fbpx
 

নুসরাত হত্যা মামলার রায় ২৪ অক্টোবর

Pub: সোমবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ ৪:২৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ ৪:২৬ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশব্যাপী আলোচিত ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হয়েছে। শুনানি শেষে আগামী ২৪ অক্টোবর রায়ের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ রায়ের এই দিন ধার্য করেন।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট হাফেজ আহমেদ এ তথ্য জানান। পিপি বলেন, সোমবার আদালতে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মামলার সার্বিক আইনি ব্যাখ্যা দেওয়া হয়। আদালতে আসামিদের অপরাধ প্রমাণ হয়েছে। আশা করি, আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে।’

‘মামলায় দুর্বল সাক্ষী ও বেশকিছু অসঙ্গতি’ আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে দাবি করে আসামিরা খালাস পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন আসামিপক্ষের আইনজীবী মাহফুজুল হক।

মামলার বাদী ও নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বলেন, নুসরাতকে নৃশংসভাবে পুড়িয়ে  হত্যার অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। তাই আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে বলে আশা করছি।

গত ২০ জুন অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করা এ ঘটনার বিচার কাজ শুরু হয়। ৩ মাসের বেশি সময় ধরে শুনানি ও সাক্ষ্য গ্রহণের মাধ্যমে আজকে রায়ের দিন ধার্য হলো।

এই মামলায় ১৬ জন আসামি রয়েছেন। তার হলেন- মাদরাসা অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ্দৌলা (৫৭), সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাদরাসা কমিটির সহ-সভাপতি রুহুল আমিন (৫৫), পৌর কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর মাকসুদ আলম (৫০), নুর উদ্দিন (২০), শাহাদাত হোসেন শামীম (২০), সাইফুর রহমান মোহাম্মদ জোবায়ের (২১), জাবেদ হোসেন (১৯), হাফেজ আবদুল কাদের (২৫), আফছার উদ্দিন (৩৩), কামরুন নাহার মণি (১৯), উম্মে সুলতানা পপি (১৯), আবদুর রহিম শরীফ (২০), ইফতেখার উদ্দিন রানা (২২), ইমরান হোসেন মামুন (২২), মোহাম্মদ শমীম (২০) ও মহিউদ্দিন শাকিল (২০)।

উল্লেখ্য, শ্লীলতাহানির চেষ্টায় মাদরাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে গত ২৭ মার্চ নুসরাতের মা সোনাগাজী থানায় মামলা করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাকে গ্রেফতার করে। এরপর মামলা প্রত্যাহারের জন্য নুসরাতকে চাপ দেয় সিরাজউদ্দৌলার লোকজন।

কিন্তু নুসরাত অপারগতা প্রকাশ করায় গত ৬ এপ্রিল ফেনীর পৌর শহরের সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে গেলে আলিম পরীক্ষার কেন্দ্রের ছাদে নিয়ে হাত-পা চেপে ধরে তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় বোরকা পড়া কয়েকজন দুর্বৃত্ত। গত ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টার দিকে পাঁচদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফি। ১১ এপ্রিল বিকেলে লাখো মানুষের জানাজার পর সন্ধ্যায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয় তাকে।

আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয় পিবিআইকে। ঘটনায় জড়িত মাদরাসার অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ দৌলা, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাদরাসা কমিটির সহ-সভাপতি রুহুল আমিন, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর মাকসুদ আলমসহ ২১ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ ও পিবিআই। 

গ্রেফতারকৃতদের প্রায় সবাইকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে মামলার তদন্তের দায়িত্বে থাকা পুলিশ ও পিবিআই। আসামিদের মধ্যে সিরাজ, পপি, জাবেদ, জোবায়ের, নূরুদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামিম, মনি, শরিফ, রানা, মামুন, শাকিল ও আব্দুল কাদের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে চারজন সরাসরি হত্যায় অংশ নেয়ার কথা জানান।

পরে গ্রেফতার ২১ জনের মধ্যে ৫ জনকে অব্যাহতি দিয়ে ১৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট জমা দেয় পিবিআই।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ