আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে লন্ডনে ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে যুক্তরাজ্য বিএনপির মানববন্ধন

Pub: বুধবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ ৮:৪৪ অপরাহ্ণ   |   Upd: বুধবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ ৮:৪৪ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আন্তর্জাতিক গুম দিবস’ উপলক্ষে আওয়ামী বাকশালি অবৈধ সরকারের শাসন আমলে বিএনপির নেতাকর্মীসহ দেশে গুমের শিকার হওয়া ব্যক্তিদের সুস্থ ও অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেয়ার দাবীতে ৩০ আগস্ট বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে এমপির সরকারি বাসভবন ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে মানববন্ধন করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা নেতাকর্মীরা সরকার বিরোধী নানা শ্লোগানে গোটা এলাকা প্রকম্পিত করে তোলে। এসময় তারা গুমের শিকার হওয়া নেতাকর্মীদের ছবি সংবলিত বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে তাদের পরিবারের নিকট অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেয়ার জোর দাবী জানায় ।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমদের পরিচালনায় মানববন্ধনে যুক্তরাজ্য বিএনপি, ব্রিটেনের বিভিন্ন জোনের নেতৃবৃন্দ, যুক্তরাজ্য যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, আইনজীবী ফোরাম, জাসাস ও মহিলা দলের শত শত নেতাকর্মীরাসহ ব্রিটিশ বাংলাদেশী কমিউনিটির নেতৃবৃন্দগণ অংশ নেয়।

প্রধান অতিথির বক্তবে বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান বলেন, অনির্বাচিত শেখ হাসিনা সরকারের চরম অমানবিক এবং অনৈতিক গুমের বিরুদ্ধে আমাদের এই মানববন্ধন । সরকার ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে বিরোধীদলের জনপ্রিয় নেতৃবৃন্দকে প্রতিনিয়ত গুম করছে। বাংলাদেশের জনগণ ফ্যাসিস্ট সরকারের সীমাহীন অত্যাচার-নির্যাতনের কারণে তাদের গণতান্ত্রিক অধিকারটুকু পালন করতে পারছে না।পৃথিবীর কোন স্বৈরশাসক দেশের জনগনের উপর অত্যাচার নির্যাতন করে বেশীদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারে নাই, শেখ হাসিনাও পারবে না। তিনি অভিলম্বে গুমের শিকার হওয়া নেতাকর্মীদের তাদের পরিবারের নিকট সুস্থ ও অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেয়ার জোর দাবী জানিয়ে বলেন, শেখ হাসিনাকে তার কৃতকর্মের জন্য একদিন আন্তর্জাতিক আদালতের কাটগড়ায় দাড়াতে হবে। তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক ভাবে নির্জন কারাগারে আটকে তিনি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করে বলেন, দেশনেত্রী ছাড়া অবৈধ সরকারের পাতানো নির্বাচনে বিএনপি যাবে না।

সভাপতির বক্তবে এম এ মালিক বলেন, ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষতায় এসে আওয়ামী লীগ দমন-পীড়ন আর গুমের পথ বেছে নিয়েছে। তিনি বলেন, আওয়ামী বাকশালি পরিবারের দুঃশাসন ও অত্যাচার নির্যাতনে আজ বাংলাদেশের আইনের শাসন বলে কিছুই অবশিষ্ট নেই। মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি নেই। শত শত মানুষকে গুম করা হয়েছে সরকারী প্রাইভেট বাহিনীর মাধ্যমে। তিনি বলেন, দেশের মানুষ ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। দেশপ্রেমিক জনতা আওয়ামী বাকশালীদের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায়। তাই দেশে সুশাসন ও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে অবৈধ সরকারকে বিদায় করতে হবে। তিনি অভিলম্বে সাবেক এমপি এম ইলিয়াস আলী, কাউন্সিলর চৌধুরী আলম, সাইফুল ইসলাম হিরু, দিনার সহ সকল গুম হওয়া শত শত বিরোধী দলের নেতা কর্মিদেরকে তাদের পরিবারের কাছে সুস্থ ও অক্ষত অবস্তায় ফিরিয়ে দেওয়ার জোর দাবি জানান।

সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদ স্বৈরাচারী সরকারের কঠোর সমালোচনা করে অনতিবিলম্বে গুম, খুন, নির্যাতন, হামলা, মামলা বন্ধের জোর দাবী জানান। তিনি বলেন, সরকার সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দেশনেত্রী বেগম খালেদ জিয়াকে বন্দি করে রেখেছে। বিএনপির জনপ্রিয়তায় সরকার দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দেশে আজ সকল পেশা শ্রেণীর মানুষ সরকারের অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগের সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশের জনগণ দেশনেত্রী মা বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে জনগনের মধ্যে ফিরিয়ে আনবে।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সাবেক সহসভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব, আলহাজ্ব তৈমছু আলী, গোলাম রাব্বানি সোহেল, ইতালি বিএনপির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক,

যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খসরুজ্জামান খসরু, সাবেক সিনিয়র সদস্য মিসবাহউজ্জমান সোহেল, সাবেক সহদপ্তর সম্পাদক সেলিম আহমেদ, সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিন, জাসাসের সভাপতি এমাদুর রহমান এমাদ, সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, কেন্দ্রীয় যুবদলের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এনামুল হক লিটন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক যুব বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ খান হাভেন, যুক্তরাজ্য যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত বাদশা, লন্ডন মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল কুদ্দুছ, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এস এম লিটন, নিউহাম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সেবুল মিয়া, মাওলানা শামিম আহমেদ,

লন্ডন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি আব্দুস সালাম, ইস্ট লন্ডন বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ আলম,লন্ডন মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ চৌধুরী, তোফায়েল হোসেন মৃধা, মোঃ জিয়াউর রহমান, শাকিল আহমদ, দেলোয়ার হোসেন, ফখরুল ইসলাম, এনামুর রহমান এনু, জমির আলী, জামাল হোসেন, আব্দুল হক শাওন, মুনীর চৌধুরী, আফতাব আলী, সোহেল রানা, রেজাউর রহমান চৌধুরী রাজু, নিউহাম বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মাকসুদুর রহমান, শিবলি সাদিক, যুবদলের সহসভাপতি দেওয়ান আব্দুল বাছিত, যুগ্ম সম্পাদক বাবর চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম, ডালিয়া বিনতে লাকুরিয়া, কামাল মিয়া, শাহরিয়ার রাসেল, শেখ সাদেক আহমেদ, সাবেক ছাত্রদলনেতা রুহুল কুদ্দুস, ইমতিয়াজ এনাম তানিম, লাকি আহমেদ, ফজলে রহমান পিনাক, লিমন আহমেদ, রানা আহমেদ প্রমুখ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1240 বার