খালেদা ইস্যুতে ইইউ’র দরজায় ফিনল্যান্ড বিএনপি

Pub: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮ ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮ ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জামান সরকার, ফিনল্যান্ড থেকে:
কারাগারের ভেতরে আদালত বসিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার কার্যক্রম পরিচালনাকে ‘নজিরবিহীন’ আখ্যায়িত করে উদ্বেগ জানিয়েছে ফিনল্যান্ড বিএনপি।
সংগঠনটি বলছে, “বর্তমান বিশ্বে এ ধরনের আদালতের অস্তিত্ব কল্পনা করাও অপরাধ। সেখানে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে তিনবার নির্বাচিত প্রধামন্ত্রীর বিরুদ্ধে এ ধরনের তৎপরতা বিচার ব্যবস্থার দৈন্যতা প্রকাশ করে।”
বুধবার এক বিবৃতিতে এই উদ্বেগ জানায় ইউরোপীয় পার্লামেন্টে এশিয়া চ্যাপ্টারের শুনানিতে নিয়মিত অংশ নেওয়া এই সংগঠন।
খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে একটি দুর্নীতি মামলার শুনানির জন্য কারাগারের ভেতরে আদালত স্থাপন করেছে সরকার, যাকে ‘সংবিধান ও আইন পরিপন্থি’বলছে ফিনল্যান্ড বিএনপি।
বিবৃতিতে বলা হয়, সরকার এই হটকারী সিদ্ধান্ত থেকে সরে না এলে বিষয়টি ইউরোপীয় পার্লামেন্টে অভিযোগ আকারে উত্থাপন করা হবে এবং তা শিগগিরই।
“সর্বোচ্চ আদালতের অনুমোদন ছাড়া এভাবে কারাগারের ভেতরে একজন বন্দির বিচারের ব্যবস্থা করা শুধু নজিরবিহীন নয়, মানবাধিকার লঙ্ঘনও।”
এরই মধ্যে বিষয়টি ইইউ পার্লামেন্টের সংশ্লিষ্ট চ্যাপ্টারের কাছে বিচারের নামে এই প্রহসনের পুরো চিত্র তুলে ধরা হয়েছে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।
ফিনল্যান্ড বিএনপি নেতা জামান সরকার, মবিন মোহাম্মদ ও মোকলেসুর রহমান চপল ছাড়াও ওই বিবৃতিতে সই করেন এজাজুল হক ভূঁইয়া রুবেল, বদরুম মনির ফেরদৌস, সামসুল গাজী, প্রদীপ কুমার সাহা।
অন্যদের মধ্যে স্বাক্ষর করেন মোস্তাক সরকার, মিজানুর রহমান মিঠু, তাপস খান, আলাউদ্দিন আহমেদ, শাহিন মোহাম্মদ, আবুল কালাম আজাদ, তাজুল ইসলাম, নাজমুল হাসান লিটন, রফিকুল ইসলাম, ইব্রাহিম খলিল, সাজ্জাদ মুন্না, মীর সেলিম, সবুজ খান, মনিরুল ইসলাম, আরিফুজ্জামান বাবু, জুয়েল, আশরাফুল আলম, আশরাফ উদ্দিন প্রমুখ।
বিবৃতিতে অবিলম্বে অসুস্থ খালেদা জিয়ার মুক্তির পাশাপাশি তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি দাবি এসেছে।
একই সঙ্গে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে অবিলম্বে নির্দলীয় সরকার গঠনের দাবিও জনিয়েছেন ফিনল্যান্ডের বিএনপি নেতারা।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1315 বার