শরীয়তপুরে সরকারী ব্রীজে তালা,জনসাধারনের যাতায়তে ভোগান্তি

Pub: মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০১৯ ১:২৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০১৯ ১:২৭ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ॥ শরীয়তপুর সদর উপজেলায় একটি বাড়ির জন্য সরকারী লাখ লাখ টাকা ব্যয় করে নির্মাণ করা হয়েছে একটি পাকা ব্রীজ। ব্রীজটি নির্মান করে নিরাপত্তার অজুহাতে গেটে তালা লাগিয়ে রেখেছেন প্রভাবশালী ঐ বাড়ির লোকজন। এতে জনগনের যাতায়তে ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। প্রভাবশালী বাড়ির লোকজনের দাবী নিরাপত্তার অভাবে গেট বানিয়ে তালা লাগানো হয়েছে। তালা লাগানোর কারনে কোন সমস্যা হচ্ছেনা। প্রশাসন বলছে অচিরেই গেট অপসারন করতে হবে। নচেৎ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
কাশিপুর গ্রামের মোদাচ্ছের মোল্যা ও পলাশ বিশ্বাস জানান ,শরীয়তপুর-মাদারীপুর মহাসড়কের পাশে শরীয়তপুর সদর উপজেলার চিতলিয়া ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের ডাক্তার জগদীশ চন্দ্র বিশ্বাসের বাড়ির সামনে খালের উপর একটি মাত্র বাড়ির জন্য ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে ৩৮ লাখ ৮৯ হাজার ৭৭৫ টাকা ব্যয়ে সাবেক এমপি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এর নিজস্ব বরাদ্ধ থেকে ৫০ফুট দৈর্ঘ্য একটি পাকা ব্রীজ নির্মান করে দেয়া হয়েছে। ডাক্তার জগদীশ বিশ্বাসের ছোট ছেলে দুলাল বিশ্বাস তৎকালীন শরীয়তপুর-১ আসনের এমপি বিএম মোজাম্মেল হক এর ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে কাজ করছেন। ব্রীজটি নির্মান করার পর নিরাপত্তার অজুহাতে প্রভাবশালী ঐ বাড়ির লোকজন নিজস্ব উদ্যোগে ব্রীজের মাঝখানে লোহার গেইট বানিয়ে তালা লাগিয়ে দিয়ে জনসাধারনের চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। এতে জনগনের যাতায়তে ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনার পর এলাকায় জনগনের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা ব্রীজের ছবি তুলে এ অভাবনীয় ঘটনাটি সামাজিক যোগযোগের মাধ্যমে ভাইরাল করে দেয়াতে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে। সংবাদ পেয়ে সংবাদকর্মী ও প্রশাসনের লোকজন সেখানে যায়। প্রভাবশালী ঐ বাড়ির লোকজনের দাবী তালা লাগানোর কারনে কোন সমস্যা হচ্ছেনা। চোর ডাকাতের ভয়ে গেট বানিয়ে তালালাগনো হয়েছে।


কাশিপুর গ্রামের গিয়াস মোল্যা বলেন,সরকারী লাখ লাখ টাকা ব্যয় করে জনসাধারনের যাতায়তের জন্য জগদীশের বাড়ির সামনে খালের উপর একটি ব্রীজ নির্মাণ করা হয়েছে। ঐ বাড়ির লোকজন ব্রীজে গেট বানিয়ে তালা লাগিয়ে রেখেছে।এতে জনসাধারন যাতায়তে ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে। জরুরী ভিত্তিতে ব্রীজটির গেইট অপসারন করা হোক।
ডাক্তার জগদীশ বিশ্বাসের ছেলে সুধীর বিশ্বাস বলেন , আমরা অনেক অনুরোধ করে বাড়ির সামনে একটি ব্রীজ নির্মাণ করেছি। এ ব্রীজের কাছাকাছি বেশ কয়েক বছর আগে জোড়া মার্ডার হয়েছে। াামাদের বাড়িতে ৩ বার ডাকাতি হয়েছে। গাজাখোর ইয়াবা খোর লোকজন রাতে ব্রীজে এসস হামতাম করে। একারনে নিরাপত্তার সমস্যা হয়্ তাই ব্রীজের উপর গেইট বানিয়ে তালা লাগিয়ে রাখি। সকালে খুলে দেই। আবার রাত ১২টায় বন্ধ করে রাখি। এতে জনগনের যাতায়তের কোন সমস্য হয়না।
শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুর রহমান সেক বলেন, ব্রীজ নির্মান করা হয়েছে জনসাধারনের যাতায়তের জন্য। ব্রীজে গেইটে তালা লাগিয়ে রাখা যাবেনা। যথা শীঘ্র গেট অপসারন করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তানাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ