প্রো-ভিসির আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন শিক্ষার্থীরা

Pub: শনিবার, মার্চ ১৬, ২০১৯ ২:৩৯ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, মার্চ ১৬, ২০১৯ ২:৩৯ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রো-ভিসি (উপ-উপাচার্য) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদের আশ্বাসে অনশন ভেঙেছেন ডাকসুতে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার সাড়ে ১১টার পর শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানো হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীদের মুখে পানি ও লাচ্ছি তুলে দেন অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ। তিনি ১৮ মার্চ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বৈঠকের আশ্বাস ও অভিযোগগুলো নিয়ে প্রধান রিটার্নিং অফিসারের সঙ্গে আলোচনার কথা বলেন।

তিনি শিক্ষার্থীদের বলেন, তোমাদের সব অভিযোগ আমরা শুনবো। আমরা চাই আগামীতে আরও সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে। আমি তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করে সব সমস্যার সমাধান করতে চাই। আমি তোমাদের অনশন ভাঙাতে জোর করবো না। তবে আমি চাইবো তোমরা আমার কথা শুনবে এবং আলোচনা করে সমস্যার সমাধান করবো।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মাকসুদ কামাল, প্রক্টর গোলাম রব্বানী, ডাকসুর ভিপি নুরুল হক, জিএস গোলাম রাব্বানী, এজিএস সাদ্দাম হোসেন অনশন ভাঙাতে আসেন।

এ সময় শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে ভিপি নুরুল হক বলেন, নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে বলেই মৈত্রী হলের প্রাধ্যক্ষকে অপসারণ করা হয়েছে। আমি আপনাদের সঙ্গে আছি, আপনাদের সঙ্গে থাকবো। আজ আকাশের অবস্থা ভালো না। আপনারা অনশন ভাঙুন।

উল্লেখ্য, ভোটে কারচুরি, ব্যালট বাক্স ছিনতাই, রাতের আধারে জালভোট, ভোটকেন্দ্র নিয়ন্ত্রণসহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন বাতিল চেয়ে অনশন শুরু করে সাত প্রার্থী ও শিক্ষার্থী।মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে তারা রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশনে বসেন।

এদিকে অনশনের কারণে অসুস্থ হয়ে এক শিক্ষার্থী ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি হয়েছেন।

অনশনকারী সাত শিক্ষার্থীর মধ্যে পাঁচজন কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন হল সংসদে নির্বাচন করেছেন। তাদের মূল দাবি ১১ মার্চের নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হোক। পাশাপাশি ওই নির্বাচনে দায়িত্বরতদের পদত্যাগেরও দাবি জানিয়েছেন তারা।

অনশনে বসা শিক্ষার্থীরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের মীম আরাফাত মানব, একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের তাওহীদ তানজীম, পপুলেশন সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের মো. মাঈনউদ্দিন, দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য মণ্ডল, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের রাফিয়া তামান্না এবং প্রাণিবিদ্যা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের আল মাহমুদ তাহা।

এর মধ্যে মীম আরাফাত মানব ডাকসুর কেন্দ্রীয় সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত প্যানেলে আন্তর্জাতিক সম্পাদক, তাওহীদ তানজীম স্বতন্ত্রভাবে ডাকসুতে ছাত্র পরিবহন সম্পাদক, শোয়েব মাহমুদ শহীদুল্লাহ হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য মনোনীত সাহিত্য সম্পাদক, অনিন্দ্য মণ্ডল জগন্নাথ হলে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত সদস্য এবং মো. মাঈনউদ্দিন হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য ও স্বতন্ত্র জোট সমর্থিত সংস্কৃতি সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1035 বার