বিজয়ের জন্য আত্মত্যাগের প্রস্তুতি নিতে হবে: নেতাকর্মীদের খসরু

Pub: Thursday, February 20, 2020 7:07 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ব‌লে‌ছেন, ‘আজকের বাংলাদেশের সংবিধান, আইনের শাসন, মানবিকতা, দেশনেত্রীর মুক্তির সাথে চ্যালেঞ্জিং মোকাবেলা করছে। এই চ্যালেঞ্জের সাথে মোকাবেলা করতে হলে, বিজয়ী হতে হলে, আত্মত্যাগ করতে হবে। আত্মত্যাগের প্রস্তুতি নিয়ে নতুন বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে বিএন‌পির উদ্যোগে একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ সব কথা বলেন।

আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘ইতিহাস রচনা করেন ইতিহাসবিদরা কিন্তু বাংলাদেশের স্বৈরাচারী ইতিহাস, ১-১১’র প্রেক্ষাপটের ইতিহাস রচনার দায়িত্ব নিয়েছে কিছু রাজনীতিবিদ। রাষ্ট্রভাষার ইতিহাস তারা করেছেন, স্বৈরাচার বিরোধী ইতিহাসে তারা করেছেন। তারা তাদের নিজস্ব ইতিহাস তুলে ধরেছেন।’

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘এই দেশে যারা এখন ক্ষমতায় বসেছে তারা নিজস্ব ইতিহাস লিখছে। এই ইতিহাস কোনদিনও টিকে থাকতে পারবে না। এর আগেও অনেকেই চেষ্টা করেছিল। কিন্তু টিকে থাকতে পারে নাই। এই ইতিহাসও টিকবে না। সত্যিকারের ইতিহাস লিখবে ইতিহাসবিদরা আগামী দিনে।’

তিনি বলেন, ‘বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক ভাষায় মর্যাদা পেয়েছে এটা আমাদের গর্বের বিষয়। সমস্ত বাঙালির হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে। যাদের রক্তের বিনিময়ে আন্দোলনের মাধ্যমে বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক ভাষায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তাদেরকে সারা জীবন আমাদেরকে মনে রাখতে হবে। কিন্তু যখন একটি ভাষা আন্তর্জাতিক মর্যাদা পায় তখন আমাদেরকে ভাবতে হবে। বিশ্ববাসীকে ভাবতে হবে। এর পিছনে কারা, কোন জাতি?’

খসরু বলেন, ‘যে জাতি ভাষার আন্দোলন করে বাংলা ভাষাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা রূপান্তরিত করেছে, সেই দেশে কি গণতন্ত্র আছে? মানুষের অধিকার আছে? সুতরাং বাংলা ভাষা যখন আন্তর্জাতিক ভাষায় রূপ নিয়েছে তখন বিশ্ববাসীর মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে- এই দেশে গণতন্ত্র আছে? মানবাধিকার আছে? মানুষের অধিকার আছে? আইনের শাসন আছে? তারা কি মুক্তবা‌গে তাদের কথাগুলো বলতে পারছে? এগুলো কিন্তু আন্তর্জাতিক মানদণ্ড। ভাষা যেমন আন্তর্জাতিক মানদণ্ড, এগুলোও কিন্তু আন্তর্জাতিক মানদণ্ড। এই মানদণ্ড যদি না থাকে শুধু বাংলা ভাষা দিয়ে বাঙালিদের মুখ উজ্জ্বল করা সম্ভব নয়।’

বিএন‌পির এই নেতা ব‌লেন, ‘দেশনেত্রীকে জেলে রেখে, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রীকে জেলে রেখে, গণতন্ত্রকে হত্যা করে, আইনের শাসনকে হত্যা করে, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হত্যা করে, বাকস্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে, ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলা ভাষা যে স্থান করে নিয়েছে সেটার সত্যিকারে রূপ কোনদিনও পাবে না।’

তিনি বলেন, ‘আজকের বাংলাদেশের সংবিধান, আইনের শাসন, মানবিকতা দেশনেত্রীর মুক্তির সাথে চ্যালেঞ্জিং মোকাবেলা করছে। এই চ্যালেঞ্জের সাথে মোকাবেলা করতে হলে বিজয়ী হতে হলে আত্মত্যাগ করতে হবে। আত্মত্যাগের প্রস্তুতি নিয়ে নতুন বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।’

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপ‌তি‌ত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হো‌সেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, জমিনউদ্দিন সরকার, সেলিমা রহমান, ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল প্রমুখ।

Hits: 0


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ