকমভাবে অনেক ত্যাগী নেতা নতুন কমিটিতে কাঙ্ক্ষিত পদ পাচ্ছেন না।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী ছাইয়েদুল আলম বাবুল বলেন, ‘গাজীপুর মহানগর বিএনপির কমিটি গঠনের জন্য কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতাকে দলের চেয়ারপারসন দায়িত্ব দিয়েছেন। কমিটি অনেকটাই চূড়ান্ত বলে শুনেছি। যে কোনো দিন কমিটি ঘোষণা হতে পারে। তবে কারা কমিটিতে থাকছেন তা জানা নেই।’

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1506 বার

 
 
 
 
জানুয়ারি ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« ডিসেম্বর   ফেব্রুয়ারি »
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com