English Version   
আজ বুধবার,২৪শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৬ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

আজকে

  • ১১ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
  • ২৪শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং
  • ৬ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 

শীর্ষখবর ডটকম

পর্ন তারকার মুখ বন্ধ রাখতে টাকা দিয়েছিলেন ট্রাম্প

Pub: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৩:৩৩ অপরাহ্ণ   |   Modi: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৩:৩৩ অপরাহ্ণ
 
 

শীর্ষ খবর

স্টেফেনি ক্লিফোর্ড নামে এক পর্ন তারকার মুখ বন্ধ রাখার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প  ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার দিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার ওয়াশিংটন পোস্ট- এর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্পের আইনজীবী মাইকেল কোহেন ওই পর্ন তারকাকে টাকা দিয়েছিলেন।

তৃতীয় স্ত্রী হিসেবে মেলানিয়াকে বিয়ে করার এক বছর পর ২০০৬ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার লেক তাহোয়িতে স্টেফেনির সঙ্গে দেখা হয়েছিল ট্রাম্পের।

২০১৬ সালের নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়ে এবিসি চ্যানেলের ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ নামের একটি অনুষ্ঠানের কথা বলার জন্য আলোচনা করেছিলেন স্টেফেনি। পরে তার মুখ বন্ধ রাখতে লস অ্যাঞ্জেলসের সিটি ন্যাশনাল ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট রয়েছে এমন একজন মক্কেলের মাধ্যমে তাকে ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার দেওয়া হয়েছিল। তবে অর্থ দেওয়ার বিষটি স্বাধীন সূত্র থেকে নিশ্চিত করতে পারেনি ওয়াশিংটন পোস্ট।

স্টেফেনিকে দেওয়ার জন্য ট্রাম্পের কাছ থেকে অর্থ পাওয়ার বিষয়টি তার আইনজীবী কোহেন অস্বীকার করেছেন।

তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন,‘ মুখবন্ধ রাখতে ট্রাম্পের কাছ থেকে অর্থ পাওয়ার বিষয়টি পুরোপুরি মিথ্যা।’

তবে বরাবরের মতো এবারো এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে হোয়াইট হাউজ। হোয়াইট হাউজের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, এগুলো পুরনো, চর্বিত বিষয়, যেগুলো নির্বাচনে আগে ছাপা হয়েছিল। তখনো প্রকাশিত ওই রিপোর্টগুলো অস্বীকার করা হয়েছিল।তবে ওই কর্মকর্তা ক্লিফোর্ডের সঙ্গে চুক্তির ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এদিকে আইনজীবী কোহেন বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আরো একবার জোরালোভাবে মিস ড্যানিয়েলসের সঙ্গে এ ধরনের কোনো ঘটনার বিষয় অস্বীকার করেছে।

এর আগে ডজন খানেকের বেশি নারী ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন অসদাচরণ বা হয়রানির অভিযোগ আনেন। কিন্তু প্রেসিডেন্ট বরাবরই তাদের মিথ্যুক করে দাবি করে এসেছেন।

আইনজীবী কোহেন আরো বলেন, এই নিয়ে দ্বিতীয়বার আপনারা আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে অপ্রাসঙ্গিক অভিযোগ তুললেন। আপনারা এক বছরের বেশি সময় ধরে এ ধরনের মিথ্যা গল্প বলে যাচ্ছেন। যদিও ২০১১ সাল থেকে সব স্টেকহোল্ডাররা এ ধরনের দাবি অস্বীকার করে যাচ্ছে।

এদিকে ক্লিফোর্ডের সই করা একটি বিবৃতি সংবাদ মাধ্যমে দিয়েছেন কোহেন। সেখানে বলা হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে ক্লিফোর্ডের কোনো ধরনের ‘যৌন বা রোমান্টিক সম্পর্ক’ ছিল না।

ওই বিবৃতিতে ক্লিফোর্ডকে উদ্ধৃতি করে বলা হয়, গুজব ছড়িয়েছে যে আমি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে মুখ বন্ধ রাখার জন্য টাকা নিয়েছি। এ ধরনের খবর পুরোটাই মিথ্যা।

তবে এই আর্থিক লেনদেন ক্লিফোর্ডের আইনজীবী কিথ ডেভিডসনের মাধ্যমে হয়েছিল বলে জানাচ্ছে বিভিন্ন গণমাধ্যম। তবে ডেভিডসন বলেন, ড্যানিয়েলস আগে আমার মক্কেল ছিলেন। আমার মক্কেলের আইনি বিষয় নিয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে পারবো না।

যে মাসে ওই চুক্তি হয়েছিল ওই মাসেই ওয়াশিংটন পোস্ট একটি ভিডিও প্রকাশ করে। যেখানে নারীদের যৌন হয়রানির বিষয়ে গর্ব করতে শোনা যায় ট্রাম্পকে। তখন ট্রাম্প ওই ভিডিওকে ‘লকার রুম টক’ বলে উড়িয়ে দেন।

২০০৬ সালে নেভাদায় ওই টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময়ে ক্লিফোর্ড বিশ্বের শীর্ষ পর্ন তারকা ছিলেন। ২০১৬ সালের অক্টোবরে একই ধরনের অভিযোগ করেন আরেক অ্যাডাল্ট-ফিল্ম স্টার জেসিকা ড্রেক।

তিনিও অভিযোগ করেন, ২০০৬ সালে ওই সেলিব্রেটি গলফ টুর্নামেন্ট চলাকালে ট্রাম্প তাকেসহ আরো দুই নারীকে তাদের বিনা অনুমতিতে চুমো দেয়।

তবে তার মুখ বন্ধ রাখার জন্য ট্রাম্পের কাছ থেকে তিনি কোনো টাকা পাননি বলেও জানিয়েছেন জেসিকা।
স্টেফ্যানি ক্লিফোর্ড প্রায় ১শ ৫০টি পর্ন ফিল্মে কাজ করেছেন। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘ডার্টি ডিডস’, ‘নিস্ফোস’ ও ‘গুড উইল হাম্পিং’।

Print Friendly, PDF & Email
 
 

শীর্ষ খবর/আ আ

 
 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1054 বার
 
 
 
 
 
 

জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:


কপিরাইট ©২০১০-২০১৬ সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত শীর্ষ খবর ডটকম

প্রধান সম্পাদক : ডাঃ আব্দুল আজিজ

পরিচালক বৃন্দ: আবদুল আহাদ, সামছু মিয়া,
মোঃ দেলোয়ার হোসেন আহাদ

ফোন নাম্বার: +447536574441
ই-মেইল: info.skhobor@gmail.com