fbpx
 

আমতলীতে মন্ডপে-মন্দিরে চলছে সাজসজ্জা

Pub: Tuesday, October 1, 2019 9:22 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমতলী ( বরগুনা) প্রতিনিধি।।
বাঙ্গালি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপুজাকে ঘিরে আমতলীতে চলছে ব্যাপক আয়োজন। এরই মধ্যে মন্ডপগুলোতে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষে চলছে রং তুলির কাজ। একই সঙ্গে চলছে মন্ডপ-মন্দির ঘিরে সাজসজ্জার কাজ।
গত শনিবার মহালয়ের মধ্যে দিয়ে দুর্গাপুজার ক্ষণগণনা শুরু হয়েছে। আগামী ৪ অক্টোবর ষষ্ঠীপুজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে দুর্গোৎসবের মুল আনুষ্ঠানিকতা। আগামী ৮ অক্টোবর দশমীর দিনে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে এই উৎসব। দুর্গোৎসব উপলক্ষে এখন দিন-রাত প্রস্তুতি চলছে মন্ডপগুলোতে।
মঙ্গলবার আমতলী পৌর শহরের কয়েকটি মন্ডপঘুরে দেখা গেছে, প্রতিমা নির্মাণে মাটির শেষ প্রলেপ দেওয়ার পর চলছে রং তুলির কাজ। মন্ডপগুলোতে প্রতিমা, সাজসজ্জা ও তোরণ নির্মাণে চলছে প্রতিযোগতা। আমতলী কেন্দ্রিয় শ্রীশ্রী সার্বজনিন দুর্গা মন্দির, শ্রীশ্রী সার্বজনিন দুর্গা মন্দির (বিষ্ণু মন্দির), শ্রীশ্রী রাধাকৃষ্ণ মন্দির ও রক্ষাকালি মন্দিরে জাকজমকপূর্ণভাবে তোরণ নির্মাণ করেছে। আলোক সজ্জায় বর্নিল হয়ে গেছে আমতলী পৌর শহর। আমতলী উপজেলায় ১৪ টি মন্দিরে হবে দুর্গোৎসব। সুন্দরভাবে দুর্গোৎসব সম্পন্ন করার জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানান আমতলী থানার ওসি মোঃ আবুল বাশার। ইতিমধ্যে আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ মনিরা পারভীন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পুজা উদযাপনের জন্য জন প্রতিনিধি, পুলিশ প্রশাসন ও পুজা উদযাপন কমিটির সাথে বৈঠক করেছেন। সুষ্ঠু ও নির্বিঘেœ পুজা উৎযাপনের লক্ষে প্রতিটি মন্দিরে প্রস্তুত রাখা হবে পুলিশ, মোবাইল টিম ও আনসারের সমন্বয়ে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি মন্দিরে ৫’শ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যা অত্যন্ত প্রতুল।
আমতলী কেন্দ্রিয় শ্রীশ্রী সার্বজনিন কেন্দ্রিয় পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ধীরাজ কুমার বিশ্বাস বলেন, সুন্দর ও সুষ্ঠু পরিবেশে এবারের দুর্গোৎসব উদযাপনের জন্য সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সর্বস্তর থেকে সহযোগীতা পাচ্ছি। এখন পর্যন্ত কোন সমস্যা নেই।
আমতলী উপজেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি এ্যাড. হরিহর চন্দ্র দাশ বলেন, উপজেলা ১৪ টি মন্দিরে দুর্গোৎসব হবে। সকল মন্দিরে ব্যপক আয়োজন করা হয়েছে।
আমতলী হিন্দু বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ কর্মকার বলেন, আইন শৃঙ্খলাসহ সকল পরিস্থিতি সন্তোষজনক। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগীতা পাচ্ছি।
আমতলী থানার ওসি মোঃ আবুল বাশার বলেন, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য আনসার, পুলিশ ও মোবাইল টিমের সমন্বয়ে তিন স্তরের নিরাপত্তা বাহিনী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যাতে নির্ভিঘেœ দুর্গোৎসব পালনে কোন ব্যর্তয় না ঘটে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ