fbpx
 

গাইবান্ধা-৩: বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট ছাড়া ভোট শেষ, চলছে গণনা

Pub: রবিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০১৯ ৪:৪৯ অপরাহ্ণ   |   Upd: রবিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০১৯ ৪:৪৯ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্য দিয়ে বড় কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই স্থগিত হওয়া গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে গণনা।

রবিবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে এ ভোট শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচনে বিএনপি বা ঐক্যফ্রন্টের কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন না।

এদিন সাদুল্যাপুর ও পলাশবাড়ী উপজেলার ১৩২টি ভোটকেন্দ্রে ৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

একাধিক কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সারা দিন ভোটগ্রহণ হয়েছে। সকাল দিকে ভোটারদের উপস্থিতি তুলনামূলকভাবে কম থাকলেও বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটকেন্দ্রে আসতে শুরু করেন।

এদিন সকাল সাড়ে ৮টায় নিজ এলাকার ভাতগ্রাম স্কুল অ্যান্ড কলেজ ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান এমপি ডা. ইউনুস আলী সরকার। এর কিছুক্ষণ পরই সকাল সাড়ে ৯টায় ফরিদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মশাল প্রতীকে ভোট দেন জাসদের প্রার্থী।

স্থগিত হওয়া এ আসনে মহাজোটের ৩ প্রার্থীসহ মোট ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, নির্বাচনে সার্বিক পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে রাখতে ২ হাজার ৫০০ পুলিশ, ২০ প্লাটুন র‌্যাব, ২০ প্লাটুন বিজিবি এবং ১ হাজার ৫৮৪ জন আনসার-ভিডিপি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. টি আই এম ফজলে রাব্বী চৌধুরী গত ১৯ ডিসেম্বর (বুধবার) দিনগত রাত আড়াইটার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে মারা যান। তার মৃত্যুতে ওই আসনটি পুনঃতফসিল ঘোষণা করে ২৭ জানুয়ারি উপনির্বাচনের ঘোষণা দেয় নির্বাচন কমিশন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ