ঋতিল মনীষা-এর কবিতা

Pub: বুধবার, আগস্ট ২২, ২০১৮ ৭:০৮ অপরাহ্ণ   |   Upd: বুধবার, আগস্ট ২২, ২০১৮ ৭:০৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

তোর জন্য রেখে যাব এক ফোঁটা বৃষ্টি
….অসময়ে
অথবা …..
এক জোড়া আঁকা শালিক
এক পৃষ্ঠার রঙীন খাতায়।
এছাড়া আর কি দিব ?
অরণ্যে তুই নিজেই সাধু
ঝাণ্ডা উড়াস চিম্বুকে,
আমি চোর কল্পনায়
স্মৃতিটুকু হাতিয়ে নিই
মেঘ ছুয়েঁ যায় ফড়িং তোকে।
আমাকে ডাকিস পাহাড়ে
…পুনরায়?
ডুবে আছি আমি সমুদ্রে,
জাহাজে ঢেউয়ের তল্লাসী
জেলের জ্ঞানশূন্য ক্ষুধা
নিপুণ টোপ ফেলেছি বড়শীতে।
জঙ্গলে জ্যোৎস্না বড় জীবন্ত
বলছিস যেতে সেখানে?
যেতাম,
যদি ভরে উঠত জাল
শোধ করতাম নৌকার ঋণ
ছুটে যেতাম বর্শা হাতে তোর পাশে
জানতাম,
এ যাবৎ ক’টা মারলি পশু-
শিকারে হারিয়েছিস লুণ্ঠন মানস?
তাও ভালেো বাঁচিয়ে রেখেছি পান্থ মন!

দেখা হলে চন্দ্র কথা বলিস
কেমন?
আর জ্যোৎস্না পরী -তোর মেয়ের গল্প
না দেখা নতুন শিশু জীবন!
হবে আবার আত্মশুদ্ধি
ভ্রমণে নীলগিরি,
দু’চাকার ঘোড়ায়
দেহাতি প্রলাপ।
আয় আবার নভোচর
নোঙ্গরে ভিড়ি।
মাঝে-মধ্যে গর্তে পড়ে গুহায় ঢুকি
সেদিন তুই কেমনে বুঝিস!
অরণ্যের তাড়া ভুলে আমকে খুজিঁস!
দিতে পারি নি কখনো কিছু,
রেখে যাব বৃষ্টি এক ফোঁটা
শালিকের সুমিষ্ট কোলাহল
শ্রাবনের বর্ণমালায় লিখিত প্রমাণ।

দূরে থাকলে বার্তা পাঠাস
বধির উজানি ভেজা পবন,
এক ঝুড়ি আরোগ্য পাতা
এই বেলায়-
আমি রুগ্ন সজ্জা ছাড়ি।
(দানপত্র)


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1219 বার