আজকে

  • ৭ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২২শে আগস্ট, ২০১৮ ইং
  • ১০ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে লন্ডন মহানগর বিএনপির সভা

Pub: মঙ্গলবার, মে ১৫, ২০১৮ ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, মে ১৫, ২০১৮ ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

লন্ডন : বিএনপির চেয়ারপার্সন গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ রাজনৈfতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত প্রহসন মূলক রায়ের মাধ্যমে কারা অন্তরিন করার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কম’সুচীর অংশ হিসাবে প্রতিবাদ সভা করেছে লন্ডন মহানগর বি এন পি ।১৪মে সোমবার লন্ডন মহানগর বি এন পির কাযালয়ে লন্ডন মহানগর বি এন পির সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক আবেদ রাজার পরিচালনায় প্রতিবাদ সভা অনুস্টিত হয়।

সভাপতির বক্তব্যে মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন কোন স্বৈরাচার সরতে চায় না, ক্ষমতা দখল করে রাখে। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ বারবার এই সমস্ত শক্তিকে, ব্যক্তিদের, যারা জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায় তাদের টেনে হিচড়েই নামিয়ে ফেলেছে। আপনারা (সরকার) বিএনপি চেয়ারপারসনকে ছলচাতুরী করে আটকে রাখার চেষ্টা করছেন। কিন্তু কেন? ভয়ে। এত ভয় পান যে খালেদা জিয়া যদি আজকে বের হন আপনাদের মসনদ জনগণের স্রোতে ভেসে যাবে। এই কারণেই আপনারা তাকে আটকে রেখেছেন। শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্যদিয়ে জনগণের সমম্পৃক্ততা নিয়ে এসে যে আন্দোলন, সে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের পথেই আন্দোলনে সফলতা আসবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথের সেই আন্দোলনকে সরকার ভয় পাচ্ছে। মহানগর বিএনপির সভাপতি বলেন, আলোচনা করার সময় শেষ হয়ে গেছে, এখন প্রতিবাদ করার সময়। গণতন্ত্রের মা খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬টি মামলা দেয়া হয়েছে। কিছু মামলা দেয়া হয়েছিল ওয়ান-ইলেভেনের সময়। তখন উদ্দেশ্য ছিল বিরাজনীতিকরণ। সুযোগসন্ধানী যারা গণতন্ত্রকে চলতে দিতে চায় না, তারাই এসব মামলা করেছিল। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে এসব শুরু হয়েছে। যে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের জন্য যুদ্ধ করেছে, দলটির প্রতিষ্ঠাতা মওলানা হামিদ খান ভাসানী থেকে শুরু করে শেখ মুজিব পর্যন্ত গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেছেন। সেই দলটি দেশ স্বাধীনের পর গণতন্ত্র হত্যা করে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশাল কায়েম করেছিল। সে সময় বিরোধী নেতাকর্মীদের গুম, খুন ও কারাগারে নেয়া হয়েছে। বর্তমানে সেই দলটি বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গুম-খুন করে যাচ্ছে। এ রকম বহু নেতাকমী জীবন দিয়েছে এবং নিখোঁজ রয়েছেন। এখন তো দেশে কোনো আইন নেই। তাই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও দলের সকল রাজবন্দিদের মুক্তি কার কাছে চাইব? আমাদের পথ একটাই আর তা হলো রাজপথ। সেই রাজপথের মধ্যে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমরা সব সমস্যার সমাধান করব বলে আমি বিশ্বাস করি।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন লন্ডন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি শরীফ উদ্দিন ভুঁইয়া বাবু ,আব্দুস সালাম আজাদ , আব্দুর রব , এমদাদ হোসেন খান , এম এ তা্হের ,সহ-সাধারণ সম্পাদক তুহিন মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ চৌধুরী ,
সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক তোফায়েল হোসেন মৃধা , কাওছার আহমেদ , কোষাধ্যক্ষ মোঃ জিয়াউর রহমান , দফতর সম্পাদক নজরুল ইসলাম মাসুক , প্রচার সম্পাদক মো: মঈনুল ইসলাম , ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান অলি ওয়াদুদ , মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রবিউল আলম , তথ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ লাল মিয়া , সহ-গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মামুন রশিদ , ক্রীড়া সম্পাদক সৈয়দ আতাউর রহমান. মহিলা বিষয়ক সম্পাদক কামরুন্নহার সাহানা , সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আসমা জামান , শাকিল আহমদ, ফজলে রহমান পিনাক, জামাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মো: ইমরান হোসেন, শায়েখ উদ্দিন,মো: এনামুর রহমান এনু, আফতাব আলী, সুমন সিকদার, আরিফুল হক, আব্দুস সামাদ রাজ, হাসান জাহেদ. চেরাগ আহমদ , নুরুল আফসার ,তারেকুল হোসেন , বাবরুল হোসেন বাবুল , মোঃ তোফায়েল আহমদ , নাজিয়া আকবার , মাহবুব আহমদ , মুনীর চৌধুরী প্রমুখ।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1550 বার

 
 
 
 
মে ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« এপ্রিল   জুন »
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com