আজকে

  • ৬ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং
  • ৩রা শাবান, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

চুয়াডাঙ্গায় আনসার সদস্যসহ ৪ নিরাপত্তা কর্মীকে কুপিয়ে জখম

Pub: সোমবার, এপ্রিল ১৬, ২০১৮ ২:১০ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, এপ্রিল ১৬, ২০১৮ ২:১০ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি,
আফজালুল হক: চুয়াডাঙ্গার দর্শনা রেল ইয়ার্ডে চোর সিন্ডিকেট ও ইয়াবা ব্যাবসায়ীদের সাথে নিরাপত্তা কর্মীদের বিরোধের জেরে আনসার সদস্যসহ ৪ রেলওয়ে নিরাপত্তা কর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে চোর সিন্ডিকেট ও ইয়াবা ব্যাবসায়ীরা। তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিতসার জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিতসক। গত ১৪ এপ্রিল শনিবারে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালে সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবিব পরিদর্শন করেন।

এ দিকে , দর্শনা রেলওয়ে বন্দর দিয়ে বাংলাদেশের ইনপোর্ট ব্যবসায়ীরা ও সরকার চাউল আমদানী করা শুরু করেছে। আমদানীকৃত চাউল দর্শনা রেল বন্দরে সুরক্ষিত অবস্থায় রাখার জন্য বিগত দিনের তুলনায় নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদারও করা হয়েছে। তাছাড়া বন্দরের বেশ কিছু অংশ প্রাচীর দিয়ে আবদ্ধ করা হয়েছে। চুরি করা বা চুরি হওয়ার কোন সুযোগ না থাকায় স্থানীয় একটি চোর সিন্ডিকেট ও ইয়াবা ব্যাবসীরা বিভিন্ন সময় নিরাপত্তা কর্মীদের উপর হুমকি ধামকি দিয়ে থাকে। এরই সুত্র ধরে গতপরশু শনিবার নিরাপত্তা কর্মীদের উপর আতর্কিত হামলা ও অস্ত্র মহড়ার ঘটনা ঘটেছে।
জানাগেছে, গতপরশু শনিবার পহেলা বৈশাখের দিন দুপুর দেড়টার দিকে দর্শনা রেল বন্দরের নিরাপত্তা বিভাগের সিপায়ী আ: রাজ্জাক ইয়ার্ড সংলগ্ন মোবারক পাড়ায় একটি দোকানে যায় কিছু সদয় করতে। এরই মধ্যে বেশ কয়েকজন লোক তাকে রাস্তার উপরে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে তর্কাতর্কির সৃষ্টি হলে ঐ লোক গুলি সিপায়ী আ: রাজ্জাকের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। স্থানীরা গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়। ওই দিনই রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে প্রতিদিনের ন্যায় রেল বন্দর ঠহল দিতে থাকে। এসময় পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা চোর সিন্ডিকেটের ১০ থেকে ১২ জনের একটি দল বন্দরের ৫নং বিটের বটগাছ সংলগ্ন স্থানে কর্তব্যরত অবস্থায় নিরাপত্তা হাবিলদার আ: রাজ্জাক (৫০), নায়েক সঞ্জিত কুমার সরকার(৩৫) ও আনসার সদস্য হাফিজুর রহমান(৩৮) কে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকে। এসময় তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী ও নিরাপত্তা বাহিনির সদস্যরা ছুটে গেলে চোর চক্রের দলটি পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাবিলদার আ: রাজ্জাককে ও আনসার সদস্য হাফিজুরের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ড করে। এ বিষয়ে দর্শনা রেল বন্দরের নিরাপত্তা বাহীনির চিপ ইনেস্পেক্টর শাহ আলম জানায় এ ঘটনায় দামুড়হুদা থানা ও রেলওয়ে থানায় পৃথক পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। দর্শনা তদন্ত কেন্দ্রের অফিসার ইনচার্য শফিকুল ইসলাম জানায় এ মামলায় দামুড়হুদা থানা ও দর্শনা পুলিশের অভিযানে এজাহারভুক্ত ৬জন আসামীকে আটক করা হয়েছে। যারা হলেন, দর্শনা পরানপুর বেলে মাঠপাড়ার মৃত হুমায়ুন কবীরের ছেলে রাশেদুল ইসলাম(১৬), একই এলাকার মৃত নুরুল হকের ছেলে হারুনুর রশীদ (৩৯) শান্তিপাড়ার মৃত ওয়াসিম মিয়ার ছেলে সুজন(১৩), শান্তিপাড়ার মৃত আলতাব মিয়ার ছেলে গাফ্ফার মিয়া(৬০), শান্তিপাড়ার মৃত টুকু মিয়ার ছেলে জসিম(২৫), শান্তিপাড়ার আব্বাস আলীর ছেলে ইউনুচ আলী(৩০)। গোপন একসুত্রে, জানাগেছে এসকল আসামীরা শান্তিপাড়ার মাদকের ঘাটি পরিচালনা করে এবং এদের নামে মাদকের একাধিক মামলাও রয়েছে। আসামীদের আটকের পরপরই থানায় সোপার্দ করা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রেলওয়ে বিভাগের চিপ কমান্ডেড ফাত্য়া ভুঁইয়া রাজশাহী থেকে ও কমান্ডেড অফিসার রেজাউনুর রহমান পাকশি থেকে এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এসময় দর্শনা আন্তর্জাতিক রেল স্টেশনের সুপারেন্টেন্টড মীর লিয়াকত আলীসহ জি আর পি পুলিশের কর্মকর্তারও উপস্থিত ছিলেন বলে জানায় নিরাপত্তা চিফ ইনেস্পেক্টর শাহ আলম।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1029 বার

 
 
 
 
এপ্রিল ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« মার্চ    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
 
 
 
 
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com