fbpx
 

মশক নিধন ও নগর পরিচ্ছন্নতায় ‘সুনাগরিক’ চান টিটু

Pub: রবিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৯ ৩:১৩ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: রবিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৯ ৩:১৩ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আনিসুর রহমান ফারুক, ময়মনসিংহ :

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু বলেছেন, ময়মনসিংহকে পরিচ্ছন্ন রাখতে শুধু নগর কর্তৃপক্ষ নয়, নাগরিকদের অংশগ্রহণও জরুরি।

শনিবার (২৪ আগষ্ট) বিকেলে শনিবার বিকেল ৫ টায় নগরীর গাঙ্গিনারপাড় মোড়ের শাপলা চত্বরে আয়োজিত পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে একথা বলেন তিনি।

মেয়র বলেন, “শুধুমাত্র সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মী দিয়ে নগরীকে পরিছন্ন রাখা সম্ভব নয়। মসিক জনবল বাড়াচ্ছে, সাথে সাথে নাগরিকদের সচেতন হতে হবে। যথাস্থানে ময়লা ফেলার অভ্যাস আমাদের করতে হবে। নিজ নিজ আবাসস্থল, এলাকা, এলাকার জলাধার নিজেদের পরিষ্কার রাখতে হবে। কোনো স্থানেই তিনদিনের বেশি পরিষ্কার পানি জমতে দেওয়া যাবে না।”

নগরীকে আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন করতে সবাইকে ‘সুনাগরিক’ হওয়ার আহ্বান জানান মেয়র ইকরামুল হক টিটু।

তিনি বলেন, “একজন সুনাগরিক কখনো রাষ্ট্রের ক্ষতি করে না, যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলে না, ভূমি দখল করে না, নদী-খাল দখল করে না।”

এইডিস মশার প্রজনন নিয়ন্ত্রণে নেওয়া নানা কর্মসূচির কথা তুলে ধরে মেয়র টিটু বলেন, “ অচিরেই এ বিষয়ে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যেখানেই অপরিচ্ছন্নতা, নাগরিক স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি এইডিস মশার বংশবিস্তারে সহায়ক পরিবেশ পাওয়া যাবে সেখানেই জরিমানা ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন ও বিডি ক্লিন ময়মনসিংহের সহযোগিতায় “নিজে সচেতন হই, অন্যকে সচেতন করি, দায়িত্ব নিয়ে মশক নিধন করি,ডেঙ্গু মুক্ত নিরাপদ নগরী গড়ি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে পরিষ্কার পরিছন্নতা কার্যক্রমকে বেগবান করার লক্ষ্যে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ৩৩ টি ওয়ার্ডে একযোগে মশক নিধন ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করা হয়।

উদ্বোধরের পর মেয়র নিজেই সড়ক ও আশপাশের এলাকা পরিস্কার শুরু করেন (মসিক) মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু।

এ সময় ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মিজানুর রহমান, মসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন, চেম্বার অফ কর্মাসের সহ-সভাপতি শংকর সাহা, মসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এইচ কে দেবনাথ, স্যানেটারী ইন্সপেক্টর দীপক মজুমদার, মসিকের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের কনজারভেন্সি ইন্সপেক্টর মহব্বত হোসেন, মসিকের চীফ সুপারভাইজার রবিউল ইসলাম রবি, বিডি ক্লিন-ময়মনসিংহের বিভাগীয় সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান ফয়সাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ