fbpx
 

চুয়াডাঙ্গা ও ঝিনাইদহে ভোটের মাঠে লড়ছেন যারা

Pub: Wednesday, December 12, 2018 8:21 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চুয়াডাঙ্গা এবং ঝিনাইদহ বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একটি জনপদ। বাঙালি জাতির অধিকার আদায়ের হাজার বছরের ইতিহাসে এ দুই জেলার নাম স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ। দেশের রাজনীতিতে এই দুই জেলার রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। বর্তমানে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এখানে বেশ জোরেশোরেই বাজছে ভোটের বাদ্য।

এই দুই জেলায় রয়েছে ৬টি সংসদীয় আসন। যার মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় ২টি এবং ঝিনাইদহে রয়েছে ৪টি সংসদীয় আসন। চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৮ লাখ ৫২ হাজার ৭৫৭। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪ লাখ ২৫ হাজার ৬০৭ জন এবং নারী ভোটার ৪ লাখ ২৭ হাজার ১৫০ জন।

এদিকে ঝিনাইদহের চারটি আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ১৩ লাখ ৪২ হাজার ২৭৮। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬ লাখ ৭২ হাজার ৬০৫ জন আর নারী ভোটার ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৬৭৩ জন।

চুয়াডাঙ্গা-১: চুয়াডাঙ্গা সদর ও আলমডাঙ্গা উপজেলার ২২টি ইউনিয়ন এবং ২টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৭৯নং আসন এটি। এবারের নির্বাচনে এ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন ওরফে ছেলুন জোয়ার্দ্দার। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপির মো. শরীফুজ্জামান শরীফ। এবং লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন।

২০১৪ সালের নির্বাচনে এ আসন থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার। ২০০৮ সালেও নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ২০০১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। ১৯৯৬ সালে বিএনপি থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন দলটির বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। ১৯৯১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির মিয়া মোহাম্মদ মনসুর আলী।

চুয়াডাঙ্গা-২: জীবননগর ও দামুড়হুদা উপজেলা এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের তিতুদহ, বেগমপুর, গড়ইটুপি এবং নিহালপুর ইউনিয়নসহ মোট ২০টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৮০ নং আসন এটি। এবারের নির্বাচনে এ আসন থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের আলী আজগার টগর। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপির মাহমুদ হাসান খান বাবু।

২০১৪ সালে এ আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের আলী আজগার টগর। ২০০৮ সালেও নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের আলী আজগার টগর। ২০০১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির মোজাম্মেল হক। ১৯৯৬ সালেও নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির মোজাম্মেল হক। ১৯৯১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন জামায়াতে ইসলামীর হাবিবুর রহমান।

ঝিনাইদহ-১: শুধুমাত্র শৈলকুপা উপজেলা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৮১নং আসন এটি। এবারের নির্বাচনে এ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের আব্দুল হাই। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক ও সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ।

২০১৪ সালে এ আসন থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের আব্দুল হাই। ২০০৮ সালেও নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের আব্দুল হাই। ২০০১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের আব্দুল হাই। ১৯৯৬ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির আব্দুল ওয়াহাব। ১৯৯১ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপির আব্দুল ওয়াহাব।

ঝিনাইদহ-২: হরিণাকুন্ডু উপজেলা এবং সদর উপজেলার একাংশ নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৮২ নং আসন এটি। এবারের নির্বাচনে এ আসন থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের তাহজীব আলম সমি সিদ্দিকী। বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন অ্যাডভোকেট এমএ মজিদ।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ঝিনাইদহ-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে মসিউর রহমান (বিএনপি) এবং ২০০৮ সালে শফিকুল ইসলাম অপু (আওয়ামী লীগ) ও ২০১৪ সালে তাহজীব আলম সমি সিদ্দীকি (স্বতন্ত্র ) প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

ঝিনাইদহ-৩: মহেশপুর ও কোটচাঁদপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৮৩ নং আসন এটি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের শফিকুল আজম খান চঞ্চল। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন জামায়াতে ইসলামীর অধ্যাপক মতিয়ার রহমান।

এই আসন থেকে গত ৫টি নির্বাচনে- ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে মরহুম শহিদুল ইসলাম মাষ্টার (বিএনপি), ২০০৮ সালে শফিকুল ইসলাম চঞ্চল (আওয়ামী লীগ) ও ২০১৪ সালে নবী নেওয়াজ (আওয়ামী লীগ) সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

ঝিনাইদহ-৪: কালীগঞ্জ ও সদর উপজেলার একাংশ নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ৮৪ নং আসন এটি। এবারের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে এ আসনে লড়ছেন আওয়ামী লীগের আনোয়ারুল আজীম আনার। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপির সাইফুল ইসলাম ফিরোজ।

এই আসনে ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের নির্বাচনে বিএনপির শহীদুজ্জামান বেল্টু, ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের আব্দুল মান্নান ও সর্বশেষ ২০১৪ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের আনোয়ারুল আজীম আনার সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ