আমতলীতে ১০ টাকা কেজি দরের চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ

Pub: বুধবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ ৭:৪০ অপরাহ্ণ   |   Upd: বুধবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ ৭:৪০ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:
সরকারের খাদ্যবান্ধন কর্মসূচীর আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি কার্যক্রম পরিচালনায় নিয়োগ প্রাপ্ত ডিলারদের বিরুদ্ধে চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
উপজেলা খাদ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ২৪ জন ডিলার রয়েছে। এরা ১৪ হাজার কার্ডধারী দরিদ্র নারী পুরুষের মধ্যে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরন করবেন। কিন্ত খাদ্য গুদামে চাল না থাকায় ২৪ জন ডিলারের মধ্যে নির্ধারিত সময়ে ১০ জন ডিলার ১০ সেপ্টম্বর থেকে চাল বিতরন কার্যক্রম শুরু করেছে। চাল বিতরনে কয়েকজন ডিলারের বিরুদ্ধে ওজনে কম দেওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। তারা ৩০ কেজি চালের পরিবর্তে ২৪-২৬ কেজি করে চাল বিতরন করছে। বুধবার সকালে সরেজমি ঘুরে দেখা গেছে, কুকুয়া ইউনিয়নের কুকুয়া গ্রামের রেখা বেগমের কার্ডে ৩০ কেজি চাল তিরনের পরিমান লেখা রয়েছে। টাকাও রাখা হয়েছে ৩শ’। অথচ বিতরন করা ওই চাল ডিজিটাল মিটারে ওজনে দেখা গেছে ২৬ কেজি চাল। একই অবস্থা দেখা গেছে রিজিয়া বেগম নামের আরেক কার্ড ধারীরও। গুলিশাখালীর ডিলার মো: মনিরুল ইসলাম তার বিরুদ্ধেও চাল ওজনে কম দেওয়া অভিযোগ রয়েছে। তিনি একই দোকানে চাল ধান কেনা বেচা করায় অনেক কার্ড ধারী সঠিক ভাবে চাল নিতে পারছে না বলেও অভিযোগ রয়েছে। ওই ডিলার নির্ধারিত সময়ের আগেই দোকান বন্ধ করে চলে যান বলেও অভিযোগ রয়েছে। হলদিয়া ইউনিয়নের অফিস বাজার ডিলার জাকির এর বিরুদ্ধেও চাল বিতরনে ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার বিরুদ্ধে প্রতি কার্ডে ৬-৮ কেজি করে চাল কম দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। আমতলী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কমলেশ চন্দ্র মজুমদার জানান, হলদিয়া ইউনিয়নের অফিস বাজারে জাকির হোসেন ডিলারের বিরুদ্ধে ২০-২২ কেজি করে চাল বিতরনের অভিযোগ পেয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি। পরে আমার উপস্থিততে ৩০ কেজি করে চাল বিতরন করা হয়েছে। আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সরোয়ার হোসেন বলেন, চাল বিতরনে ওজনে কম দেওয়া অভিযোগ পেয়ে আমি নিজে কুকুয়া এবং গুলিশাখালী ইউনিয়নের চাল বিতরন কার্যক্রম পরিদর্শন করেছি। যাদের বিরুদ্ধে ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তাদেরকে সঠিক ভাবে চাল বিতরনের কঠোর নির্দেশ দিয়েছি। এবং অন্যন্য ইউনিয়নে মনিটরিং করার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) কমলেশ চন্দ্র মজুমদারসহ ট্যাগ অফিসারদের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। এরপরও যদি কারও বিরুদ্ধে চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ পাই তাহলে তার ডিলার শীপ বাতিল করা হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1065 বার