রাজধানীতে হোটেলে আটকে রেখে চুয়াডাঙ্গার স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

Pub: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭ ৪:৩৮ অপরাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭ ৪:৩৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:রাজধানী ঢাকার গুলশানে একটি আবাসিক হোটেলে স্কুলছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার রাতে ওই হোটেল থেকে খুলনার চুয়াডাঙ্গার ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার এবং ‘ধর্ষক’ আরাফাত আলম রবিন (২২)কে আটক করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
রবিন চুয়াডাঙ্গা শহরের মাঝের পাড়ার সায়দার রহমান ছমিরের ছেলে।
ওই স্কুলছাত্রীর বাড়ি চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল এলাকায়। সে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোজাম্মেল হক  জানান, গত ৩ সেপ্টেম্বর ওই ছাত্রীকে কৌশলে ঢাকা নিয়ে আসেন রবিন। এ ঘটনার পর মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ওই স্কুলছাত্রী মা।
এরপর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঢাকার গুলশানের একটি আবাসিক হোটেল থেকে বুধবার রাত ১২ টার দিকে রবিনকে আটক করা হয়। স্কুলছাত্রীকেও উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি।
ওসি জানান, এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় একটি অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা করেছেন। রবিনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।
বর্তমানে ওই ছাত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে চিকিৎসাধীন।
ওই স্কুলছাত্রীর মা জানান, তার মেয়েকে অপহরণ করে হোটেলে আটকে রেখে পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ