fbpx
 

জুরাইনে বাসায় ঢুকে মা-মেয়ে কুপিয়ে জখম

Pub: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯ ৩:৫৩ অপরাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯ ৩:৫৩ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজধানীর জুরাইনে দিনে-দুপুরে একটি বাসায় ঢুকে মা-মেয়েকে নির্মমভাবে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- মমতাজ বেগম (৪০) ও তার মেয়ে রুমা আক্তার (১৯)। তাদের দু’জনের অবস্থাই গুরুতর বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্বজনরা জানায়, জুরাইন মেডিকেল রোড সমাজ কল্যাণ অফিসের পাশের সিরাজ সাহেবের পঞ্চম বাড়ির দ্বিতীয় তলায় ভাড়া থাকেন তারা। গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুর সদর উপজেলার শোলপাড়া গ্রামে। রুমার বাবা মো. আঃ রব ব্যাপারী জুরাইনের মুদি দোকানদার।

তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা প্রতিবেশী মো. সজিব হোসেন জানান, দ্বিতীয় তলায় ওই বসা থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় মা মেয়েকে দৌঁড়ে বাইরে আসতে দেখেন দেখি। সঙ্গে সঙ্গে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এসময় ওই বাসা থেকে আরও দ’জনকে দৌড়ে বেরিয়ে যেতে দেখেন তারা। তখন ওই দুজনের একজনকে স্থানীয়রা ধরে ফেলে।

আহতদের স্বজন জাকির হোসেন জানান, ঘটনার সময় শুধু রুমা ও তার মা’ই বাসায় ছিলো। রুমার বাবা দোকানে ছিলো। ঘাতক শহিদুল রুমার বাবার দোকানের কর্মচারী ছিলো। তিন বছর আগে সে কাজ ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়।

আহত মমতাজ জানান, ঘাতকদের দু’জনের মধ্যে একজনকে চিনতে পেরেছেন তিনি। তার নাম শহিদুল। তার গ্রামের বাড়িও একই এলাকাতে। জুরাইনেই থাকেন তিনিও। তবে তাদেরকে ধারালো অস্ত্রো দিয়ে কুপিয়ে আহত করার কারণ জানাতে পারেনি। তার ধরণা, মোবাইলসহ টাকা পয়সা লুট করার জন্য তাদের বাসায় ঢুকেছিলো শহিদুল।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন মীর জানান, বাসায় ঢুকে মা-মেয়েকে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। ওই ঘটনায় একজনকে আটকও করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কেন কি কারণে এই ঘটনা ঘটানো হলো তা জানতে তদন্তে চলছে। তদন্তের স্বার্থে এখনই কিছু জানানো যাচ্ছে না। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো যাবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ