fbpx
 

নিষেধাজ্ঞা মেনে উপকূলে ফিরতে শুরু করেছে আমতলী ও তালতলীর জেলেরা

Pub: বুধবার, অক্টোবর ৯, ২০১৯ ৮:৫৯ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমতলী ( বরগুনা) প্রতিনিধি
নিষেধাজ্ঞা মেনে বরগুনার আমতলী ও তালতলীর ঘাটে ফিরতে শুরু করেছে মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে উপকূলের জেলেরা। মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্য পর্যন্ত প্রায় এক হাজার ট্রলার ঘাটে ফিরেছে। এ সময় মাছ ধরা থেকে বিরত থাকবে আমতলী তালতলীসহ বরগুনা উপকূলের প্রায় এক লাখ জেলে।
ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে ৯ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর ২২ দিন নদী ও সমুদ্রে মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় জেলেরা ঘাটে ফিরছে। মৌসুম জুড়ে লোকসানের পরও ইলিশ বৃদ্ধির লক্ষে সরকারের এ নিষেধাজ্ঞা পালনে বদ্ধপরিকর আমতলী তালতলীসহ বরগুনার জেলেরা। অবশ্য এ নিষেধাজ্ঞা পালনে তাদের উপেক্ষা করতে হবে চরম দারিদ্রতাকে। নামেমাত্র চাল সহায়তা নয় আর্থিক সহায়তার দাবিও রয়েছে জেলেদের। আর সে সহায়তা প্রকৃত জেলেরা যাতে পায় দাবি তাদের।
দেশের স্বার্থে ইলিশ প্রজনন মৌসুমে নদী ও সমুদ্রে সব ধরনের মাছ ধরা বন্ধ রাখবে আমতলী তালতলীসহ বরগুনার জেলেরা। তবে এ বছরও পার্শ্ববর্তী দেশের সাথে মিল না রেখেই অবরোধ দেওয়ায় ক্ষুব্ধ তারা। দাবি রয়েছে নামেমাত্র সহায়তার পরিবর্তে প্রকৃত জেলেদের সঠিক সময়ে কার্যকরি সহায়তার। অবশ্য মৎস্য বিভাগ বলছে নিষেধাজ্ঞার সুফল বাড়াতে কাজ করছেন তারা।
নাসির, লিটন, ফোরকান, আউয়াল,জলিল, বাবুলসহ সাগর থেকে নিষেধাজ্ঞা মেনে ফিরে আশা জেলেরা জানান, নামেমাত্র চাল সহায়তা না দিয়ে আর্থিক সহায়তার দাবি তাদের । আর এ সহায়তা যাতে প্রকৃত জেলেরা পায়।
মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, ৯ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে টানা ২২ দিন সাগরে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার। আগের থেকে এখন জেলেরা অনেক সচেতন। তাই ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে সব জেলেরা উৎসাহিত হয়ে মাছ ধরা বন্ধ করে ঘাটে ফিরতে শুরু করেছে। আজ রাত ১২টার আগেই বঙ্গোপসাগর ও নদী থেকে সব জেলেরা ঘাটে ফিরে আসবে।
তিনি আরও বলেন -অবশ্য ভারতসহ পার্শ্ববর্তী দেশে একি সময়ে অবরোধ না দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে মৎস্যজীবীদের এ নেতা জানালেন নিষেধাজ্ঞার ২২ দিন মাছ ধরা বন্ধ নিশ্চিত করবেন তারা। এ সময় পার্শ্ববর্তী দেশের জেলেরা যাতে বাংলাদেশের জলসীমায় মাছ শিকার করতে না পারে সে ব্যবস্থা করার দাবি তাদের।
বরগুনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আবুল কালম আজাদ জানান, পার্শ্ববর্তী ভারত ও মায়ানমারের সঙ্গে মিল রেখে যৌথ নিষেধাজ্ঞা ও চালের সাথে অর্থ সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে দাবি করেন তিনি।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ