পরীক্ষা কেন্দ্রে কী করেছিলেন শিক্ষিকা জাকিয়া সুলতানা

Pub: বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ ৮:৪৮ অপরাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ ৮:৪৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গত ১০ মে’র ঘটনা। নাটোরের বাগাতিপাড়া মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে জেএসসি পরীক্ষা চলছিল। হঠাৎই কেন্দ্রের ভেতর হট্টগোল। উচ্চস্বরে চেঁচামেচি। একটু পরই জানা গেল, জাকিয়া সুলতানা পুতুল নামে এক শিক্ষিকা কেন্দ্রের ছাত্রীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। সেখানেই তিনি ক্ষ্যান্ত হননি। দায়িত্বরত অন্যান্য শিক্ষিক ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের সঙ্গেও তিনি বাকবিতণ্ডায় জড়ান। 

এর কিছুক্ষণ পরই পরীক্ষা হলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে জাকিয়া সুলতানাকে আটক করেছে পুলিশ। 

একইদিন বড়াইগ্রামের বনপাড়া সেন্ট জোসেফ স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে মাত্র ৫ মিনিট পরে আসায় ৪ জেএসসি পরীক্ষার্থীকে ৩০ মিনিট কেন্দ্রের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখেন কেন্দ্র সচিব। 

শিক্ষিকা জাকিয়া সুলতানাকে আটকের ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, গত ১০ মে জেএসসির ৪ নভেম্বর স্থগিত হওয়া ইংরেজি পরীক্ষা চলছিল বাগাতিপাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। এসময় ওই শিক্ষার্থী ছাত্রীদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।

পরে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে দায়িত্বরত অন্যান্য শিক্ষিক ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহাদ আলীর সঙ্গেও অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন ওই শিক্ষিকা। 

জানা গেছে, বাগাতিপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষিকা জাকিয়া সুলতানা।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহাদ আলী বলেন, ‘অসৌজন্যমূলক আচরণের জন্য শিক্ষিকা পুতুলকে থানা হেফাজতে রাখা হয়।’

অন্যদিকে বনপাড়া বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪ ছাত্রীকে গেটের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখার পর প্রধান শিক্ষিকা নাজমা খাতুনের হস্তক্ষেত্রে তাদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেন কেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ লাজারুশ রোজারিও। তবে মুঠোফোনে বাবারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে কেন্দ্র সচিব ফোন রিসিভ করেনি। 


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1076 বার