তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয়কমিটি, ফ্রান্স শাখার প্রতিবাদ সভা

Pub: শুক্রবার, জুন ২৮, ২০১৯ ৩:৪৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: শুক্রবার, জুন ২৮, ২০১৯ ৩:৪৬ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফাহাদ রিপন, প্যারিস থেকে : সুন্দরবনকে রক্ষায়বাংলাদেশ সরকার যেসব অঙ্গীকার করেছিল, তা যথাযথভাবেপূরণ করা হচ্ছে না বলে মনে করে জাতিসংঘের বিজ্ঞান, শিক্ষাও ঐতিহ্যবিষয়ক সংস্থা ইউনেসকো। প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন(ইসিএ) হিসেবে চিহ্নিত ওই এলাকায় ১৫৪টি শিল্পকারখানাচালু রয়েছে। চারপাশে শিল্পের প্রসারে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেসুন্দরবন। জীববৈচিত্র্য পড়েছে হুমকিতে। সরকার সুন্দরবনের২০ কিলোমিটারের মধ্যে দুটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রস্থাপনের কাজ এগিয়ে নিচ্ছে, যা সুন্দরবনের জন্য আরও বড়হুমকি তৈরি করবে। সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্যের ক্ষতি হবেজেনেও বাংলাদেশ সরকারের আত্মঘাতী এ সকল সিদ্ধান্তেরবিরুদ্ধে এবং ৩০ জুন থেকে আগামী ১০ জুলাই পর্যন্তআজারবাইজানের রাজধানী বাকুতে বিশ্ব–ঐতিহ্য কমিটিরবার্ষিক সাধারণ সভাকে সামনে রেখে, তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি, ফ্রান্স শাখার আয়োজনেগত ২৪ জুন ২০১৯, প্যারিসের একটি রেস্টুরেন্টে একপ্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেনসংগঠনের আহ্বায়ক ফাহাদ রিপন এবং সঞ্চালনা করেনসংগঠনের সদস্য সচিব রাকিবুল ইসলাম। সভায় উপস্থিতছিলেন জাতীয় কমিটি, ফ্রান্স শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক রহমতউল্লাহ চৌধুরী সুজন, সদস্য আহমেদ আলী দুলাল, সাখাওয়াতহোসেন হাওলাদার, জুয়েল দাশ রায় লেনিন, জহির উদ্দিনভূঁইয়া, উদয়ন বড়ুয়া, স্বদেশ বড়ুয়া চন্দন, অপু সাহা প্রমুখ।প্যারিসের এ প্রতিবাদ সভায় থেকে বাংলাদেশ সরকারকেরামপাল প্রকল্পসহ সুন্দরবনের চারপাশের সকলশিল্পকারখানাকে বাতিল করার আহ্বান জানানো হয়। প্রতিবাদসভা থেকে প্রস্তাব করা হয় সুন্দরবনকে রক্ষা করার জন্যপ্যারিসে অবস্হিত জাতিসংঘের বিজ্ঞান, শিক্ষা ওঐতিহ্যবিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কোর সামনে প্রতিবাদ সভারআয়োজন করা এবং সুন্দরবন রক্ষা আন্দোলনের সাথেফ্রান্সের স্হানীয় সংগঠনগুলোকে যুক্ত করে এ আন্দোলনকেআরও শক্তিশালী করা।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ