fbpx
 

ইসলামপুর ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি ৮২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পানির নিচে

Pub: সোমবার, জুলাই ১৫, ২০১৯ ৫:২৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, জুলাই ১৫, ২০১৯ ৫:২৭ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার জামালপুর : জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই ভয়াবহ আকার ধারন করছে। যমুনার পানি বিপদসীমার ১২৬ সেন্টিমটিার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যমুনা-ব্রহ্মপুত্রসহ সবগুলো নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহতার দিকে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে উপজেলার ৮২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। ইসলামপুর উপজেলার ১২ ইউনিয়ন ও একটি পৌর সভার অর্ধশতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়ে অন্তত ৭০ হাজার মানুষ পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় প্রতি মুহুর্তে প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। যমুনার তীরবর্তী উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি দিন দিন অবনতি হচ্ছে। সরকারি হিসেবে উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৭০ হাজার মানুষ বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে। এ ছাড়া পাঁচটি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বন্যার পানির স্রােতে চিনাডুলী ইউনিয়নের দেওয়ানপাড়া গ্রামের ২০টি ও নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ১৫ পরিবারের ঘরবাড়ি ভেসে গেছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বানভাসীরা তাদের ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার সময়ও পাচ্ছেন না। ইসলামপুর-মাহমুদপুর,ইসলামপুর-গুঠাইল, চিনাডুলী- উলিয়ার বাজার, গিলাবাড়ী-বামনা, দেলিরপাড়-বামনা সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় কমপক্ষে দেড়লক্ষাধিক মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে ৮২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে। উপজেলা দূর্যোগ ও ত্রাণ শাখা সূত্র জানায়, সরকারের পক্ষ থেকে ৯০ মেট্রিকটন চাল, এক লাখ টাকা ও ৪০০ প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্দ পাওয়া গেছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ