fbpx
 

আ’লীগ নেতা দুর্ধর্ষ ডিস বাবু ও জাপা নেতার অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ পুলিশের

Pub: Monday, June 17, 2019 10:51 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ : আ’লীগ নেতা সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু (দুর্ধর্ষ ডিস বাবু বাহিনীর প্রধান) ও কথিত জাপা নেতা ভূমিদস্যু আল জয়নাল আবেদীনের অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ ওই প্রতিবেদন দাখিল করেন। আবদুল করিম বাবু ১৭ ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জ মহানগর আ’লীগের সদস্য। আর কুখ্যাত ভূমিদস্যু জয়নাল আবেদীন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টিতে যোগ দিলেও তার কোন পদ পদবী নেই।
পুলিশের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাধারণ জনগণ এ দুইজনের কাছে নিরাপদ না। এ অবস্থায় অস্ত্র থাকলে সেটা আরো ভীতিকর হয়ে উঠবে। ওই প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়, কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির ব্যক্তি। সে এলাকায় সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদকের শেল্টারদাতা হিসেবে পরিচিত। তার কাছে অস্ত্র লাইন্সেস থাকা জনগণের জন্য নিরাপদ নয়। তাই পুলিশের পক্ষ থেকে তার লাইন্সেস বাতিলে জন্য আবেদন করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। একইভাবে জয়নাল আবেদীনের অস্ত্র বাতিলেরও আবেদন করা হয়েছে।
দুর্ধর্ষ ডিস বাবু গত ২৩ মে জামিনে মুক্ত হন। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা সবগুলো মামলাতে তিনি জামিন পেয়েছেন। একটি চাঁদাবাজী মামলায় বাবুকে গ্রেফতারের পর একের পর এ মামলা রুজু হয় তার বিরুদ্ধে। একই পরিস্থিতি ছিল ভূমিদস্যু আল জয়নালের বিরুদ্ধেও। তবে সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছেন জয়নাল আবেদীনও।
গত ১৮ এপ্রিল বিকেল ৩টায় শহরের পাইকপাড়া এলাকা থেকে বাবুকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে বন্দর থানায় হস্তান্তর করা হয়। বন্দর উপজেলার ফরাজিকান্দায় হাসান নামের একজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে ওই মামলাটি দায়ের করা হয়। গত ২৩ এপ্রিল কালীরবাজারে ২২ লাখ টাকা চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার করা হয় আল জয়নালকে। কালীরবাজার স্বর্ণ ব্যাবসায়ী মালিক সমিতির সভাপতি রহমতউল্লাহ ফারুক বাদী হয়ে সদর থানায় ওই মামলার দায়ের করেন। এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ এপ্রিল বিকেলে আল্লামা ইকবাল রোডস্থ আহমেদ জুবায়েরের নির্মানাধীন বাড়িতে আল জয়নাল সহ আসামীরা প্রবেশ করে। এসময় জুবায়েরের নিকট ২৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে মারধর করে এবং নির্মাণ সামগ্রী নষ্ট করে। এছাড়া বাদীর নিকট থেকে ৩ লাখ ৩৭ হাজার টাকা এবং আশেপাশের থেকে ১ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায় এবং যাওয়ার সময় উল্লেখিত টাকা প্রদানের জন্য ১০ দিনের সময় দিয়ে যায় বলেও অভিযোগ করা হয়।
নাসিক কাউন্সিলর আবদুল করিম বাবু ও জাপা নেতা জয়নাল আবেদীনের অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদস্য মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ