fbpx
 

পলাশবাড়ীতে দাদন ব্যবসার রমরমা বাণিজ্যে নিঃস্ব হচ্ছে অসহায় মানুষ

Pub: সোমবার, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৯ ৭:২০ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে দাদন ব্যবসার রমরমা বাণিজ্যে নিঃস্ব হচ্ছে গ্রামের অসহায় মানুষ। ভিটেমাটি হারিয়ে পথে বসছে দাদন ব্যবসায়ীর অত্যাচারে। নিজ এলাকা ছেড়ে ঢাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে অবস্থান করছে এসব অসহায় ভুক্তভোগী পরিবার গুলো। এমন একটি এলাকার নাম গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রাম বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। সেখানে তালুকদার পাড়ার মুনছুর আমিন তালুকদার, তার স্ত্রী সাবেক ইউপি সদস্য আর্জিনা বেগম ও পুত্র মনিরুজ্জামান রাসেলের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা দাদন ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট। চড়া সুদে টাকা দিয়ে অসহায় মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে ঘর-বাড়ী দখলসহ সুদে-আসলে টাকা অনাদায়ে শারীরিক নির্যাতন ছাড়াও বিভিন্ন হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে গ্রাম ছাড়া করতে বাধ্য করছে। নিরাপত্তার অভাবে অনেকেই ঢাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। মিথ্যা মামলার জড়িয়েও হয়রানী করছে অনেককেই। এমন পরিস্থিতির শিকার হয়ে একই এলাকার আঃ হান্নানের পুত্র শরিফুল, সবুজ ও আরিফসহ অনেকেই গ্রাম ছাড়া হয়েছে। আঃ হান্নানের পুত্রদ্বয়সহ একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর জামাতা শাফি দাদন ব্যবসায়ীর টাকা ফেরৎ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের শয়ন গৃহে তালাবদ্ধ করে মালামাল বাড়ীতে নিয়ে গেছে সাবেক ইউপি সদস্য আর্জিনা বেগম ও তার পরিবারের লোকজন। উক্ত দাদন ব্যবসায়ীচক্র এমনি ভাবে দূর্গাপুর গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের পুত্র কাঠ মিস্ত্রি জেনারুল ইসলাম, মৃত সায়েদ আলী পুত্র শামছুল ও মৃত তছির উদ্দিনের ছেলে সাজু মিয়ার বিরুদ্ধে ডাকাতির মিথ্যা মামলা জড়ানো হয়েছে।
দাদন গ্রহীতাদের শয়ন গৃহে তালাবদ্ধের বিষয়ে আর্জিনা বেগম বলেন, ওরা এনজিও’র টাকা দেওয়ার ভয়ে নিজের ঘরে নিজেরাই তালাবদ্ধ করে ঢাকায় চলে গিয়েছে।
তবে সংবাদকর্মীরা কথিত দাদন ব্যবসায়ীর মতামত সংগ্রহ করতে গেলে তাদেরকে বিভিন্ন গাল-মন্দসহ ছাড়াও মিথ্যা মামলায় জড়ানোর হুমকি প্রদর্শন করেন।
এদিকে গত ২০ জানুয়ারী মহদীপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুর নতুনবাজারে ভুক্তভোগী পরিবার গুলোসহ স্থানীয় এলাকাবাসী দাদন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে একটি মানববন্ধন করেন।
এ ব্যাপারে মানববন্ধন শেষে দাদন ব্যবসায়ীর দৃষ্টান্তদূলক শাস্তির দাবীতে ওইদিন দাদন গ্রহীতারাসহ প্রায় সাড়ে ৩শ’ এলাকাবাসীর স্বাক্ষরকৃত একটি অভিযোগের কপি ও সংবাদকর্মীদের পক্ষ থেকে পৃথক একটি সাধারণ ডায়েরী পলাশবাড়ী থানায় দাখিল করা হয়েছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ