নানাভাবে আলোচিত নাজমুল হুদার ১৬৮ ভোট

Pub: বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ৩, ২০১৯ ৪:২৯ অপরাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ৩, ২০১৯ ৪:২৯ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিএনপির এক সময়ের প্রভাবশালী নেতা ও নানাভাবে আলোচিত সাবেক মন্ত্রী ব্যরিস্টার নাজমুল হুদা সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে গো হারা হেরেছেন। সিংহ মার্কায় নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি পেয়েছেন মাত্র ১৬৮ ভোট।

নির্বাচন কমিশনের ফলাফলের তালিকা থেকে দেখা গেছে, ঢাকা-১৭ আসনে ২ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭টি ভোট পড়ে। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিল ১০ জন। এখানে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৬১০ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চিত্র নায়ক ফারুক (আকবর হোসেন পাঠান) জয়লাভ করেছেন।

অন্যদিকে,ভোট বর্জন করেও ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ পেয়েছেন ৩৮ হাজার ছয়শ’র কিছু বেশি ভোট।জাল ভোট কেন্দ্র দখলের অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন তিনি। নির্বাচনী আইন অনুযায়ী, প্রদত্ত ভোটের আট ভাগের এক ভাগের চেয়েও কম ভোট পাওয়ায় তিনি জামানত হারিয়েছেন।

২০১০ সালের ২১ নভেম্বর সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে দলের সব স্তর থেকে বহিষ্কার করে বিএনপির স্থায়ী কমিটি। সে সময় নাজমুল হুদা ছিলেন বিএনপির ১ নম্বর ভাইস চেয়ারম্যান।তাকে বহিষ্কার করার কয়েক মাস পরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদার কাছে দুঃখ প্রকাশ করে আবার দলে ভেড়েন তিনি। এরপর ২০১২ সালের ৬ জুন তিনি নিজেই দল থেকে পদত্যাগ করেন। ওই বছর ২৩ মে বেগম খালেদা জিয়াকে সংলাপে বসার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে প্রস্তাব দেওয়ার অনুরোধ জানালে সে অনুরোধ না রাখায় নিজেই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন নাজমুল হুদা।

পরবর্তীতে ২০১২ তিনি ১০ আগস্ট বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফ্রন্ট (বিএনএফ) নামে একটি দল গঠন করেন। তবে কিছুদিনের মাথায় তাকে এ দল থেকেও বহিষ্কার করা হয়।২০১৫ সালে তিনি গঠন করেন তৃণমূল বিএনপি নামের আরেকটি দল। দলটি নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধন না পাওয়ায় নির্বাচনে নাজমুল হুদা আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন কিনলেও শেষ পর্যন্ত স্বতন্ত্র থেকে ভোটের অংশ নেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1343 বার