fbpx
 

না’গঞ্জ জেলা বিএনপিতে নেতারাই জানেন না কে কোন পদে!

Pub: শনিবার, মে ১১, ২০১৯ ৪:৩১ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়েছে দেড় মাসের বেশি সময় অতিবাহিত হলেও দলের পদ পাওয়া নেতারাই এখনো অনেকে জানেন না যে তারা কমিটিতে পদ পেয়েছেন। সম্প্রতি তাই তাদেরকে জানানোর জন্য চিঠি দিচ্ছে জেলা বিএনপি। তবে এই চিঠি দেয়া নিজেও রয়েছে নানা অভিযোগ যা প্রকাশ্যেই বলছেন নেতাকর্মীরা।
দলের নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলতে গেলে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, কমিটি হয়েছে তো হয়েছেই এ নিয়ে লুকোচুরির কি আছে। এখানে কি সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ চুরি করবে না ডাকাতি করবে যে এটা নিয়ে লুকোচুরি করছে। দলের এই দুঃসময়ে একটি কমিটি নিয়ে নেতাকর্মীদের সাথে এ ধরনের ভন্ডামি নিজেদের রাজনৈতিক ব্যবসা ছাড়া আর কিছুই মনে করছেনা নেতাকর্মীরা। যেখানে নেতাকর্মীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জের রাজপথে একটি মিছিল করার ক্ষমতা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের নেই সেখানে কিসের একটি কমিটি নিয়ে লুকোচুরি। এ তো দলের মধ্যে স্বৈরাচার, আবার এরা স্বৈরাচার হটাবে কিভাবে। এদের তো নেতাকর্মীরা এমনিতেই বিশ্বাস করেনা কারণ কমিটি না হতেই এদের গাড়ি বাড়ি হয়ে যায় আবার এরা কমিটি নিয়ে করে লুকোচুরি।
দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে দলের একজন যুগ্ম সম্পাদক জানান, কমিটি নিয়ে যদি এত লুকোচুরি থাকে তাহলে আর কমিটি দেয়ার প্রয়োজন কি ছিল। পদ পেয়েছি সেটি মিডিয়ায় আসবে সকলে জানবে আমরা তো রাজপথে নামতে মামলা খেতে ভয় পাইনা। নেতারা এখনো কেন এসব করছে। যেখানে নেত্রী কারাগারে সেখানে রাজপথের কর্মসুচীতো পালন করার সাহস নেই আছে নিজ দলের নেতাকর্মীদের সাথে মস্করা করার সাহস।
জানা যায়, আংশিক কমিটির দুই বছর পর পূর্ণাঙ্গ হয় নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি। সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সহ ২০৫ জনের ওই কমিটির তালিকায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষর করেন গত ২৩ মার্চ। তবে অনুমোদনের পরও ১৫ দিনে এই কমিটিকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়নি দলটি। পদত্যাগ এবং মৃত্যু হওয়ায় কয়েক জনের নাম বাদ দিয়ে বাকিদের নিয়ে এই কমিটি করা হয় যেখানে ৮৫ জনকে সাংগঠনিক পদ এবং নির্বাহী সদস্য করা হয় ১২০ জন নেতাকে। সভাপতি এবং সেক্রেটারীসহ গুরুত্বপূর্ণ পদে যোগ করা ছাড়া তেমন কাউকে বাদ দেয়া হয়নি। এই কমিটিতে সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান এবং সেক্রেটারী করা হয়েছে অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে।
স্বাক্ষরিত এই কমিটিতে সহ-সভাপতি ১৫ জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ৫জন, সাংগঠনিক সম্পাদক ৩ জনসহ বিভিন্ন সম্পাদক পদ ৩৯ জনকে দেয়া হয়েছে। সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ৩জন, সহ-দপ্তর সম্পাদক ২ জন, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক ৩জনসহ মোট ৩০ জন সহ-সম্পাদক করা হয়েছে।
দুই বছর আগে ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ২৩ সদস্য ও জেলা বিএনপিতে ২৬ জনের আংশিক কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ