আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশ হাইকমিশন প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্তে পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে ধন্যবাদ

Pub: Friday, May 22, 2020 6:26 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত ২১শে মে ২০২০ তারিখে আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে অনলাইন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশী দূতাবাস প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্তের জন্য বাংলাদেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন মূলক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মাননীয় হাইকমিশনার গতবছর ১৯শে নম্বেবর ডাবলিনে আসেন আয়ারল্যান্ডের রাষ্ট্রীয় সফরে, উনি আয়ারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট মিস্টার ড: হিগিন্স এর সাথে দেখা করেন এবং শির্ষস্থানীয় পররাষ্ট্র এবং বাণিজ্যমন্ত্রনালয়ের কর্মকর্তাদের সাথে সৌজন্যমুলক সাক্ষাত করেন যা বাংলাদেশ এবং আয়ারল্যান্ডের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের বিরাট ভুমিকা রাখছে। উল্লেখ যে গতকালের সভায় আমাদের সম্মানিত মাননিয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী মহোদয় উনার বক্তৃতায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি অত্যান্ত আন্তরিকতা এবং কার্যকর ভুমিকা প্রদানের জন্যে অঙ্গীকার করেন। তার প্রতিক্রিয়ায় আইরিশ বাংলাদেশী কমিউনিটির সকল সদস্যরা উৎফুল্ল হন। পরিবর্তি সময়ে মন্ত্রী মহোদয় আয়ারল্যান্ড সফর করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

ভিডিও কনফারেন্স উপস্থিত ছিলেন গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সম্মানিত পররাষ্ট্র মন্ত্রী জনাব ড: এ,কে, আব্দুল মোমেন, বাংলাদেশের ব্রিটিশ হাই কমিশনার জনাবা তাসনিম মুন ও বাংলাদেশের জার্মান অনারারি কনসুলেট জনাব ইন্জিনিয়ার হাসনাত মিয়া।

হাসনাত মিয়া বলেন , কিছুদিন আগে সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ ও সাবেক আয়ারল্যান্ড প্রবাসী জনাব হাবিবে মিল্লাত মুন্না আয়ারল্যান্ডের জন্য এই সুখবর নিয়ে আসেন এবং আয়ারল্যান্ডে এই হাইকমিশন স্থাপন যথার্থই প্রবাসী বাঙালিদের জন্য অনেক সুফল বয়ে আনবে।

ব্রিটিশ বাংলাদেশ হাইকমিশনার তাসনিম মুন ওনার বক্তব্যে সুবিন্যস্তভাবে আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশী দুতাবাস প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো তুলে ধরেন। তিনি বলেন যে আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রতিষ্ঠিত হলে অপার সম্ভবনা রয়েছে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সমূহের। এতে বাংলাদেশে থেকে আয়ারল্যান্ডে আসাটা যেমন সহজতর হবে তেমনি আয়ারল্যান্ডে বসবাসকারী বাংলাদেশীদেরও সহজতর হবে সরকারী বিভিন্ন কাজে। দেশে প্রায় ছয় লক্ষাধিক ফ্রি ল্যান্স তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন জনবল রয়েছে যার সুযোগ কাজে লাগানো যেতে পারে।

উক্ত সভার শেষে বক্তব্য রাখেন মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী যিনি দৃঢ় আশা ব্যক্ত করেন ডাবলিনে বাংলাদেশী দুতাবাস প্রতিষ্ঠায়। তিনি উল্লেখ্য করেন যে বাংলাদেশের এখন পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ৭৭টি দুতাবাস রয়েছে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতা থাকা অবস্থায় আওয়ামীলীগ সরকারের লক্ষ্যমাত্রা ১০০তে উন্নীত করা। তিনি প্রবাসীদের কল্যাণের জন্য আওয়ামীলীগ সরকারের নেওয়া বিভিন্ন প্রকল্প ও উদ্যোগের কথা তুলে ধরেজননেত্রী শেখ হাসিনা কে ধন্যবাদ জানান এবং আয়ারল্যান্ড বাসীকে অভিনন্দন জানান।

ঐতিহাসিক এবং ও তাৎপর্যময় এই সভায় উপস্থিত ছিলেন:

ডাবলিন থেকে:

জনাব মো: ফিরোজ হোসেন- সফ্টওয়ার ইঞ্জিনিয়ার এবং সভাপতি ডাবলিন আওয়ামী লীগ।

বাবু অলক সরকার- সফ্টওয়ার ডাটা এনালিস্ট, সাধারন সম্পাদক ডাবলিন আওয়ামী লীগ।

জনাব মুন্না সৈকত- ফিনান্সিয়াল এনালিস্ট এবং ব্যবসায়ী, প্রবাস ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক , ডাবলিন আওয়ামীলীগ ।

জনাব ডা: জিন্নুর জায়দিরগার- কনসালন্টেট ডাবলিন কনোলী হাসপাতাল।

জনাব রিয়াজ খন্দকার- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব জসীম উদ্দিন- সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক, আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

জনাব মো: মোস্তফা – কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব।

জনাব শাহাদাৎ হোসেন- কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব।

জনাব তারেক সালাউদ্দিন – বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং কমিউনিটি নেতা।

জনাব কাজী কবীর- আয়ারল্যান্ড বাংলাদেশী কমিউনিটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা।

শ্রী সমীর কুমার ধর- গবেষক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব হাফিজুর রহমান লিঙ্কন- কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব এবং সহ-সভাপতি, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব দিলদার হোসেন- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং সাংগঠনিক সম্পাদক, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব মো: সাইফুর রহমান বাবলু – বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং সহ-সভাপতি, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব নাসির আহমেদ- সফ্টওয়ার ডেভলোপার এবং তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

জনাব নজরুল ইসলাম মানিক- ব্যবসায়ী এবং সদস্য, ডাবলিন আওয়ামীলীগ।

কাউন্টি কর্ক থেকে উপস্থিত ছিলেন:

জনাব রফিক খান- প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

জনাব ফয়জুল্লাহ শিকদার- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী।

জনাব সানোয়ার হোসেন- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী।

জনাব মো: নোমান চৌধুরী- ছাত্র এবং সভাপতি, আয়ারল্যান্ড ছাত্রলীগ।

কাউন্টি কেরী থেকে উপস্থিত ছিলেন:

জনাব কিবরিয়া হায়দার- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং প্রাপ্তন সভাপতি আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

জনাব কামরুজ্জামান নান্না- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সাবেক সহ- সভাপতি, আয়ারল্যান্ড আওয়ামীলীগ।

কাউন্টি কিলকেনী থেকে উপস্থিত ছিলেন:

জনাব সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান- কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব।

কাউন্টি ওফেলী থেকে উপস্থিত ছিলেন:

জনাব মনিরুজ্জামান শুভ্র- প্রাইভেট সার্ভিস সেক্টর, সাধারণ সম্পাদক, ওফেলি আওয়ামীলীগ।

জনাবা তাম্মান্না ফারিয়া- ছাত্রী, দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক, ওফেলি আওয়ামীলীগ।

অনলাইন সভাটি উপস্থাপন এবং নিয়ন্ত্রনের ভুমিকায় ছিলেন জনাব মুন্না সৈকত, জনাব ফিরোজ হোসেন এবং বাবু অলক সরকার।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আয়ারল্যান্ডের সুপরিচিত বাংলাদেশ কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গ।

Hits: 12


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ