ময়মনসিংহে কথিত সম্পাদক রফিকসহ গ্রেফতার ৬২

Pub: সোমবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৮ ৩:০৮ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৮ ৩:০৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের বিশেষ অভিযানে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ থানা ও দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকা থেকে সদ্য বহিস্কার হওয়া কথিত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খায়রুল আলম রফিকসহ ৬২ জনকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

সোমবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ ও জেলা পুলিশের গণমাধ্যম শাখায় দায়িত্বরত সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) খাদেমুল ইসলাম গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ডিবি পুলিশের ওসি মো. শাহ কামাল আকন্দ জানান, রবিবার (২ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ১১টার দিকে নগরীর চরপাড়া এলাকা থেকে স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিনের সদ্য বরখাস্তকৃত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খাইরুল আলম রফিককে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ ৭ টি মামলা রয়েছে। এছাড়াও রফিকের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় কয়েক ডজন অভিযোগ ও জিডি রয়েছে বলেও পুলিশের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এব্যাপারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্র জানায়, গ্রেফতারকৃত খাইরুল আলম রফিককে পত্রিকায় মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে মানহানিসহ প্রকাশনা নীতিমালা লঙ্ঘন ও চাঁদাবাজির অভিযোগে জেলা প্রশাসন থেকে দুই দফা কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হলেও তার কোনো জবাব দেননি তিনি। সর্বশেষ গত ২২ অক্টোবর একই অভিযোগে বর্তমান জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস ৭ কর্মদিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব চেয়ে তৃতীয় দফা চিঠি দেন।

ওই চিঠি পেয়ে পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ড. মো. ইদ্রিস খান গত ২৩ অক্টোবর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খাইরুল আলম রফিককে বরখাস্ত করেন। কিন্তু খাইরুল আলম রফিক পত্রিকার প্রিন্টার্স লাইনে নিজেকে সম্পাদক প্রকাশক উল্লেখ করে পত্রিকা প্রকাশনা অব্যাহত রাখেন।

পরবর্তে এ বিষয়ে পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ড. মো ইদ্রিস খান বিগত ৪ নভেম্বর জেলা প্রশাসক বরাবরে পত্রিকার প্রকাশনা সাময়িক বন্ধ রাখার আবেদন করেন। পরে ওই আবেদনটি প্রশাসন আমলে নিয়ে বর্তমান জেলা প্রশাসক ড. সুভাস চন্দ্র বিশ্বাস গত ১১ নভেম্বর পত্রিকাটির প্রকাশনা সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করে সম্পাদককে চিঠি দেন।

এদিকে দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকা থেকে সদ্য বহিস্কারকৃত কথিত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খায়রুল আলম রফিক গ্রেফতার হওয়ায় নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ভুক্তভোগীরা মিষ্টি বিতরণ করেছেন বলে জানা গেছে। এসময় ভুক্তভোগীরা জেলার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, তার বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় সাংবাদিকতা পেশাকে পুঁজি করে চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, ব্ল্যাক মেইল, মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকা কর্তৃপক্ষ গত ২৩ অক্টোবর থাকে অব্যাহতি দেন। শুধু তাই নয়, রফিকের বিরুদ্ধে চাকরি দেয়ার কথা বলে প্রতারণা, জমি দখল, থানা পুলিশে তদবির বাণিজ্য ও তথ্য সন্ত্রাসীর অভিযোগ যা ময়মনসিংহে এখন টক অব দ্যা টাউন।

অন্যদিকে জেলা পুলিশের গণমাধ্যম শাখায় দায়িত্বরত সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) খাদেমুল ইসলাম জানান, সদর মডেল থানায় ১৮ জন, মুক্তাগাছায় চারজন, ফুলবাড়ীয়ায় তিনজন, ত্রিশালে একজন, ভালুকায় ১১ জন, গফরগাঁওয়ে একজন, গৌরীপুরে তিনজন, ঈশ্বরগঞ্জে নয়জন, নান্দাইলে ছয়জন, ফুলপুরে দুজন, হালুয়াঘাটে দুজন, ধোবাউড়ায় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে পাগলা ও তারাকান্দা থানায় কোনো গ্রেফতার নেই।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1061 বার