fbpx
 

ভোট পেছাতে রিটার্নিং কর্মকর্তার চিঠি, ইসির না

Pub: রবিবার, জানুয়ারি ১২, ২০২০ ৪:০৬ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা: ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রার্থীদের প্রচার শুরু হওয়ার পর সরস্বতী পূজার কারণে এবার ভোট পেছাতে খোদ ঢাকা দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) চিঠি দিয়েছেন।
আজ রোববার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইসির অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেসুর রহমান। 
তিনি বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন সরস্বতী পূজা উপলক্ষে ভোট পেছানোর সুপারিশ করে একটি চিঠি দিয়েছেন।
মো. মোখলেসুর রহমান বলেন, সম্প্রতি আবদুল বাতেন স্বাক্ষরিত একটি চিঠি নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর বরাবর পাঠিয়েছেন। চিঠির ব্যাপারে বিষয়টি আমরা নির্বাচন কমিশনারদের জানিয়েছি। তবে কমিশন ভোট পেছানোর কোনো চিন্তা করছে না। সরস্বতী পূজা উপলক্ষে সরকার নির্ধারণ করেছে ২৯ জানুয়ারি। সে অনুযায়ীই সব হওয়ার কথা।’
অতিরিক্ত সচিব আরো বলেন, এক রিটের কারণে হাইকোর্টের একটি আদেশ দেওয়ার কথা ছিল আজ। হাইকোর্ট যদি কোনো আদেশ দেন, তাহলে ভিন্ন কথা। তবে পূজার কারণে ভোট পেছানোর সুযোগ নেই।’
এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, সরকার ঘোষিত সরস্বতী পূজার ছুটির তারিখ ২৯ জানুয়ারি। আমরা তো ওইভাবেই ভোটের তারিখ নির্ধারণ করেছি। এখন আমাদের সামনে আর ভোট পেছানোর কোনো সুযোগ নেই। সামনে এসএসসি পরীক্ষা। সব মিলিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশ ছাড়া আমাদের ভোট পেছানোর কোনো চিন্তা নেই।

গত বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহা এক চিঠিতে পূজার জন্য ভোট পেছাতে দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তাকে চিঠি দেন। এর ভিত্তিতেই নির্বাচন পেছানোর জন্য ১০ জানুয়ারি চিঠিতে নির্বাচন কমিশনকে সুপারিশ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন।
চিঠিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখের ১৭.০০.০০০০.৩৪.৩৭.০০৯.১৯-৪৮৪ নং প্রজ্ঞাপনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে ১-২৫ নং ওয়ার্ড এবং সাধারণ আসনের কাউন্সিলর ১-৭৫ নং ওয়ার্ডের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৩০ জানুয়ারি ২০২০ তারিখ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু আগামী ৩০/০১/২০২০ তারিখে সনাতন ধর্মালম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার দেবী শ্রীশ্রী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত পূজা লগ্ন বা তিথির মধ্যে সম্পন্ন করতে হয় বিধায় পূজার তারিখ পরিবর্তন করা সম্ভব নয়।
চিঠিতে আরও বলা হয়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অধিভুক্ত এলাকাসমূহে ব্যাপক সংখ্যক সনাতন ধর্মাবলম্বীর বসবাস। এখানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ পূজামণ্ডপ রামকৃষ্ণ মিশন অবস্থিত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলও ওই এলাকায় অবস্থিত। রামকৃষ্ণ মিশন ও জগন্নাথ হলে অত্র এলাকার আশপাশের অনেক প্রতিষ্ঠান থেকে পূজা উপলক্ষে প্রচুর সনাতন ধর্মাবলম্বী লোকের সমাগম ঘটে। এ ছাড়া নির্বাচন উপলক্ষে যেসব প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, তাদের মধ্যে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানে পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। যেহেতু পুরান ঢাকা একটি ঘনবসতি এলাকা। সেহেতু এখানকার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এসব প্রতিষ্ঠান ছাড়া পূজা পালন করা অনেকাংশেই সম্ভব হবে না। 
এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জগন্নাথ হল শাখা নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য একটি পত্র অত্র কার্যালয়ে দাখিল করেছে। সার্বিক বিবেচনায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় কাজ সুচারুরূপে পালন করার স্বার্থে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করার সুপারিশের যৌক্তিকতা বিবেচনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্ত আবেদনপত্রটি মহোদয়ের নিকট প্রেরণ করা হলো।’
চিঠির অনুলিপি তিনি ঢাকা মেট্রোপলিট্রন পুলিশ কমিশনার, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনু বিভাগের মহাপরিচালক, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার যুগ্ম সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের পাঠিয়েছেন।

Hits: 0


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ