fbpx
 

সুন্দরবন ফাউন্ডেশন ইউকে’র উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো ঈদ পুনর্মিলনী ২০১৯

Pub: সোমবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯ ২:১৫ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯ ২:১৬ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লন্ডনে সুন্দরবন ফাউন্ডেশন ইউকে’র উদ্যোগে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্বীর্য পূর্ণ পরিবেশের মধ্যে দিয়ে পালিত হলো ঈদ পুনর্মিলনী ২০১৯।গত ৩১ অগাস্ট রোববার সেভেনকিংস পার্কে দিনব্যাপী এ আয়োজনে ছিল বস্তা দৌড় , মহিলাদের বালিশ বদল ,দড়ি টানা সহ বিভিন্ন ধরণের প্রতিযোগিতা। গান ও কৌতুক ছিল অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ।বৃহত্তর খুলনা সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বিপুল সংখক প্রবাসী বাংলাদেশী এ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেভেনকিংস পার্ক পরিণত হয় মিনি বাংলাদেশে।
অনুষ্ঠানে অন্নান্নদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের সভাপতি আবু সুফিয়ান ঝিলাম ,প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক নাহিদ নেওয়াজ রানা, Newslife24.com এর সম্পাদক শেখ মহিতুর রহমান বাবলু , এমদাদুল হক চঞ্চল ,মোঃ কাইয়ুম হাসান স্বপন ,প্রণব চক্রবতী ,মিজানুর রহমান ,শফিকুল ইসলাম ,নিতু রয় ,মিতা হক ,রাফিক হক সিরাজ বিশ্বাস ,রনি আমিন ও ইউসুফ,রিজভি,রশিদ রনি ,যাওয়ার আলী ,সালমান আহমেদ ,জামিল চৌধুরী ,আয়াজ করিম প্রমুখ।
দুপুরের খাবারের পর শুরু হয় গান বাজনা। এসময় ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা বাউন্সি ক্যাসেলে খেলা ধুলায় মেতে উঠে।


সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন প্রখ্যাত কণ্ঠ শিল্পী রাজ্ হাসান ,মোঃ জীবন ,ডাঃ শম্পা দেওয়ান ,সিফাত আরা সিমি ,নাসরিন মার্চ ,অঞ্জু রয় ও ফাল্গুনী চক্রবর্তী।ঢোলে ছিলেন বার্মিংহাম থেকে আসা ব্রিটেনের সনামধন্য ঢুলী ফাহিম।
পারিবারিক ব্যাস্ততার কারণে শিল্পী রাজ্ হাসান দুটি গান গেয়ে চলে যান। শিল্পী তার সুরের ঝর্নাধারায় দর্শকদের প্লাবিত করে নিয়ে যায় অনিন্দ্য সুন্দর এক আনন্দ মোহনায়। এরপর আসেন মোঃ জীবন। তার দরাজ গলায় ভেসে ভেসে উঠে অর্পুব মনোহরী গান একের পর এক। কখনো একা কখনো জীবন ও সিফাত আরা সিমির ও মোঃ জীবনের সাথে অতি সুমধুর কন্ঠে রাগমিশ্রিত বাংলা গান ও উর্দু গজল পরিবেশন করেন ইউরোপেরর ব্ল্যাক ডায়মন্ড, প্রখ্যাত চিকিৎসক ডাঃ শম্পা দেওয়ান।
গোধূলি লগ্নে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন আবু সুফিয়ান ঝিলাম , নাহিদ নেওয়াজ রানা, এমদাদুল হক চঞ্চল ।
পরিবার-পরিজন ছাড়া প্রবাসে ঈদ কেবলই আনুষ্ঠানিকতা। বেদনা ভরা মন প্রতিনিয়তই কিছু না কিছুতে আক্ষেপ ঘোচানোর চেষ্টা করে। ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানগুলো প্রবাসীদের কিছুটা আনন্দের উপলক্ষ করে দেয়। প্রবাসী বাংলাদেশিরাও এতে মেতে উঠেন অনাবিল আনন্দে। প্রবাসের পানসে ঈদে এ ধরনের আয়োজন সবাইকে একত্রিত করে আনন্দ, হাসি, আড্ডার সুযোগ করে দেয়।সুতরাং এ ধরণের আয়োজন প্রতি বছর যেন হয় এ অনুরোধ সকলের।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ