অঘোষিত ফাইনাল: পারবে কি বাংলাদেশ?

Pub: শনিবার, জুলাই ২৮, ২০১৮ ৪:৪২ অপরাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, জুলাই ২৮, ২০১৮ ৪:৪২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ব্যাট হাতে তীরে এসে তরী ডুবাচ্ছেন মুশফিক। আর বল হাতে ডেথ ওভারে সর্বনাশ করছেন রুবেল হোসেন। ২০১৬ সালে ভারতের মাটিতে টি-২০ বিশ্বকাপে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৩ বলে ২ রান করতে পারেনি মাহমুদউল্লাহ-মুশফিক। শেষ পর্যন্ত চোখের কোণে জল নিয়ে দেশে ফিরতে হয় সাকিব-মাশরাফিদের।

কয়েক মাস আগেই নিদাহাস ট্রফিতে আরও একবার রুবেলের হাতেই জয়ের স্বপ্নের সমাধি রচিত হলো। ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। শেষ ১২ বলে ৩৪ রান দরকার ছিল ভারতের। ১৯তম ওভারে এসে রুবেল দিয়ে বসলেন ২২ রান। শেষ ওভারে ৬ বলে ১২ রানে ভারতকে আটকে রাখতে পারেননি সৌম্য সরকার।

একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলো দুদিন আগে গায়ানায়ও। ৪৮ ওভার শেষে ক্যারিবীয়দের রান ৯ উইকেটে ২৪২। ওই সময়ে রুবেলই ছিলেন মাশরাফির সবচেয়ে সেরা অস্ত্র। ৮ ওভারে ৩৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট, দলের সবচেয়ে সফলতম বোলার এত বাজে বোলিং করলেন, ৪৯তম ওভারে দিলেন ২২ রান।

দলের একজন সিনিয়র বোলারের এমন পারফরম্যান্সের কোনও ব্যাখ্যা খুঁজে পাচ্ছেন না অধিনায়ক মাশরাফিও। তিনি বলেন, ‘ওই সময় ওকে ছাড়া কাকে দেব বলেন? আগের আটটা ওভারে সে অসাধারণ বোলিং করেছে। তিন উইকেট নিয়েছে। ওকে আমার নির্দেশনা ছিল একটাই, শেষ উইকেটটা নিয়ে নিতে হবে। নিতে পারলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ২৫০ হতো কি না সন্দেহ! অথচ ও রান দিয়ে ফেলল কত!’

রুবেল না হয় রানটা বেশিই দিয়ে ফেলছিল। কিন্তু এত ভালো একটা ইনিংস খেলার পর মুশফিক কি করলো? তখন জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৩ বলে ১৪ রান। তাতে সিরিজটা হাতে চলে আসতো। হাতে ছিল ৬ উইকেট। এমন সময় বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে সাব্বির-মুশফিক দুজনই আউট হলেন। স্বপ্নের তরীটাও ঠিক তখন থেকে তলিয়ে যেতে শুরু করলো। শেষ পর্যন্ত ৩ রানের আক্ষেপের হার।

আজ আরও একবার অঘোষিত ফাইনালের মুখোমুখি বাংলাদেশ। সেন্ট কিটসে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে নামবে টিম টাইগারস। আগের দুই ম্যাচে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি সাব্বির রহমান ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। অপেনার এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটিংও ছিল হতাশায় মোড়ানো। আজকের ম্যাচে তাই একাদশে দু-একটি জায়গায় পরিবর্তন আসলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1207 বার