আজকে

  • ৬ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং
  • ৩রা শাবান, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

জমে উঠেছে যুক্তরাজ্য বিএনপির নির্বাচন!

Pub: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: রবিবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

বিশেষ প্রতিনিধি:আর মাত্র দুইদিন এরপর নির্ধারণ হবে যুক্তরাজ্য বিএনপির পরবর্তী নেতৃত্ব। সামনের দিনগুলোতে কাদের হাত ধরে, কাদের নেতৃত্বে এগিয়ে যাবে যুক্তরাজ্য বিএনপি, এমন ফয়সালা হবে নতুন বছরের প্রথম মাসের মাঝামাঝি।অর্থাৎ ডেডলাইন ১৫ জানুয়ারি ২০১৮। বিএনপি’র স্থানীয় নেতা-কর্মীরা এমনকি জিয়াপ্রেমী কোটি কোটি ভক্ত-অনুরক্তরা দিন গুজরান করছেন সেই ক্ষণের।

১৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় যুক্তরাজ্য বিএনপির কাউন্সিল ঘিরে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। সোশ্যাল মিডিয়া ফেইসবুক সহ চলছে প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা ব্যানার ফেস্টুনে সয়লাব সোশ্যাল মিডিয়া।প্রার্থীরা প্রতিনিয়ত ভোটারদের কাছে ভোটচাচ্ছেন এবং যোগাযোগ রাখছেন।ইতিমধ্যে সভাপতি পদের জন্য নমিনেশন ফরম কিনেছেন বর্তমান সভাপতি আলহাজ্ব এম এ মালিক,তপন চোধুরী,তাজ উদ্দিন।

সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোয়ন ফরম সংগ্ৰহ করেছেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমেদ, নাসিম আহমদ চৌধুরী, তাহির রায়হান চৌধুরী পাভেল,যুক্তরাজ্য যুবদলের সাবেক আহবায়ক দেওয়ান মোকাদ্দেম চৌধুরী নিয়াজ।
যুক্তরাজ্য বিএনপি নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে ১৩/০১/২০১৮ইংরেজি রোজ শনিবার বিকাল ৬টা থেকে রাত ৯ ঘটিকা পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিএনপির কার্যালয়ে নিবার্চন কমিশনার বরাবরে প্রার্থীদের নমিনেশন জমা দিবেন। ১৪/০১/২০১৮ ইংরেজি রোজ রবিবার বিকাল ০৬ ঘটিকা থেকে রাত ০৯ ঘটিকা পর্যন্ত নমিনেশন প্রত্যাহারের শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

১৫/০১/২০১৮ ইংরেজি রোজ সমবার দুপুর ১২ ঘটিকা থেকে বিকাল ০৫ ঘটিকা পর্যন্ত  পূর্ব লন্ডনের রয়েল রিজেন্সি হলে বিরতিহীন গোপন ব্যালট এর মাধ্যমে ভোট অনুষ্টিত হবে বলে নির্বাচন কমিশনার থেকে জানানো হয়েছে।যুক্তরাজ্য বিএনপির নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান ও সহকারী নির্বাচন কমিশনার হিসাবে আছেন বর্তমান যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী।

দলীয় জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান যুক্তরাজ্যে অবস্থান করায় এ কমিটিকে ঘিরে নেতা-কর্মীদের মাঝে উদ্দীপনা আরো বেশিই।দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত সংগঠক এম এ মালেক ও কয়ছর এম আহমদের ওপরই আস্থা রাখবেন ভোটাররা এমন বিশ্লেষণে মেতেছেন অনেকেই। তবে তৃণমূলের কর্মীদের মতামত হচ্ছে- বরাবরের মতো এবারো যেন ত্যাগী, যোগ্য ও দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ নেতা-কর্মীরাই নেতৃত্বের স্বাদ পান। সামনের জটিল রাজনৈতিক সময়গুলোতে সরকার বিরোধী জনমত চাঙ্গা করতে নতুন কমিটির নেতারাই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন এমন হিসাব-নিকাশও করছেন পর্যবেক্ষকরা।

তবে বিভিন্ন হিসাব-নিকাশ কষে দলীয় নেতা-কর্মীরা মনে করছেন, সংগঠনের বর্তমান সভাপতি এম.এ.মালেকই এ পদটির জন্য ফিটেস্ট। যুক্তরাজ্যের পাশাপাশি বহিঃবিশ্বে সরকার বিরোধী আন্দোলন জমিয়ে তুলতে তার বিকল্প নেই। আন্দোলন সংগ্রামেও তিনি অতীত সময়ে সেই স্বাক্ষর রেখেছেন। তাঁর সংগ্রামী ও সাহসী ভূমিকার মূল্যায়ন এবারো হবে।

এতোসব নেতার ভিড়েও যুক্তরাজ্য বিএনপির দুইবারের সাধারণ সম্পাদক স্বমহিমায় সমুজ্জ্বল বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম.আহমদ। শেষ পর্যন্ত তিনিই এ পদে বহাল থাকতে পারেন বলেও মতামত তৃণমূলের।
তৃণমূল কর্মীদের প্রত্যাশা নতুন কমিটিতে যুক্তরাজ্য বিএনপি’র নেতা যারা হবেন তারা অন্তত কর্মীবান্ধব হবেন। দলকে শেকড় থেকে সুসংগঠিত করে ঐক্যবদ্ধভাবে সরকার পতন আন্দোলনকে ত্বরান্বিত করবেন। এক্ষেত্রে লবিইংকে গুরুত্ব না দিয়ে পাকা জহুরিকে বাছাই করতে হবে। সুবিধাবাদী ও দলের জন্য বিষফোঁড়া নেতাদের কিক আউট করতে হবে।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1789 বার

 
 
 
 
জানুয়ারি ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« ডিসেম্বর   ফেব্রুয়ারি »
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com