fbpx
 

রমজানে ঢাকায় নৈরাজ্যের শিকার ৯৮% যাত্রী’

Pub: শনিবার, মে ১৮, ২০১৯ ১০:১৭ অপরাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, মে ১৮, ২০১৯ ১০:১৭ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পুরো রমজান মাসজুড়ে রাজধানী ঢাকায় গণপরিবহনে যাতায়াত দুর্ভোগের শিকার হন ৯৫ শতাংশ যাত্রী আর ৯০ শতাংশ যাত্রী গণপরিবহন ব্যবস্থার ওপর তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন সেইসঙ্গে ৯৮ শতাংশ যাত্রী বাড়তি ভাড়া আদায়ের শিকার হন।

শনিবার (১৮ মে) বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে এ পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনটি পাঠানো হয়। 

ঢাকার ১৫টি এলাকা ও গুরুত্বপূর্ণ মোড় বিশ্লেষণ করে এ জরিপ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এরমধ্যে নগরীর কমলাপুর, মগবাজার, শনির আখড়া, গুলিস্তান, সায়েদাবাদ, যাত্রাবাড়ী, পোস্তগোলা, শাহবাগ, ফার্মগেট, মিরপুর-১০, মহাখালী, আগারগাঁও, ধানমন্ডি, বনানী, বারিধারা ঘুরে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ঢাকায় চলন্ত বাসে ওঠানামা করতে বাধ্য হন ৬৮ শতাংশ যাত্রী। সিটিং সার্ভিসের নামে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও ৩৬ শতাংশ যাত্রীকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যেতে হয়। গণপরিবহনে হয়রানির শিকার হলেও অভিযোগ কোথায় কীভাবে করতে হয় তা ৯৩ শতাংশ যাত্রীই জানেন না। আর অভিযোগ করেও কোনও প্রতিকার পাওয়া যাবে না বলে মনে করেন ৯০ শতাংশ যাত্রী। 

পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে সিএনজি চালিত অটোরিকশার ভাড়া প্রসঙ্গে বলা হয়, ঢাকায় শতভাগ সিএনজি চুক্তিতে চলাচল করে। তাতে করে যাত্রীদের প্রায় ৩ থেকে ৪ গুণ বেশি ভাড়া দিতে হয়। অথচ ৯৩ শতাংশ সিএনজি চালকই যাত্রীদের পছন্দের গন্তব্যে যেতে রাজি হন না। 

রোজার মাসে প্রতিদিন ইফতারের আগ মুহূর্তে যানজট, গণপরিবহন সংকটের কারণে নগরীর সাধারণ যাত্রীরা চরম ভোগান্তির শিকার হন। আর ইফতারকে কেন্দ্র করে দ্রুত গন্তব্যে ছুটতে থাকা মানুষের কাছ থেকে লোকাল বাসগুলোও সিটিং সার্ভিসের ভাড়া আদায় করে। 

প্রতিবেদেন উঠে আসে- বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ঢাকায় চলাচলকারী বাস-মিনিবাসের প্রায় ৯৭ শতাংশ সিটিং সার্ভিসের নামে দরজা বন্ধ করে যাতায়াত করছে।

এছাড়া ইদানিং রাইড শেয়ারিংয়ের নামে মোটরবাইকগুলোতেও ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাত্রীরা। অ্যাপের পরিবর্তে মৌখিক চুক্তিতে চালকেরা কয়েকগুণ বেশি ভাড়া হাতিয়ে নিচ্ছে বলেও বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির পর্যবেক্ষণে জানানো হয়। 


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ