fbpx
 

শুধুমাত্র বাংলাদেশি মুসলমানদের তাড়ানো হবে: বিজেপি নেতা

Pub: বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯ ১:১২ অপরাহ্ণ   |   Upd: বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯ ১:১২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজ ডেস্ক: ভারতের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন দেশটির ক্ষমতাসীন বিজেপি দলের এক নেতা। বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু মঙ্গলবার বলেন, এনআরসি নিয়ে চিন্তার কারণ নেই। এনআরসি’র মাধ্যমে শুধুমাত্র বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে আসা মুসলিমদেরই তাড়ানো হবে। 
এদিন তিনি বলেন,এনআরসি নিয়ে হিন্দুদের কোনও চিন্তা নেই। প্রতিবেশী দেশ থেকে কোনও হিন্দু এদেশে এসে থাকলে তাদের অনুপ্রবেশকারী নয়, শরণার্থী হিসাবে দেখবে সরকার। ভারতের নাগরিক মুসলিমদেরও কোনও সমস্যা হবে না। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে যে সমস্ত মুসলমান ভারতে এসেছে তাদের কোনও ভাবেই এদেশে থাকতে দেওয়া হবে না।
সায়ন্তন বসু আরো বলেন, তৃণমূল যতই আন্দোলন করুক অথবা যদি মুখ্যমন্ত্রী বাংলাদেশের মুসলমানদের জন্য যদি মরা কান্না কাঁদেন তবুও আমাদের কিছু করার নেই। আমরা বাংলাদেশের মুসলমানদের কোনভাবেই এদেশে থাকতে দেব না।
এর আগে গত মাসে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে ১৯ লাখেরও বেশি মানুষের নাম। প্রাথমিক হিসেবে এদের প্রায় ৬০ শতাংশই হিন্দু ধর্মাবলম্বী। তালিকা থেকে বাদ পড়ায় ভবিষ্যত্ নিয়ে ব্যাপকভাবে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন এসব মানুষ। 
তবে সেসময় আসাম সরকার জানিয়েছে, বাদ পড়া মানুষকে এখনই বিদেশি ঘোষণা করা হবে না অথবা গ্রেফতারও করা হবে না। তারা ১২০ দিনের মধ্যে ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে পারবেন। এজন্য আসামে খোলা হচ্ছে ১ হাজার ট্রাইব্যুনাল।ট্রাইব্যুনাল তাদের বিদেশি বলে রায় দিলে, তারপরেও হাইকোর্ট আর সুপ্রীম কোর্টে তারা আবেদন করতে পারবেন। তাতেও যদি কেউ নিজেকে ভারতীয় প্রমাণ না করতে পারেন, সেক্ষেত্রে তার আধার কার্ড বাতিল হবে। 
যদিও এনআরসি নিয়ে বিজেপি সন্তুষ্ট নয় বলে জানিয়েছেন আসামের অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা। এনআরসি নিয়ে সমালোচনা করেছে বিরোধী দল কংগ্রেস। 


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ