fbpx
 

ইউরোপিয়ান রাষ্ট্র মাল্টার সাথে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক সম্পন্ন।

Pub: বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০১৯ ১০:৫৫ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব ড: আবদুল মোমেন তিন দিনের সরকারি রাষ্ট্রীয় সফরে দ্বীপ রাষ্ট্র মাল্টায় গত ২১/৭/২০১৯ তারিখ রোজ রবিবার আসেন । পরদিন সোমবার ২২/৭/২০১৯ তারিখে পূর্ব নির্ধারিত সরকারি আলোচনা শেষে স্থানীয় মাল্টা চেম্বার অব কমার্স এর আয়োজিত এক সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত হন এবং সেখানে মাননীয় মন্ত্রীমহোদয়কে বাংলাদেশ মাল্টা চেম্বার অব কমার্স এর পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়।
সেখানে উপস্থিত মাল্টা চেম্বার অব কমার্স এর প্রতিনিধি সহ স্থানীয় ব্যবসায়ী ও গণ্যমান্য ব্যবসায়ী বৃন্দের উপস্থিতিতে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা হয়। আলোচনাতে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক প্রসার ও পরিবেশ তৈরির বিষয়টি বিশেষভাবে প্রাধন্য পায়। এছাড়াও আলোচনাতে গুরুত্ব পায় দুই দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি রফতানি, দক্ষ জনশক্তি, বিনিয়োগ সহ, ভ্রমন ও পর্যটন শিল্প । বাংলাদেশের পক্ষে বাংলাদেশের সম্বাবনাময় বাংলাদেশ বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য তুলে ধরেন গ্রীসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো: জসিমউদ্দিন ( এন ডি সি ) আর মাল্টার পক্ষ থেকে উপস্থাপনা করেন মাল্টার পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য উন্নয়ন মন্ত্রী কারমেলো আবেলা। মন্ত্রীদ্বয় মাল্টা ও বাংলাদেশের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নে আগ্রহ প্রকাশ করেন। ।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাল্টা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির এর প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাহমুদ হোসেন মুন্না (সিএ ) , সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট আইনজীবী নাজমুল ইসতিয়াক ও স্থানীয় ব্যবসায়ী জনাব জাকারিয়া মুন্সি। অনুষ্ঠান শেষে মাননীয় মন্ত্রী মহাদয়কে বাংলাদেশ মাল্টা চেম্বার অব কমার্স এর পক্ষ থেকে মাল্টিজ নৌকা উপহার দেন জনাব মাহমুদ হোসেন এবং মাল্টিজ নাইট উপহার দেন নাজমুল ইসতিয়াক।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব ড: আবদুল মোমেন বলেন, ‘মাল্টা একটি দ্বীপরাষ্ট্র এবং জাহাজ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে এরা খুব দক্ষ। এ ছাড়া মেরিটাইম ইস্যুতেও তারা খুব শক্তিশালী। তাদের মেরিন একাডেমি পৃথিবী বিখ্যাত এবং এই বিষয়ে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতায় তাদের মনোভাব ইতিবাচক ।

‘মাল্টায় কর্মী নিয়োগ’ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন মাল্টার রাজধানী ভালেত্তা থেকে মুঠোফোনে জানান, ‘তাদের অর্থনীতি খুব ভালো কিন্তু জনসংখ্যা তেমন বেশি না। তারা তাদের দেশে অনেক অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে। আমি তাদের প্রস্তাব দিয়েছি যে বাংলাদেশের কর্মীরা বিশ্বজুড়ে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে, মাল্টাতেও তারা কাজ করতে পারে। এই প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে মাল্টা আগ্রহ দেখিয়েছে। আশা করছি অদূর ভবিষ্যতে মাল্টায় আমাদের কর্মীরা কাজ করতে যাবেন।

এই মুহূর্তে মাল্টায় প্রায় ২০০ জন বাংলাদেশি কর্মী কাজ করছেন। এর বাইরে মাল্টার একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেশকিছু বাংলাদেশি শিক্ষার্থী শিক্ষালাভ করছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) মাল্টার অনেক প্রভাব আছে। আমরা তাদেরকে বলেছি যে আমাদের ওষুধ শিল্পকে তোমাদের দেশে ঢোকার সুযোগ দাও, যাতে আমরা মাল্টা থেকে ইউরোপের বাজার ধরতে পারি। তারা বলেছে যে এই বিষয়েও তারা আমাদের সহযোগিতা করবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, মাল্টা সফরে দেশটির রাষ্ট্রপতি ড. জর্জ ভেলা, প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাসকট, পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য উন্নয়ন মন্ত্রী কারমেলা আবেলার সঙ্গে খুব আন্তরিক পরিবেশে আলাপ হয়েছে। তারা এই সফরে সার্বক্ষণিকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেনকে সহযোগিতা করেছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গত ২১ থেকে ২৩ জুলাই মাল্টায় দ্বিপাক্ষীক সফর করেন এবং সফর শেষে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) ভালেত্তার স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে ৩টায় ঢাকার পথে রওনা দেওয়ার কথা। সব ঠিক থাকলে দুবাই হয়ে বুধবার (২৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকায় পৌঁছবেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

মাননীয় মন্ত্রী মহাদয় বাংলাদেশ মাল্টা চেম্বার অব কমার্স কে দ্বীপাহ্মীয় সম্পর্ক উন্নায়নে উৎসাহ প্রদানসহ সব ধারনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ