fbpx
 

ওয়ার্ড কাউন্সিলর মঞ্জু গ্রেপ্তার, কার্যালয়ে অভিযান চলছে

Pub: Thursday, October 31, 2019 2:40 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‍্যাব)। রাজধানীর ওয়ারী থানায় দায়ের হওয়া একটি চাঁদাবাজির মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

এর আগে বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর টিকাটুলিতে অবস্থিত কাউন্সিলর ময়নুলের কার্যালয়ে অভিযান শুরু করে র‍্যাব-৩ সদস্যরা।

কাউন্সিলর ময়নুলের বিরুদ্ধে ক্যাসিনো ও জুয়ার আসর পরিচালনা, মাদক ব্যবসা, ফুটপাত নিয়ন্ত্রণ ও পরিবহন চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে রয়েছে।

র‍্যাব-৩-এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল সফিউল্লাহ বুলবুল গ্রেফতারের বিষয়টি ব্রেকিংনিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘নিজ কার্যালয়ে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার পরবর্তী তাকে নিয়েই তার কার্যালয়ে অভিযান চালানো হচ্ছে। তার কার্যালয় থেকে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযান চলছে, অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।’

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৬ আগস্ট টিকাটুলীর রাজধানী ও নিউ রাজধানী সুপারমার্কেটের পাঁচ ব্যবসায়ী ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুর বিরুদ্ধে ওয়ারী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পৃথক জিডিতে তারা কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মার্কেটে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেন। মঞ্জুর হাত থেকে তাদের জীবনের নিরাপত্তা চান।

ওই জিডিতে অভিযোগ করা হয়, ওয়ার্ড কাউন্সিলর ময়নুল হক মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের মালিকানাধীন রাজধানী ও নিউ রাজধানী সুপারমার্কেট দোকান মালিক সমিতির স্বঘোষিত সভাপতি। কল্যাণ ট্রাস্ট মার্কেট ভেঙে সেখানে নতুন করে বহুতল মার্কেট তৈরি করতে চাইলেও মঞ্জুর কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। আদালতে মামলা-মোকদ্দমা করে সেটিকে তিনি নিজের নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। তিনি সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে বিভিন্নভাবে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করে আসছেন।

সন্ত্রাসীদের ভয়ে নিরীহ ব্যবসায়ীরা নীরবে চাঁদা দিয়ে যাচ্ছেন। তার চাঁদাবাজি ও জুলুমের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

এর আগে গত ২৩ অক্টোবর ডিএসসিসি সচিব স্বাক্ষরিত শোকজ জানিয়ে ময়নুলকে নোটিশ দেয়া হয়। ৭ কার্যদিবসের মধ্য অনুপস্থিতির জবাব দিতে বলা হয় নোটিশে।

সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, তিনটি বোর্ড সভায় অনুপস্থিত থাকলে নোটিশ দেয়ার নিয়ম থাকলেও তাদের কেউ কেউ টানা ১২টি সভায় অংশ নেননি। সম্প্রতি কাউন্সিলরদের নানা অনিয়মের বিষয় গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ায় তড়িঘড়ি করে এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ