আজকে

  • ৭ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২২শে আগস্ট, ২০১৮ ইং
  • ১০ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

চুয়াডাঙ্গায় যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

Pub: মঙ্গলবার, মে ১৫, ২০১৮ ৯:৩২ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, মে ১৫, ২০১৮ ৯:৩২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি,
আফজালুল হক: চুয়াডাঙ্গায় পুলিশের ধাওয়ায় পালিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা হল না সাকিব হাসান সান (২৫) নামের এক যুবকের। পরদিন সকালে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরতে হলো তাকে। মঙ্গলবার (১৫ মে) সকালে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার বেলগাছি এলাকার একটি মাঠ থেকে তার গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত সান চুয়াডাঙ্গা শহরের মাঝেরপাড়া এলাকার হেলাল উদ্দিনের ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, সকালে বেলগাছি-মাখালডাঙ্গা সড়কের গঙ্গাচরা মাঠে একটি গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সিরাজুল ইসলাম মনিকে বিষয়টি জানালে তিনি পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্ত শেষে দুপুর নাগাদ তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
নিহতের স্বজনরা জানান, সোমবার সন্ধ্যার আগে সান মুসলিমপাড়ায় ফুঁফুঁর বাড়িতে অবস্থান করছিল। এ সময় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করার জন্য ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। পুলিশের ধাওয়ায় সে ছাদ থেকে লাফ দিয়ে পালিয়ে গেলে তার পিছনে ধাওয়া করে পুলিশ সদস্যরা। সকালে পাওয়া যায় গুলিবিদ্ধ লাশ।
পরিবারের অভিযোগ, চুয়াডাঙ্গা সদর ফাঁড়ির দারোগা ইমরান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সানকে গ্রেফতার করতে আসে। প্রথমে সানকে না পেয়ে তার ফুঁফাতো ভাই সবুজকে আটক করে। পরে একটি ফোন পেয়ে সবুজকে ছেড়ে দিলেও পরিবারের কাছে ১ লক্ষ টাকা দাবি করে ২৪ ঘন্টার সময় দেয়া হয়। দারোগা ইমরান এ সময় সানকে উদ্দেশ্য করে বলেন- ‘সানকে ধরতে পারলেই গুলি করা হবে’। অতঃপর সকালে পাওয়া যায় তার গুলিবিদ্ধ লাশ।
এ ব্যাপারে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, নিহত সান কুখ্যাত ছিনতাইকারী ও দুধর্ষ সন্ত্রাসী ছিলো। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ছিনতাই ডাকাতিসহ ৮টি মামলা রয়েছে। তবে তাকে কে বা কারা গুলি করে হত্যা করেছে সেটা তদন্তের মাধ্যমে জানা যাবে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে সকালে বেলগাছি-মাখালডাঙ্গা সড়কের গঙ্গাচরা মাঠে পড়ে থাকা অজ্ঞাত পরিচয়ের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। নিহতের বাঁ কাঁধ ও ডান পাঁজরে দুটি গুলির চিহ্ন রয়েছে। নিহতের গায়ের রং ফর্সা। মুখে দাঁড়ি আছে। পরণে কালো জিন্সের প্যান্ট। খালি গা। হাত বাঁধা ছিল একটি গেঞ্জি দিয়ে।
ধারণা করা হচ্ছে, নিহতের পরণের গেঞ্জি খুলে হাত বেঁধে তাকে গুলি করে হত্যা করেছে কে বা কারা। প্রথমত তার পরিচয় না পাওয়া গেলেও পরে জানা যায় তার নাম সান। সে চুয়াডাঙ্গা মাঝেরপাড়ার হেলাল উদ্দিনের ছেলে এবং একাধিক মামলার আসামী।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1485 বার

 
 
 
 
মে ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« এপ্রিল   জুন »
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com