আজকে

  • ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২০শে জুলাই, ২০১৮ ইং
  • ৭ই জিলক্বদ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

ব্রিটেনে শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে স্টাফ আনা সম্ভব নয়

Pub: বৃহস্পতিবার, জুলাই ১২, ২০১৮ ৪:৩৪ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, জুলাই ১২, ২০১৮ ৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

ডেস্ক নিউজ:ব্রিটেনে রেস্টুরেন্ট সমূহে স্টাফ সংকট সমাধান, কাগজপত্রহীন দক্ষ স্টাফদের বৈধতাদানসহ নানা দাবীতে ১০ জুলাই ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সামনে ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর অফিস ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন (বিসিএ)। একই দিন দুপুর ১২টায় হাউজ কমন্সে ব্রিটিশ এমপিদের সাথে নিয়ে সেমিনার করে সংগঠনটি। তবে উপস্থিত এমপিদের বক্তব্যে হতাশ হয়েছেন বিসিএ নেতারা। স্টাফ সংকট সমাধানে ভিসা প্রাপ্তিকে বড় সমস্যা হিসেবে বিবেচনায় নেননি উপস্থিত এমপিরা। বরং তারা ব্রিটেন থেকেই এর সমাধান খুজার আহবান জানিয়েছেন। তারা বলছেন, ব্রিটিশ লেবার স্টান্ডার্স মেনে এবং স্টাফ ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে এর সমাধান বের করতে হবে। তাছাড়া অব্যাহতভাবে লবিংয়ের উপর গুরুত্ব দিয়েছেন অনেকে।
হাউজ কমন্সে আয়োজিত সেমিনারের প্রথম বক্তা সাবেক ব্রিটিশ মন্ত্রী ও সরকার দলীয় এমপি স্যার মাইক পেনিং একটু কড়া ভাষায় বলেন, স্টাফ সংকট সমাধানে শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে লোক এনে এর সমাধান সম্ভব নয়। ব্রিটেনে থেকেই এর সমাধান করতে হবে। শুধুমাত্র একটি দেশ থেকে স্টাফ আনার অনুমতি কোন সরকার কোন দল দিতে পারবেনা। তিনি নিজেকে কারী লাভার উল্লেখ করে বলেন, বিক্ষোভ করা, সভা সমাবেশ করার অধিকার সবার রয়েছে। কারী শিল্পের সমস্যা সমাধানে কারি কলেজ প্রতিষ্ঠাসহ সরকারের গৃহিত নানান প্রদক্ষেপের কথা তিনি তুলেন। তিনি বলেন, বিসিএ’র ক্যাম্পেইন চালিয়ে যেতে হবে। ব্রিটিশ এমপিদের সাথে লবিং করে এর সুন্দর একটি সমাধান বের করতে হবে।
এদিকে সভায় উপস্থিত এমপি রোশনারা আলীও বেশ কড়া বক্তব্য দেন। তিনি ব্রেক্সিটপন্তী সাবেক এক মন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, যারা ব্রেক্সিট ভোটের সময় বলেছিল ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ করলে স্টাফ আনা যাবে, তারা মিথ্যা বলেছিল। তারা এখন কোথায়। তিনি বলেন, ভিসা দেয়া হয় অভিজ্ঞতার আলোকে।
তিনি বিসিএ নেতাদের উদ্দেশ বলেন, স্টাফ সংকট সমাধানে আপনার অনেক কাজ করেছেন, লবিং করছেন, পাশাপাশি আপনাদের স্টাফদের ক্ষেত্রে শ্রম আইন মেনে চলতে হবে, তাদেরকে ট্রেনিং দিতে হবে। তিনি বলেন, ভিসা প্রধান সমস্যা নয়। ভিসার পাশাপাশি ট্রেনিংয়ের উপর গুরুত্বদেন তিনি। তিনি বলেন, আপনারাই ব্রিটেনে কারী শিল্প গড়ে তুলেছেন। এই শিল্প প্রতি বছর ৪ বিলিয়ন পাউন্ড ট্যাক্স দিচ্ছে। আমরা ক্রস পার্টি পার্লামেন্টারী গ্রুপের সাথে কাজ করে যাব।
তিনি লবিস্ট নিয়োগের পক্ষে মতামত তুলে ধরেন। তিনি অন্যান্য এমপিদের দিকে তাকিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আপনারা শত শত পাউন্ড খরছ করে অনুষ্ঠান করেন এমপি মন্ত্রীদের দাওয়াত দেন তারা আসে। মজার মজার খাবার খায়, আনন্দ উপভোগ করে পরে তা ভুলে যায়। সেজন্য ভালো লবিস্ট নিয়োগ করতে হবে। অভ্যাহতভাবে ক্যাম্পেইন চালিয়ে যেতে হবে।
বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন ইউকের সভাপতি কামাল ইয়াকুব এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অলি খানের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন স্টিপেন টিমস এমপি, ডেম রসিই এমপি, নিকি মরগান এমপি, এ্যান মেইন এমপি, ক্যারেন বাক এমপি, নিয়া গ্রিফত এমপি, সিমস মালমুত্রা এমপি, মাইক গ্যাপ এমপি, পল স্কালি এমপি, ব্যারনেস পলামঞ্জিলা উদ্দিন।
আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি পাশা খন্দকার ও সাধারণ সম্পাদক এম এ মুমিন। বিসিএ নেতা পারভেজ আহমেদ, এনামুল হক চৌধুরীসহ অনেকে।
সেমিনারে অন্যান্য এমপিরা বলেন, স্টাফ সংকট শুধুমাত্র রেস্টুরেন্ট সেক্রেটরে নয়, হাইস্ট্রিট ব্যবসায়ও এর প্রভাব পড়েছে। তারা এ সমস্যা সমাধানে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।
বিক্ষোভ কর্মসূচিতে ব্রিটেনের বিভিন্ন শহর থেকে কয়েক শতাদিক ব্যবসায়ী অংশনেন। তারা পার্লামেন্টের সমান থেকে র‌্যালি করে ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে যান। সেখানে বেশ কিছুক্ষন অবস্থান করেন।
এসময় তারা বলেন প্রায় এক যুগ আগে সরকার কর্তৃক দক্ষ জনশক্তি বিষয়ে কঠোর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করায় বর্তমানে বৃটিশ কারি ইন্ডাস্ট্রি চরম দুর্যোগময় সময় অতিবাহিত করছে।
সংগঠনের প্রেসিডেন্ট কামাল ইয়াকুব বলেন, কারী শিল্পের জনবল সংকটের প্রেক্ষিতে আমরা যুক্তরাজ্য সরকারকে তাদের ইমিগ্রেশন পলিসি পুণবিবেচনার দাবী জানাচ্ছি। সরকারের কঠোর ইমিগ্রেশন নীতির কারনে বর্তমানে ক্যাটারিং খাতে দক্ষ জনবলের চরম শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে। দক্ষ শেফ তৈরী না হওয়ায় এক সময়ের বিকশিত কারি শিল্প এখন মুখ থুবড়ে পড়েছে। এ শিল্পের ধারাবাহিক বিকাশ চরমভাবে বাধাগ্রস্ত হয়েছে।
তিনি বলেন প্রতি সপ্তাহে এদেশে কমপক্ষে ৩ থেকে ৪ টি রেস্টুরেন্ট শুধুমাত্র জনবল সংকটের কারণে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। ইউকে বর্ডার এজেন্সি (ইকেবিএ) কর্তৃক রেস্টুরেন্টগুলোতে কঠোর অভিযান এবং অবৈধ শ্রমিকের ক্ষেত্রে বড় ধরনের জরিমানার বিধান কার্যকর করার কারণে বিরাজমান বৈরী অর্থনৈতিক পরিস্থিতি রেস্টুরেন্ট মালিকদেরকে বিনিয়োগ থেকে নিরুৎসাহিত করছে। বৃটিশ কারি ইন্ডাস্ট্রিতে দক্ষ শেফের সংকট সমাধানের লক্ষ্যে বৈধ কাগজপত্রবিহীন কর্মীদেরকে প্রয়োজনে এড-হক ভিত্তিতে বৈধতা প্রদান করার দাবী জানান।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1168 বার

 
 
 
 
জুলাই ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« জুন    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com