বাংলাদেশ কি ব্যর্থ রাষ্ট্রের দিকে ধাবিত হচ্ছে? ব্রিটিশ পার্লামেন্টে সেমিনার অনুষ্ঠিত

Pub: শনিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮ ৯:০০ অপরাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮ ৯:০০ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ব্রিটিশ বাংলাদেশী কমিউনিটি এলায়েন্স আয়োজিত বাংলাদেশ কি একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রের দিকে ধাবিত হচ্ছে? শিরোনামে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয় লন্ডনের হাউজ অফ কমন্সে।সংগঠনের সভাপতি বারিস্টার আফজাল জামি সৈয়দ আলীর সভাপতিত্বে চীফ এডভাইজার মুজাক্কির আলীর পরিচালনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সেক্রেটারি ফয়জুন নূর,
অনুষ্টানের হোস্ট ছিলেন ব্রিটেনের সরকার দলীয় হুইপ এবং লর্ড চেম্বারলাইন অ্যান্ড্রু স্টিফেনসন এমপি. অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লর্ড কোরবান হোসাইন, কনসারভেটিভ ফ্রেন্ডস অফ বাংলাদেশের ভাইস চেয়ার বব ব্লাকমান এমপি, পল স্কালি এমপি, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সাবেক সাউথ এশিয়া ডিরেক্টর আব্বাস ফাইজ, ভয়েস ফর জাস্টিসের ড. হাসনাত হোসাইন এমবিই, ইমাম আজমল মাসরুর, বিএনপি সেন্ট্রাল কমিটির মাহিদুর রহমান, শামা ওবায়েদ,এম এ মালেক, সাবেক শিক্ষাবিদ সৈয়দ মামনুন মোর্শেদ, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিদ্দিক, আবরার ইলিয়াস সহ আরো বিশিষ্ট ব্যক্তি. পেশাজীবী এবং ব্রিটেনের স্থানীয় রাজনীতির সাথে জড়িত ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে পরিপূর্ণ রুমে বক্তাদের বক্তব্যের সারমর্ম হলো, যদিও এখনই বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র বলা যাবেনা, তথাপি ব্যর্থ রাষ্ট্রের প্রধান বৈশিষ্টগুলো ক্রমান্বয়ে প্রকটভাবে দৃশ্যমান হচ্ছে. এই অন্ধকার গর্ত থেকে যে বাংলাদেশ টিকে আছে তার প্রধান কারণ এর সর্বংসহা জনগণ.

লর্ড কোরবান বলেন গোয়েন্দা দিয়ে রাজনীতি হয়না, নিজ নাগরিক অপহরণ করে সরকার নিজেকে গণতান্ত্রিক বলতে পারেননা. ড.হাসনাত বলেন সাম্য ও ন্যায় বিচারের যে রাষ্ট্র আমরা চেয়েছিলাম তার থেকে বাংলাদেশ এখন সবচেয়ে দূরে. আব্বাস ফাইজ বলেন রাজনীতি নিরপেক্ষ থেকেও একথা নিঃসংশয়ে বলা যায় বিচার বিভাগ স্বাধীন নয় এবং বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে যে রায় দেওয়া হয়েছে তা বিপদজনক ও ন্যায়ভ্রষ্ট. অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী বলেন রাষ্ট্র তার প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতাগুলো বর্তমান সরকারের অধীনে ক্রমান্বয়ে ধ্বংস করে দিচ্ছে, যে কারণে, অন্তরাষ্ট্রীয় ভাবে দেশের সমস্যাগুলো সমাধান হচ্ছেনা. শামা ওবায়েদ তার দীর্ঘ বক্তব্যে তুলে ধরেন কিভাবে গণতান্ত্রিক সরকার পরিচালনার জরুরি সবগুলো প্রতিষ্ঠানকে দলীয় লোকদিয়ে ভরপুর করেদেয়া হচ্ছে. এভাবে চলতে থাকলে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সমাজের জন্য এক উদ্বেগের কারণ হবে. বাংলাদেশের নিরাপত্তা এর জনগণ, তাদের কথা শুনুন. রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ধ্বংসের বিভিন্ন উপাত্ত তিনি উপস্থাপন করেন. পল স্কালি এমপি বলেন, বিচারপ্রার্থীদের দুর্ভোগ তিনি নিজে দেখে এসেছেন. কিন্তু বিএনপিকে অর্থপূর্ণ ক্ষমতার বাইরে থেকে রাষ্ট্রীয় নীতি কতটা প্রভাবিত করতে পারবে সেটা ভাবার পরামর্শ দেন. বব ব্লাকমান এমপি বলেন যদিও আমি দেখেছি বাংলাদেশের পার্লিয়ামেন্টে এদেশের মতকরে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্ব করা হয়, কিন্তু যখন সবগুলো প্রশ্নই নিজদলীয় লোকরা করে তখন জবাবদিহিতা কায়েম হয়না. জনইচ্ছার কোনো প্রতিফলন সরকারে নেই. আজমল মাসরুর এক উদ্দীপ্ত বক্তব্যে বলেন সরকার দেশের অভ্যন্তরে জননিরাপত্তা বিধানে সম্পূর্ণ ব্যর্থ এবং নিজদলীয় ডাকাতদের ব্যাপারে চোখবন্ধ করে বসে আছে. এটি ব্যর্থ রাষ্ট্রের বৈশিষ্ট. অ্যান্ড্রু স্টিফেনসন এমপি বলেন, আপনারা আমাদের কাছে লিখুন, এর প্রয়োজন আছে এবং এতে কাজ হয়. যে পদ্ধতিতে আপনি নিজে নির্বাচত হয়ে আসলেন আর এসেই সেই পদ্ধতি বদলে ফেলবেন, সেটাকে শ্রদ্ধা করবেননা, এটা গ্রহণযোগ্য নয়।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1243 বার