টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) অ্যাডভোকেট ও ব্যারিস্টারের লড়াই

Pub: বুধবার, ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: বুধবার, ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি :
অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনা শেষে টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন দক্ষ রাজনীতিবিদ টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম এবং ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন পেয়েছেন বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকীর মেয়ে রাজনীতিতে নবীন ব্যারিস্টার কুঁড়ি সিদ্দিকী। এ আসনে দীর্ঘদিন পর জাতীয় নির্বাচনে এবার নৌকা এবং ধানের শীষে যেমন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, তেমনি নির্বাচনী লড়াই হবে নবীন ও প্রবীণ প্রার্থীর মধ্যে। কুঁড়ি সিদ্দিকী রাজনীতিতে নবীন হলেও তার বাবা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী ভোটের মাঠে ছায়ার মতো কুঁড়ি সিদ্দিকীর পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন। এই নির্বাচন অ্যাডভোকেট ও ব্যারিস্টারের লড়াই হবে বলেও স্থানীয়দের মধ্যে গুঞ্জন রয়েছে।

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলামকে নৌকার কাণ্ডারি ঘোষণা দিয়ে নৌকা প্রতীক তুলে দেন। এরপর থেকে টাঙ্গাইলের সর্বত্র আলোচনা ছিল কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়ন নিয়ে। কিন্তু ঋণ খেলাপি হওয়ায় তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম। গত ২রা ডিসেম্বর সকালে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে তিনি এ ঘোষণা দেন।

কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তমের মনোনয়ন বাতিল হওয়ায় ওই আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হয়েছেন তাঁর মেয়ে ব্যারিস্টার কুঁড়ি সিদ্দিকী। গত রোববার সন্ধ্যায় কাদের সিদ্দিকী সখীপুরে তাঁর নিজ বাস ভবনে দলীয় কর্মী সমর্থকদের সামনে এ ঘোষণা দেন। এ সময় কর্মী সমর্থকরাও হাত তুলে কুঁড়ি সিদ্দিকীর প্রতি সমর্থন জানান।
সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়ায় কাদের সিদ্দিকী বলেন, বর্তমান সরকার চায়না আমি নির্বাচনে করি। ’৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানিদের চোখে আমি যেমন শত্রু ছিলাম, বর্তমান সরকারের চোখেও আমি তাদের বড় শত্রু। তাই এ সরকারের অধীনে আমি আর নির্বাচন করতে চাই না।

এ সময় ব্যারিস্টার কুঁড়ি সিদ্দিকী উপস্থিত কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিগত সময়ে আপনারা বাবার পাশে যেরকম ছিলেন, সামনের নির্বাচনে সে রকমভাবেই সকলের সহযোগিতা চাই। এ সময় কাদের সিদ্দিকীর সহধর্মিণী নাসরিন সিদ্দিকী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার খোকা, উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি শেখ মোহাম্মদ হাবীব, উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আতোয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জুলফিকার শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার খবর সখীপুরে পৌঁছার পর শহরে আনন্দ মিছিল করেন তাঁর কর্মী-সমর্থকরা। মিষ্টি বিতরণের মধ্য দিয়ে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন তার কর্মী-সমর্থক ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলে অভিনন্দন বার্তা। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর জোয়াহেরুল ইসলাম সখীপুরে আসেন। এ সময় তিনি দলীয় নেতাকর্মী, সুশীল সমাজের নেতাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নৌকা ও শেখ হাসিনার জন্য কাজ করার আহ্বান জানান।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1285 বার