fbpx
 

শূন্য কেন্দ্রে কিছু ‘একই ভোটার’ যাচ্ছেন বার বার

Pub: Sunday, January 27, 2019 1:01 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে স্থগিত থাকা গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ী-সাদুল্লাপুর) আসনের সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে।

রবিবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হলেও দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত (এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) ভোটকেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি কম পাওয়া গেছে। কিছু কেন্দ্রে দুই-একজন ভোটার পাওয়া গেলেও অধিকাংশ কেন্দ্রই ভোটার শূন্য।

তবে কিছু যুবক ভোটার দাবি করে বার বার কেন্দ্রের ভেতর যাচ্ছেন আর আসছেন। পলাশবাড়ী উপজেলার ঘোড়াবান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মনোহরপুর উচ্চবিদ্যালয়, খামার মাহমুদপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রওশনবাগ উচ্চ বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শন করে এমন চিত্র পাওয়া গেছে।

স্থানীয় ভোটাদের মাঝে এই ভোটের আগ্রহ নেই। অনেকে বলছেন, ভোট দিয়ে কোনো লাভ নেই তাই ভোট দিতে যান নাই।

ঘোড়াবান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কুদ্দুস মিয়া নামের এক ভোটারের দেখা মিলল। তিনি জানান, তার ভোট দেয়ার ইচ্ছা ছিল না। বাড়িতে কাজ পড়ে আছে। তবুও প্রার্থীর লোকের চাপাচাপির কারণে ভোট দিতে এসেছেন তিনি।

তবে কেন্দ্রটির প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আবদুল্লাহিস শাফি বলেন, ‘শীতের কারণে সকালে উপস্থিতি কম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার বাড়বে।’

উল্লেখ্য, ২০১৪ সাল পর্যন্ত টানা ৬ বারের সংসদ সদস্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. টি আই এম ফজলে রাব্বী চৌধুরীর মৃত্যুর পর গত বছরের ২৩ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন পুনঃতফসিল ঘোষণা করে। পুনঃতফসিল অনুযায়ী, গাইবান্ধা-৩ আসনে রবিবার (২৭ জানুয়ারি) ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

আসনটিতে মোট পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের ইউনুস আলী সরকার, জাতীয় পার্টির (জাপা) দিলারা খন্দকার শিল্পী, জাসদের এস এম খাদেমুল ইসলাম, এনপিপির মিজানুর রহমান ও স্বতন্ত্র আবু জাফর মো. জাহিদ।

আজকের নির্বাচনে বিএনপি বা জামায়াত কোনো প্রার্থী দেয়নি। জেলা বিএনপির সভাপতি মইনুল হাসান বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। কিন্তু ‘ভোট কারচুপি ও অনিয়মের’ আশঙ্কায় গত ১০ জানুয়ারি তিনি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ