fbpx
 

এতদিন যারা পিটিয়েছে, প্রয়োজন ফুরালে আবারও পেটাবে

Pub: রবিবার, মার্চ ১৭, ২০১৯ ৭:১৯ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গোলাম মোর্তজা : আপনি অন্য যা কিছু বলেছেন-করেছেন, তা নিয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই, আপত্তিও নেই।ভালো মনে করেছেন, বলেছেন। বলতেই পারেন। কিন্তু কিছু বা মূল বিষয় বাদ দিয়ে কথা বললেন। কয়েকটি কথা সেটা নিয়ে।

নির্বাচনের দিন ছাত্রীরা যদি হলে হলে প্রতিরোধ না করতেন, সব সংগঠন যদি সম্মিলিত প্রতিবাদ না করত, কোথায় থাকতেন আপনি? রোকেয়া হলের ছাত্রীরা অনশন করছেন, প্রতিবাদ করছেন, আপনার বক্তৃতায় তাদের কথা বললেন না?

শামসুন নাহার হলের ভিপি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমি প্রধানমন্ত্রীর সামনে বলতে পারলেন,’’ আমার রোকেয়া হলের বোনদের সংকটের মধ্যে বিবেকের তাড়না থেকে একজন ছাত্রী হলের প্রতিনিধি হিসেবে বলতে চাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে আর কেউ যেন কোনো মেয়েকে বোরখা পরলে শিবির কিংবা জিন্স পরলে গাঁজাখোর না বলে।”

একথা শুনেও আপনার তাদের কথা মনে পড়ল না? সেদিন মাঝ রাতে ছাত্রীদের এই হেনস্থা করার ঘটনা আপনি জানতেন না?

রাজু ভাস্কর্যের সামনে যারা অনশন করলেন, তাদের কথা মনে থাকল না?

রাশেদকে গুলি করে হত্যার হুমকি কারা দিল, আপনি জানেন না? রাশেদের মায়ের কথা মনে পড়লো না?

নির্বাচন যদি মোটামুটি সুষ্ঠু হতো, রাতে যদি ভোট না হতো, আপনাদের সংগঠনের অনেকের বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। বিজয়ী হতে পারতো রাশেদও। বক্তৃতায় নির্বাচনের এই ভয়াবহ অনিয়ম বিষয়ে কী বললেন?
বিজয়ী একা হলেও, সবাই মিলেই তো আপনি ছিলেন, নাকি?

‘একা’ সবার চেয়ে কেউ বড় হতে পারে না। আপনি ‘একা’ হয়ে যাচ্ছেন।

এক বছর দেখতে দেখতে কেটে যাবে। এতদিন যারা পিটিয়েছে, প্রয়োজন ফুরালে আবারও পেটাবে। এতদিন সঙ্গে সবাইকে পেয়েছেন, তখন কাউকে পাবেন না।

বহু নজীর আছে। গণজাগরণ মঞ্চের কথা সবারই তো মনে থাকার কথা!

লেখক- সাংবাদিক


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ