আজকে

  • ৬ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং
  • ৩রা শাবান, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

মনোনয়ন অস্বস্তি আ’লীগে প্রার্থীর খোঁজে বিএনপি

Pub: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ১:০১ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ১:০১ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

নীলফামারী জেলার ডোমার ও ডিমলা উপজেলা নিয়ে নীলফামারী-১ আসন। দুই উপজেলায় রয়েছে ২০টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা। ডিমলার ১০ ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা (২০১৪) এক লাখ ৭৫ হাজার ৮১৮, ডোমারে ১০ ইউনিয়ন ও এক পৌরসভায় এক লাখ ৫৭ হাজার ৫১ ভোট। মোট তিন লাখ ৩২ হাজার ৮৬৯ ভোটারের মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৬৬ হাজার ৬৫৩, নারী এক লাখ ৬৬ হাজার ২১৬। বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের আফতাব উদ্দিন সরকার। আওয়ামী লীগে এবারের মনোনয়ন প্রত্যাশায় রয়েছেন অর্ধ ডজনের বেশি প্রার্থী। নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সমর্থন আদায়ে তারা চষে বেড়াচ্ছেন এলাকায়। বিএনপি জোটের পক্ষে আসনটিতে বিএনপি নিজস্ব প্রার্থীর কথা ভাবলেও শরিক দল ন্যাপের চেয়ারম্যান ভাবছেন প্রার্থিতার কথা। ওই জোটের অপর প্রধান শরিক জামায়াতের প্রার্থিতার ভাবনা নেই আসনটিতে।

জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী অপ্রতিদ্বন্দ্বী। দলটি মহাজোটের শরিক হওয়ায় বড় বাধা হতে পারে আওয়ামী লীগ। আবার আওয়ামী লীগেরও বাধা হতে পারে জাতীয় পার্টি। নবম সংসদে মহাজোটের পক্ষে আসনটি ছিল জাতীয় পার্টির ভাগে। বাম মোর্চার পক্ষে বাসদের (খালেকুজ্জামান) একজন প্রার্থী রয়েছেন দলীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়।

বিগত ১০টি নির্বচনের বিশ্লেষণ: আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নির্বাচিত হন প্রথম, পঞ্চম, অষ্টম ও দশম নির্বাচনে। বিএনপি দলীয় প্রার্থী নির্বাচিত হন দ্বিতীয় ও ষষ্ঠ (১৫ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচনে। জাতীয় পার্টির প্রার্থী নির্বাচিত হন তৃতীয়, চতুর্থ, সপ্তম ও নবম (মহাজোটের হয়ে) সংসদে।

আওয়ামী লীগ: বর্তমান এমপি ডিমলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিন সরকার এবারের মনোনয়ন প্রত্যাশী। প্রবীণ ওই রাজনীতিবিদ দেশ স্বাধীন পূর্ব মহকুমা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছিলেন। রাজনীতিতে থেকে একাধিকবার ডিমলা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ডিমলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে তিনি প্রথমবার জাতীয় সংসদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত হন। তার বাড়ি ডিমলা উপজেলা শহরে। দীর্ঘ রাজনীতির জীবনের দক্ষতা, নেতাকর্মীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক, এলাকার দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধন ও সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতায় তিনি এবারের মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।

এদিকে মনোনয়ন চান আসনটির সাবেক এমপি শিল্পপতি ড. হামিদা বানু শোভা। অষ্টম সংসদে তিনি দলের মনোনয়নে ওই আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন। নবম সংসদে দলের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ছিলেন। ব্যবসায়িক কারণে ঢাকায় অবস্থান করলেও বাড়ি ডোমার উপজেলা শহরে।

মনোনয়ন প্রত্যাশার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন ডোমার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক খায়রুল আলম। তিনি ডিমলা ইসলামিয়া ডিগ্রি কলেজে শিক্ষকতা পেশা শেষে এক বছর আগে অবসর গ্রহণ করেন। ছাত্র রাজনীতিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এসএম হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। এলাকায় ফিরে ২০০০ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক, ২০০৫ সালে আহ্বায়কের দায়িত্ব পান। এরপর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। বাড়ি ডোমার উপজেলা শহরে।

অপরদিকে মনোনয়ন চান ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপসাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক সরকার ফারহানা আক্তার সুমি। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ওই ছাত্রনেতা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফার্মেসিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন শেষে অধ্যয়ন করছেন এলএলবি। তিনি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির কল্যাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক, বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহশিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সভাপতি, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের প্রথম নারী এজিএস ছিলেন। তার বাড়ি ডোমার উপজেলার ভোগডাবুড়ি ইউনিয়নের একসময়ের স্থলবন্দর চিলাহাটিতে।

আরেক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও সাবেক এমএলএ মরহুম আব্দুর রহমান চৌধুরীর নাতি ব্যারিস্টার ইমরান কবির চৌধুরী জনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন। তার গ্রামের বাড়ি ডিমলা উপজেলার পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের ঠাকুরগঞ্জ গ্রামে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে তিনি ছাত্রলীগ ও পরে জেলা যুবলীগের বিভিন্ন পদে ছিলেন। বর্তমানে তিনি লন্ডন আইনজীবী পরিষদের সভাপতি এবং নীলফামারী জেলা বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি বলে জানান।

মনোনয়ন প্রশ্যাশায় এলাকায় গণসংযোগে করছেন আরেক আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মনোয়ার হোসেন। পেশাগত কাজে ঢাকায় অবস্থান করলেও তার বাড়ি ডোমার উপজেলা শহরে।

চাকরি থেকে অবসরে এসে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশায় কাজ করছেন সাবেক সেনা কর্মকর্তা লে. কর্নেল (অব.) তছলিম উদ্দিন। বাড়ি ডিমলা উপজেলার খগাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দোহলপাড়া গ্রামে। ১৯৮৪ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়ে ২০১৫ সালে অবসর গ্রহণ করেন।

জাতীয় পার্টি: আসনটিতে ২০০৮ সালে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী হয়ে এমপি নির্বাচিত হন শিল্পপতি জাফর ইকবাল সিদ্দিকী। পাঁচ বছরে এমপি থেকে নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন তিনি। আসনটিতে ২০১৪ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি থেকে একক নির্বাচন করে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কাছে সামান্য ব্যবধানে পরাজিত হন। এবারে ওই আসনে জাতীয় পার্টির একক মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় অনেকটাই আছেন সুবিধাজনক অবস্থানে।

শিল্পপতি জাফর ইকবাল সিদ্দিকী জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে প্রবেশ করেই মনোনয়ন পান নীলফামারী-১ আসনে। নির্বাচিত হয়ে মানুষের কল্যাণে মনোনিবেশ করেন। তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী, রাজনীতির পাশাপাশি একাধিক সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

বিএনপি ও জোটের শরিক: বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার ভাগ্নে শাহরিন ইসলাম তুহিন এ আসনে দলের পক্ষে চূড়ান্ত প্রার্থী। কিন্তু বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে দায়ের হওয়া দুর্নীতির মামলায় দেশের বাইরে পলাতক রয়েছেন তিনি। তার অনুপস্থিতে অনেকটাই প্রার্থী সংকটে বিএনপি। এমন সংকটে ওই আসনে ২০০৮ সালে প্রার্থী হয়েছিলেন তার (তুহিন) বাবা অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম চৌধুরী। এবারো তিনি অথবা তুহিনের মা সেলিনা ইসলাম বিউটি (বেগম খালেদা জিয়ার বড় বোন) প্রার্থী হতে পারেন বলে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. সামসুজ্জামান জানিয়েছেন। তবে বিএনপি নেত্রীর বোন, দুলাভাই প্রার্থিতার বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেননি। ঢাকায় তাদের (বোন, দুলাভাই, ভাগ্নে) বসবাস হলেও গ্রামের বাড়ি ডোমার উপজেলার গোমনাতি ইউনিয়নের চৌধুরীপাড়া গ্রামে।

বিএনপি জোটের শরিক ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি মনোনয়ন চান আসনটিতে। তিনি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শাসনামলের মন্ত্রিসভার সিনিয়র মন্ত্রী মরহুম মশিউর রহমান যাদু মিয়ার নাতি ও সাবেক মন্ত্রী মরহুম শফিকুল গণি স্বপনের ছেলে। ঢাকায় অবস্থান করলেও পৈত্রিক নিবাস ডিমলা উপজেলা শহরে। যুক্তরাজ্যে এলএলবি স্নাতক লেখাপড়া শেষে দেশে ফিরে যোগ দেন রাজনীতিতে। জোটের মনোনয়নে তিনি আশাবাদী।

বাম দল: এই আসনে বাম দলগুলোর তেমন উল্লেখযোগ্য প্রার্থী মাঠে না থাকলেও ২০০৮ সালের নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন বাম মোর্চার প্রার্থী বাসদের (খালেকুজ্জামান) নেতা মো. আসাদুজ্জামান পাটোয়ারী লাকু। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে অংশগ্রহণের দলীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি আমি।’

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1064 বার

 
 
 
 
জানুয়ারি ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« ডিসেম্বর   ফেব্রুয়ারি »
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com