লন্ডনের মার্লবোরো হাউজের সামনে যুক্তরাজ্য বিএনপির বিক্ষোভ

Pub: শুক্রবার, জুলাই ১২, ২০১৯ ১:১২ অপরাহ্ণ   |   Upd: শুক্রবার, জুলাই ১২, ২০১৯ ১:১২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী “মাদার অফ ডেমোক্রেসী”দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচকিৎিসা ও নিঃশর্ত মুক্তি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের ওপর সকল রাজনতৈকি মামলা প্রত্যাহার, কারাগারে বন্দী বিএনপির সকল নেতা-কর্মীর মুক্তি এবং নতুন নির্বাচনের দাবীতে ১০ জুলাই লন্ডনে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনের প্রাক্কালে কমনওয়েলথভুক্ত অফিসের প্রধান কার্যালয় মার্লবোরো হাউজের সামনে বিক্ষোভ করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিকের এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনগুলোর বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী এই বিক্ষোভ সমাবেশে বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুন প্রর্দশন করেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন। । বাংলাদেশের র্বতমান স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকারের ফ্যাসিবাদী শাসনের বিরুদ্দের নানা স্লোগানে মুখরিত করে পুরো মার্লবোরো হাউজের আশেপাশের এলাকা।

সভাপতির বক্তবে এম এ মালিক বলেন, “মাদার অফ ডেমোক্রেসী”বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করে করে বিনা কারণে সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে সর্ম্পূণ অন্যায়ভাবে নির্জন কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। তিনি আরও বলেন, সরকারি দলের লোকেরা ব্যাংকের আমানত ও দেশের সম্পদ লুঠ করে বিদেশে সম্পদের পাহাড় গড়ছে । ন্যায় বিচারহীন দেশে আজ সর্বত্র নারী ও কোমলমতি শিশুরা ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন আর তার সাথে আওয়ামী বাকশালীদের প্রত্যক্ষ মদদ রয়েছে। উচ্চাবিলাসী বাজেটের মাধ্যমে দেশের সম্পদ আওয়ামী বাকশালীরা লুন্ঠন করছে। ফ্যাসিবাদী আওয়ামী সরকারের কর্তৃত্ববাদী শাসন দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে ফেলেছে। তিনি অনতিবিলম্বে সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিশেষায়িত হাসপাতালে সুচকিৎিসা ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন। একই সাথে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের সকল মামলা প্রত্যাহারসহ সারা দেশের বিভিন্ন কারাগারে রাজবন্দী বিএনপির সকল নেতা-কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং নুতন নির্বাচনের দাবী করেন।

সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদ বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতির জন্য স্বৈরাচারী আওয়ামী বাকশালি সরকার দায়ী । তিনি অনতিবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিশেষায়িত হাসপাতালে সুচকিৎিসা ও নি:শর্ত মুক্তি দাবী করেন। এ সময় তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত সাজানো মামলায় নির্জন কারাগারে বন্দি করে রেখেছে স্বৈরাচারী আওয়ামী বাকশালী সরকার। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, গণতন্ত্র পূনরুদ্ধার ও জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে এবং নুতন নির্বাচনের দাবীতে ঐক্যবদ্ধভাবে ব্যাপক গণ আন্দোলন গড়ে তোলতে সবার প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আওয়ামীলীগের কর্তৃত্ববাদী শাসনে দেশের সমাজ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙ্গে পড়েছে। দেশে ন্যায় বিচার নেই বলেই প্রকাশ্য দিবালোকে মানুষ খুন হচ্ছে। বিরোধী দল সহ দেশের সকল শ্রেণীর মানুষ আজ আওয়ামী বাকশালীদের অত্যাচার নির্যাতনে জর্জরিত। গণমাধ্যমের উপর সেন্সরশীপ আরোপ করে সাংবাদিকদের কন্ঠরোধসহ তাদের জীবনের উপর হুমকি অব্যাহত রেখেছে।

বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক সহসভাপতি মোঃ গোলাম রাব্বানী, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আলম, আজমল চৌধুরী জাবেদ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খসরুজামান খসরু, সাবেক সিনিয়র সদস্য মিসবাউজ্জামান সোহেল, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান আহমেদ, যুবদলের সভাপতি রহিম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিন, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, মহিলা দলের সদস্য সচিব অঞ্জনা আলম, যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত বাদশা, সাংবাদিক কাফি কামাল, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আবু নাসের শেখ, সাবেকসহ দপ্তর সম্পাদক সেলিম আহমেদ, গ্রেটার সাসেক্স বিএনপির সভাপতি আব্দুল মুকিত, সাউথ ইস্ট বিএনপির সভাপতি সালেহ আহমেদ জিলান, নিউহাম বিএনপির সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, সাসেক্স বিএনপির সভাপতি কাউন্সিলার তোফাজ্জল হোসেন, এন্ডফিল্ড বিএনপির সভাপতি হেলাল উদ্দিন, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এস এম লিটন, কলচেস্টার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সামসুজ্জমান দুদু, সাসেক্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শামিম আহমেদ, কেন্দ্রীয় ওলামা দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাওলানা শামিম আহমেদ, বিএনপিনেতা মো: তৌকির শাহ, লন্ডন মহানগর বিএনপির উপদেষ্টা আব্দুস সালাম ব্যাপারী. যুগ্ম-সাধারণ সোহেল শরীফ মোহাম্মদ করিম ,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক তোফায়েল হোসেন মৃধা , প্রচার সম্পাদক মো: মঈনুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সস্পাদক মোঃ শাহনেওয়াজ, যুব বিষয়ক সস্পাদক জমির আলী, সহ-তথ্য বিষয়ক সম্পাদক শাকিল আহমদ, প্রশিক্ষন বিষয়ক সম্পাদক রুমেল আহমদ, সহ পশিক্ষন বিষয়ক সম্পাদক জামাল হোসেন, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইমরান হোসেন ,স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক মোঃ দোলেয়ার হোসেন, হোসেন আহমদ, পটল মিয়া, মুজিবুর রহমান, রানা আহমেদ সোহেল, মো: আশরাফুল আলম, মো: হেদায়েতুল ইসলাম,মোঃ সোহেল উদ্দিন সিকদার, আহমেদ শওকত রানা রাজু, মোঃ সোহেল উদ্দিন সিকদার, নজরুল ইসলাম দুলু মোঃ শরিফুল ইসলাম, নাদির আহমদ, জামাল মিয়া, মো: সুমন মিয়া, এনামুল করিম জাহিদ, মোঃ রনি, মুস্তাকিন আলী, মো:মাহবুবুর রহমান, জয় আহমদ, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক একলিমুর রাজা চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরে আলম সোহেল, প্রচার সম্পাদক মোঃ হাসনাইন, দপ্তর সম্পাদক মো: ফয়জুল হক,আনিসুজ্জামান, মো: রিফাত মাহমুদ ভুইয়া, কামরুজ্জামান চৌ:ধুরী, মো: সজিব, মো: হুসাইন, শরুফ রানা, রাকিবুল ইসলাম, এম এ হাসনাত, মো: মনির উদ্দিন,মো: হাসান,তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আশিকুর রহমান, যুক্তরাজ্য যুবদলের যুবদলের যুগ্ন সম্পাদক নুরুল আলী রিপন, শাহজাহান, সহ দপ্তর সম্পাদক কাজী তাজ উদ্দিন আহমেদ, মিয়া মোহাম্মদ জামিল, আনিসুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম শিমু, যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জনি, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান, লন্ডন মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাদেক আহমেদ, জাসেসের সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আরিফ আহমেদ, যুক্তরাজ্য মহিলাদলের নেত্রী লুনা সাবরিনা, নাসরিন হাসান,হিমু তাজ, ডলি চৌধরী, সাবেক ছাত্রনেতা মো: ফয়েজ উল্লাহ, সাংবাদিক আহসানুল আম্বিয়া শোভন, মোহাম্মদ নাসের আহমদ, বি. এম. এমতামজীদ, আব্দুস সামাদ রাজ, সালা উদ্দিন, আল আমিন, আব্দুল কাদের জিলানী, তোফাজ্জল হোসেন, শরিফ রানা, আবিদুর রহমান,মোঃ মাফিজুর রহমান , মনোয়ার হোসেন ময়না, নুরে আলম জাহাঙ্গীর, মোঃআব্দুল আলীম, মোঃ মাহমুদুল হাসান, আবু সাদেক অপু,তারেক আলিম, মনসুর হোসেন, ছাজওয়ার হোসেনরাজেদ, ফরহাদ আহমেদ, এম এ আজিম, মারুফ আহমেদ, মোঃ আলিনুর আহমেদ, মোঃ,আরিফুর রহমান খান, জাকারিয়া খান প্রমুখ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ