fbpx
 

ক্যান্সার আক্রান্ত পলাশবাড়ীর রনজিৎ কর্মকারের চিকিৎসার্থে আর্থিক সহায়তার প্রয়োজন

Pub: মঙ্গলবার, মার্চ ১০, ২০২০ ৭:১৫ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে টিউমার ক্যান্সারে আক্রান্ত রনজিৎ কর্মকারের চিকিৎসার্থে অর্থ সহায়তার আবেদন।
৪৫ বছর বয়সি রনজিৎ কর্মকার পারিবারিকভাবে বেশ ভালভাবেই দিনাতিপাত করে আসছিলেন। কিন্তু বিধিবাম সময়ের ধারাবাহিকতায় তার শরীরে মরণব্যাধি ক্যান্সার বাসাবাঁধে। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ধীরে-ধীরে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে। পারিবারিক ভাবে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ায় তার পরিবার পাগল প্রায়। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ব্যয়ে পরিবারটির যা ছিল ইতোমধ্যেই তা প্রায় নিঃশ্বেসের দিকে। তার চিকিৎসার জন্য এখন একমাত্র অবলম্বন হয়ে পড়েছে দানশীল ব্যক্তিবর্গের মানবিক সহায়তা। এজন্য দানশীল ব্যক্তিত্ব সবাইকে এগিয়ে আসার আকুতি জানিয়েছেন। ব্যয়বহুল চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে অসহায় হয়ে পড়েছেন রনজিৎ কর্মকারের পরিবারটি। চিকিৎসা ব্যয়ের সংস্থান করতে বিপর্যস্তসহ পরিবারটির মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়েছে।
উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের জালাগাড়ী দূর্গাপুর গ্রামের মৃত ফনি ভূষণ কর্মকার ২য় পুত্র রনজিৎ কর্মকার আমলাগাছী
বিএম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৮৭ সালে এসএসসি, সাদুল্লাপুর ডিগ্রী কলেজ থেকে ১৯৯০ সালে এইচএসসি এবং গাইবান্ধা কৃষি ইন্সটিটিউট থেকে ১৯৯৪ সালে কৃষি ডিপ্লেমা পাশ করেন। লেখাপড়ার পাঠ চুকে শিক্ষকতা পেশায় ফকিরহাট দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান করেন ১৯৯৫ সালে। দাম্পত্য জীবনে রনজিৎ কর্মকারের দুই মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার জীবন।
তার পরিবার জানান ছয় মাসে আগে প্রথমতঃ তার শারীরিক অসুস্থতায় পর্যায়ক্রমে ভেঙ্গে পড়েন। পরবর্তিতে গত ৭ জানুয়ারি ঢাকা কাকরাইল ইসলামি ব্যাংক হাসপাতালে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর তার শরীরে টিউমার ক্যান্সার ধরা পরে। সুস্থ্যতার জন্য লাগাতার কয়েকমাস ঢাকায় চিকিৎসাকালীন ধারাবাহিকতায় মারাত্মক অর্থ সংকটে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে পরিবারটি। একপর্যায় অর্থসংকটে পড়ায় তাকে বাড়ীতে নেয়া হয়। এসময়ের মধ্যেই একমাত্র বসতবাড়ীর ভিটেমাটি ছাড়া পারিবারিক সহায়সম্পদ বিক্রি করে প্রায় নিঃশ্ব হয়ে পড়েন।
বর্তমান চিকিৎসা ব্যয়বহন করার মত কোন সামর্থ্যই আর নেই। এমন অসহায়ত্বের প্রেক্ষাপটে অন্যের অর্থ সহায়তা ছাড়া চিকিৎসা ব্যয় মেটানোর মত সামনে তাদের আর কোন পথ নেই। একমাত্র মানবিক সহায়তায় পারে তার চিকিৎসা ব্যয় চালিয়ে যেতে। সহায়তা ছাড়া পরিবারটির কোন গতন্তর নেই। চরম অসহায় পরিবারটির কল্যানার্থে মানবিক সহায়তা কামনা করা হয়েছে। এজন্য পরিবারটি বিভিন্ন ব্যাংক-বীমা, অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠান, মন্ত্রী-এমপি, সর্বস্তরের সহানুভূতিশীল জনপ্রতিনিধি, বহুমুখী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সমূহের দয়াবান মালিক-কোম্পানি, সংস্থা, দানশীল ব্যক্তিত্ব, সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত ও প্রতিষ্ঠানসহ সর্বোপরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা রনজিৎ কর্মকার সোনালী ব্যাংক লিঃ, পলাশবাড়ী শাখার সঞ্চয়ী হিসাব নং-৫১১২০০২১০৭৯৭১, অথবা বিকাশ নম্বর ০১৭২৮২৫৫৩২০ ও ০১৩১৯১৪৭২২৩।

Hits: 28


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ