জাজিরায় বোমা বানাতে গিয়ে ৫ যুবক আহত

Pub: মঙ্গলবার, জুন ১১, ২০১৯ ৪:৫১ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, জুন ১১, ২০১৯ ৪:৫১ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ॥ শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার পালেরচর বকসু মাদবর কান্দি গ্রামে বোমা বানতে গিয়ে ৫ যুবক আহত হয়েছে। এদেরকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনা নিয়ে উভয় গ্রুপের পাল্টা পাল্টি অভিযোগ রয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বোমা বানানোর আলামত উদ্ধার করেছে। পুলিশ বলছে প্রাথমিক ভাবে ভাবে ধারনা করা হচ্ছে বোনা বানাতে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘেেছ। তবে তদন্তে আসল রহস্য বের হয়ে আসভে। এ ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি।
জাজিরা থানা ও স্থানীয় সূত্র ও বকসু মাদবর কান্দি গ্রামের নিপা আকতার জানান , জাজিরা উপজেলার পালেরচর বকসু মাদবর কান্দি গ্রামের বাসিন্দা পালেরচর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ নেতা তোতা সরদার আঃ লতিফ সরদার ও মনির হোসেন মাদবেরের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় গ্রুপের সমর্থকরা মাঝে মধ্যে এলাকায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। গত ঈদুল ফেতরের পর থেকে তোতা সরদার ও আঃ লতিফ সরদারের সমর্থক দেরকে মনির সরদার সমর্থকরা স্থানীয় ঝিনুক মার্কেটের বাজারে যেতে দিচ্ছেনা বলে অভিযোগ করছে লতিফ সরদার সমর্থকরা।গত সোমবার বিকেলে ঝিনুক মার্কেটে তোতা সরদারের ছেলে রানা সরদার ও মেম্বার রনি মাদবরের মধ্যে এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে উভয় সমর্থকরা এক অপর পক্ষকে দেখিয়ে েেদয়ার হুমকি দেয়। কিছুক্ষন পরে মনির সরদার সমর্থক ২০/২৫ জন লোক লাঠি সোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। এ সময় লতিফ সরদারের বাড়ির টিনের বেড়া ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বিনষ্ট করে আতংক সৃষ্টি করে। সোমবার রাতে মনির মাদবর সমর্থক পালেরচর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার আওয়ামীগ নেতা রনি মাদবরের বাড়ির দক্ষিন পার্শ্বের ছোট টিনের ঘরে বসে রনি মাদবরের আতœীয় ৫ যুবক জসিম ফকির (২৬)জুয়েল সরদার (৩০)আর্শেদ ফকির (২৫) আঃ লতিফ ফকির (২২) সোহাগ হাওলাদার (২২) প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে বোমা তৈরী শুরু করে। রাত অনুমান সাড়ে ১১টায় আশে পাশের লোকজন যখন ঘুমিয়ে পড়ে এ সময় ঐ ঘরের ভিতরে বোমা বিস্ফোরিত হয়ে বিকট আওয়াজ হলে স্থানীয় লোকজন এসে ঘটনাস্থলে ৫ জনকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। এদের মধ্যে জসিম ফকিরের বাম হাতের কব্জি উড়ে যায়। আহত জসিম ফকির (২৬)জুয়েল সরদার (৩০)আর্শেদ ফকির (২৫) আঃ লতিফ ফকির (২২) কে তাৎক্ষনিক ভাবে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। রোগীর অবস্থার গুরুতর দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে ঢাকায় প্রেরন করা হয়ছে। মনির সরদারের ভাগ্নে আহত সোহাগ হাওলাদার পালিয়ে যায়।
মেম্বার রনি মাদবরের মা রাজিয়া বেগম বলেন,আমাদের বাড়িতে বসে আমার ৪ নাতি গল্প করছিল। এ সময় আমাদের শত্রুপক্ষের লোকরা রাত অনুমান সাড়ে ১১টায় বোমা মারে। আমি শব্দ পেয়ে ঘর থেকে বের হয়ে আসলে এরা পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে মনির সরদার দাবী করে বলেন,তার সমর্থক ৪/৫ জন লোক রনি মেম্বারের বাড়িতে ঘরের ভিতর চেয়ারে বসে গল্প করছিলেন । এ সময় প্রতিপক্ষের লোকজন আমার সমর্থকদের হত্যা করার উদ্দেশ্যে বোমা মেরে পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে আঃ লতিফ সরদার বলেন, ঈদের পর থেকে মনির মাদবর , রনি মাদবর গংরা আমাদের সমর্থক কাউকেই ঝিনুক মার্কেটে দিচ্ছেনা। ফলে আমাদের সমর্থকদের বাড়ির নারীরা বাজারে গিয়ে নিত্যপন্য ক্রয় করছে। এমতবস্থায় সোমবার বিকেলে ঝিনুক মার্কেটে কথাকাটা কাটির জের ধরে আমার বাড়িতে হামলা করে। বেড়া কুপিয়ে তছনছ করেছে। আমাদের ক্ষতি করার জন্য রাতে বোমা বানাতে গিয়ে এরা ৫ জন আহত হয়।
জাজিরা থানার ওসি তদন্ত মোঃ নাসির উদ্দিন শেখ বলেন, সোমবার রাতে ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে ও ঘটনাস্থলে যাই। একপক্ষ অপর পক্ষকে দোষারোপ করছে। প্রাথমিক ভাবে মনে হয়েছে বোমা বানাতে গিয়ে এরা আহত হয়েছে। বোমা বানানোর সময় যে বিছানায় বসে বোমা বানাতে গিয়ে আহত হয়েছে ঐ বিছানা পুলিশ রনি মাদবরের বাড়ির পাশে থেকে উদ্ধার করেছে। এ ব্যাপারে আরো তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিব।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ