fbpx
 

নারায়ণগঞ্জে নব্য আওয়ামী লীগারদের তালিকা হচ্ছে

Pub: Friday, November 1, 2019 10:10 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ : আওয়ামী লীগে হাইব্রিডও কাউয়া দুটি বহুল পরিচিত শব্দ। সুযোগ সুবিধার জন্য যারা বিভিন্ন সময়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন তাদেরই হাইব্রিড ও কাউয়া নামে ডাকা হয়। টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার কারণে এর সংখ্যা কম নয়। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে ও পরে নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন সময় নব্য আওয়ামী লীগাররা দলে ভিড়েছেন। নব্য আওয়ামী লীগারদের দাপটে কিছু কিছু এলাকায় উত্তরাধিকার সূত্রে আওয়ামী লীগ করা লোকজনরা এখন কোণঠাসা। তবে এবার নব্য আওয়ামী লীগারদের নজরদারিতে এনেছে দলটি। করা হচ্ছে তাদের তালিকা। আসছে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিসহ সহযোগি ও তৃণমূলের কোন কমিটিতে যাতে তারা স্থান না পায় সেজন্যই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা।
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগে চলছে শুদ্ধি অভিযান। ঢাকায় শুরু হলেও এই অভিযান আওয়ামী লীগের তৃণমূলেও শুরু হবে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা। বর্তমানে এই নব্য আওয়ামী লীগারদের তালিকা তৈরি করার কাজ চলছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগে যোগদানের হিড়িক পড়েছিল। বিশেষ করে নারায়ণগঞ্জের দুই সংসদীয় এলাকায় এই যোগদানের সংখ্যা বেশি ছিল। নব্য আওয়ামী লীগারদের দাপটে কিছু কিছু এলাকায় উত্তরাধিকার সূত্রে আওয়ামী লীগ করা লোকজনরা এখন কোণঠাসা। এমনকি হামলার স্বীকারও হতে হয়েছে। এই বছরের ১০ জানুয়ারি আড়াইহাজারে ছাত্রদল থেকে সদ্য আওয়ামীলীগে যোগ দেয়া তানভীর আহমেদের নেতৃত্বে গোপালদী পৌরসভা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক উত্তম কুমার বিশ্বাসের বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এক সময়ে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের নির্যাতন, গুম, খুনের ঘটনায় জড়িতরাও এখন আওয়ামীলীগে যোগ দিয়েছেন। এসব বিষয়ে নজরে রেখেই নব্য আওয়ামীলীগারদের তালিকা করছে আওয়ামীলীগ।
এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকলে অনেকেই তার সাথে যুক্ত হতে চান। তাদের কারণে ত্যাগী ও তৃণমূল নেতারা বঞ্চিত হন। এই কারণে এসব হাইব্রিড নেতাদের বিরুদ্ধে আমরা সোচ্চার। আসছে কমিটিতে তারা যাতে কোন জায়গা না পায় সে বিষয়ে আমরা নজর রাখছি।
আড়াইহাজার উপজেলা
২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর আড়াইহাজার বাজার মাঠে সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুকে স্বর্ণের তৈরি নৌকাসদৃশ কোট পিন উপহার দিয়ে গোপালদী পৌর বিএনপির সভাপতি আবুল বাশার (মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী বর্তমানে জেলে), সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক, উপজেলা কমিটির সদস্য বদরুদ্দিন আহম্মেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি আবুল কালামসহ মোট দুই হাজার নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগ দেন।
আবুল বাশার ২০০২ সালে আওয়ামীলীগের চারজন সমর্থককে পুড়িয়ে হত্যার প্রধান আসামি ছিলেন। ২০১৭ সালের মে মাসে চাঞ্চল্যকর চার খুন মামলায় আবুল বাশার কাশুসহ ২৩ আসামির মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেন আদালত।
২০১৫ সালের ৪ জুলাই বিএনপির স্থানীয় নেতা শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে স্থানীয় বিএনপি-জামায়াতের প্রায় ২০০ নেতাকর্মী নিয়ে আওয়ামীলীগে যোগ দেয়। ২০১৬ সালের ১১ জুলাই উপজেলার ইলুমদী এলাকায় বিএনপি নেতা মো. জসিমউদ্দিন পিন্টুর নেতৃত্বে বিএনপির দুই শতাধিক নেতাকর্মী ফুলের তৈরি নৌকা এমপি বাবুর হাতে তুলে দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগ দেন। ২০১৭ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি গিরদা নগরপাড়া মাঠে দুপ্তারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের এক সমাবেশে দুপ্তারা ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি আলহাজ ছামির আলী ও বিএনপি নেতা আলহাজ আব্দুল হাইয়ের নেতৃত্বে শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।
রূপগঞ্জ উপজেলা
২০১৫ সালের ২ জানুয়ারি রূপগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপি নেতা ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুল জলিলের নেতৃত্বে ৩ শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী রূপগঞ্জের তৎকালীন সংসদ সদস্য ও বর্তমান পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গাজী গোলাম দস্তগীর গাজীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগ দেয়।
২০১৭ সালের ২২ ডিসেম্বর বিএনপি নেতা হাসিবুর রহমান হাসিব, জহিরুল হক, যুবদলের সহ সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল হক রূপগঞ্জে রূপসী গাজী ভবনে কাঞ্চন পৌরসভার বিএনপির শীর্ষ নেতাকর্মীরা গোলাম দস্তগীর গাজীর হাতে নৌকা ও ফুলের তোড়া দিয়ে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন।
২০১৮ সালের ২৫ জানুয়ারি উপজেলার বাগবেড় এলাকায় জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক সদস্য রুহুল আমিন, উপজেলা মহিলাদলের সহ-সভাপতি সামসুন্নাহার, যুবদল নেতা লুৎফর রহমান, বিএনপি নেতা হাজী ওসমান আলীর নেতৃত্বে রূপগঞ্জ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের প্রায় তিন শতাধিক নেতাকর্মী স্থানীয় সংসদ সদস্য গাজীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করে।
একই বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির দপ্তর সম্পাদক আব্দুস ছোবহান, রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সাধারন সম্পাদক সাহাজ উদ্দিন, যুবদল নেতা দিল মোহাম্মদ দিলা ও যুবদল নেতা মতিউর রহমানের নেতৃত্বে বিএনপি ও এর সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের দুই শতাধিক নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।
গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কয়েক দিন পূর্বে ২১ ডিসেম্বর ভুলতা ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদ ভূঁইয়া, সেলিম মিয়া, রাজন, আলী হোসেন, তোবারক, মাহবুব রূপসীর গাজী ভবনে গোলাম দস্তগীর গাজীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন।
এর দুই দিন পর ২৩ ডিসেম্বর কাঞ্চন ভারত চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের জনসভায় কাঞ্চন পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মকবুল হোসেন, ৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আব্দুল মতিন, যুবদল নেতা অলিউল্লাহ অলির নেতৃত্বে প্রায় ৩ শতাধিক নেতাকর্মী আওয়ামীলীগে যোগ দেন।
নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা
২০১৭ সালের ১৫ অক্টোবর সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী নাভানা ভূইয়া সিটি মাঠে ডিএনডির মেঘা প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিলুপ্ত সিদ্ধিরগঞ্জ পৌরসভার সাবেক প্রশাসক ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মতিন প্রধান ফুলের নৌকা উপহার দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।
গত বছরের ১৭ মার্চ হরিহর পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এনায়েতনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত কর্মীসভায় বিএনপির সাবেক এমপি মোহাম্মদ আলীর ভাতিজা এনায়েতনগর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন আওয়ামীলীগে যোগ দেন। এ সময় আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমান নিজ হাতে তাকে পানি পান করান।
ওই বছরের ৪ অক্টোবর মাসদাইরের বাংলা ভবনে এক কর্মীসভায় এমপি শামীম ওসমানকে ফুলের তোড়া ও ফুলের নৌকা দিয়ে বিএনপি থেকে আওয়াম লীগে যোগ দেন এনায়েত নগর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মো. আতাউর রহমান প্রধান, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার সামসুল হক, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার বাতেন তালুকদার, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. ইসলাম, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার নেছার উদ্দিন।
এর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি হাই স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এমপি শামীম ওসমানের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন নাসিক ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বিএনপি নেতা ইস্রাফিল প্রধান।
গত বছরের ১৩ নভেম্বর সন্ধ্যায় ফতুল্লার কুতুবপুর ইউনিয়নের রামারবাগ এলাকায় নির্বাচন উপলক্ষে শামীম ওসমানের এক আলোচনা সভায় তাকে ফুল দিয়ে কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির নেতা আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মী আওয়ামীলীগে যোগদান করেন।
১৭ নভেম্বর এমপি শামীম ওসমানকে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন বিএনপি নেতা মো. রফিকুল ইসলাম টিপু ৫ শতাধিক নেতাকর্মী।
নির্বাচনের কয়েকদিন পূর্বে ১৩ ডিসেম্বর পূর্ব জালকুড়ি এলাকায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদের হাতে ফুলের নৌকা তুলে দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ৪ যুবদল নেতা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, আসাদুজ্জামান আসাদ, চঞ্চল সাউদ ও আলী নূর।
২৩ ডিসেম্বর দুই শতাধিক নেতাকর্মী সমর্থক নিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন নাসিক ১ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ও সিদ্ধিরগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রওশন আলী।
এদিকে বন্দরে আওয়ামীলীগে যোগ দিয়েই শ্রমিকলীগের জেলা কমিটিতে স্থান পান জামায়াতের আমিরের নাতনি হাসিনা রহমান শিমু। অভিযোগ আছে, নিজেকে আওয়ামীলীগের নেতা পরিচয় দেয়া নুরুজ্জামানও আগে জামায়াতের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল। নুরুজ্জামানের বাবা মৃত খালেক মুন্সী বন্দর জামায়াতের নেতা ছিলেন।
বন্দর ও সোনারগাঁয়ের সাংসদ জাতীয় পার্টির হওয়াতে এই দুই উপজেলায় নব্য আওয়ামী লীগারের চেয়ে নব্য জাতীয় পার্টির সংখ্যাই বেশি।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ