fbpx
 

ভোলায় ১০৭টি পূজা মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা উদযাপিত হবে

Pub: Thursday, October 3, 2019 10:56 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কামরুজ্জমান শাহীন,ভোলা॥
দেবী দূর্গার আগমনে অশুভ শক্তির বিনাশ আর জগতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে। এমন বিশ্বাস নিয়ে প্রতিবারের মত এবারও দ্বীপ জেলা ভোলায় ১০৭টি পূজা মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা উদযাপিত হবে।
এবছর জেলার ৭টি উপজেলা ও ৩টি থানায় মোট ১০৭টি পূজামন্ডপে দূর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে জেলার অধিকাংশ পূজা মন্ডপের প্রতীমা গড়ার কাজ সম্পন্ন। এখন পূজা মন্ডপগুলোতে সাজ-সজ্জার কাজে চলছে। সবমিলিয়ে উৎসবের রঙে সাজছে পূজা মন্ডপগুলো।
অপরদিকে পূজার জন্য কেনা কাটায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সনাতন ধর্মালম্বীরা। জামা কাপড় তৈরি, তাদের কেনা-কাটায় সরগরম শহরের বিপণীবিতানগুলো।
আগামী দিন (৪অক্টোবর) শুক্রবার সকালে ষষ্ঠীবিহিত পূজা শ্রী শ্রী শারর্দীয়া দূর্গাদেবীর আমন্ত্রন ও অধিবাসের মধ্যে দিয়ে শারদীয় দূর্গা পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু। এবং ৮ অক্টোবর মঙ্গলবার দশমী বিহিত পূজা সমাপন, দর্পন বির্সজন ও প্রসাদ বিতরনের মধ্যে দিয়ে শারদীয় দূর্গা পূজার সমাপ্তী ঘটবে।
ভোলা জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও থানা সূত্রে জানা গেছে, এ বছর জেলার ৭টি উপজেলা ও ৩টি থানায় ১০৭টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে ভোলা সদর উপজেলায় ২৫টি, দৌলতখাঁন উপজেলায় ৬টি, বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ২০টি, তজুমদ্দিন উপজেলায় ১২টি, লালমোহন উপজেলায় ১৭, চরফ্যাশন উপজেলায় ৪টি থানায় মোট ১৭টি ও মনপুরা উপজেলায় ১০টি।বিগত বছরের তুলনায় এ বছর প্রতিমা তৈরীতে দ্বিগুন ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানালেন আয়োজকরা।
মৃৎ শিল্পীরা বলেন, গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন ডিজাইনের প্রতিমা তৈরির কাজ করেছেন। খড় মাটির কাজ শেষ হয়েছে। তবে পরিশ্রমের তুলনায় পারিশ্রমিক পর্যাপ্ত না হলেও আন্তরিকতার সহিত কাজ করেন তারা। দৃষ্টিনন্দন সুন্দর প্রতিমা তৈরি করতে হলে মনের মাধুরী দিয়ে কাজ করতে হয় বলে জানান মৃৎ শিল্পীরা।
জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে বলেন, শারদীয় দূর্গা পূজার সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে দফায় দফায় সভা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে সব প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, সার্বক্ষণিক ম-পের তথ্য সরবরাহে জেলা সদরের ২টি প্রতি উপজেলায় ১টি করে মোট ১০টি কন্ট্রোল রুম (তথ্য সেল) খোলা থাকবে। এছাড়াও প্রশাসনের পাশাপাশি পূজা উদযাপন পরিষদের নির্দেশে প্রতিটি ম-পে ১০ সদস্যের ভলোনটিয়ার টিম মোতায়েন থাকবে।
ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষ্যে ভোলার ৭ উপজেলা ও ৩টি থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হবে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পূজা চলাকালীন দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি সাদা পোশাকে নারী ও পুরুষ পুলিশ সদস্যরা বিভিন্ন পূজা মন্ডপসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকা গুলোতে বিশেষ নজরদারী রাখবে।ঝুঁকিপূর্ণ ম-পগুলোতে অতিরিক্ত ফোর্স নিয়োজিত থাকবে। এছাড়াও পুলিশ ও র‌্যাবের মোবাইল টিম থাকবে।সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে শারদীয় দূর্গাউৎসব পালনে পুলিশের সকল প্রকার সহযোগীতা করবেন পুলিশ সুপার।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ