fbpx
 

মুবিজবর্ষে সাগর-রুনির হত্যার বিচার চান সাংবাদিক নেতারা

Pub: রবিবার, মার্চ ১৫, ২০২০ ৮:৪৩ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির হত্যার বিচার ‘মুজিববর্ষের মধ্যে দাবি করেছেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।  অন্যথায় কঠোর কর্মসূচির ঘোষাণা দিবেন বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

রবিবার (১৫ মার্চ) রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘সাগর-রুনি হত্যার দ্রুত বিচার দাবিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও ও স্মারকলিপি জমার আগে সমাবেশে করেছেন তারা।

এ সময় নেতারা বলেন, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির হত্যার ঘটনার পর পরই তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন ‘আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই খুনিদের গ্রেফতার করা হবে। ’ ঘটনার আট বছর পার হলেও চার্জশিট দিতে পারেনি সরকার।  চার্জশিট দিতে ৭২ বার সময় নেওয়া হয়েছে।  আমরা কার ওপর ভরসা রাখবো, কোথায় যাবো।  তবে মুবিজবর্ষের মধ্যেই সাংবাদিক দম্পতির হত্যার বিচার সম্পন্ন না হলে রাজপথে নেমে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়া হবে।

অনুষ্ঠানে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, সাগর-রুনি হত্যার আট বছল পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত কোনো ক্লু বের করতে পারেনি প্রশাসন।  আমরা কার ওপর ভরসা রাখবো।  তবে আস্থার জায়গা হলো প্রশাসনেও কিছু ভালো মানুষ আছেন, যাদের ভরসা করা যায়।  আমরা মুজিববর্ষে আলোচিত এই ঘটনার বিচার দেখতে চাই।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী বলেন, সাংবাদিক দম্পতি হত্যার বিষয়ে আন্দোলনে সাংবাদিক সমাজ এক ছিল।  আবার আমাদের সহকর্মীর হত্যার বিচার দাবিতে আমরা এক হয়ে আন্দোলন কর্মসূচি দিতে চাই।  এ হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু বলেন, ‘দীর্ঘ আট বছরেও সাগর-রুনির হত্যাকাণ্ডের বিচার না হওয়াটা আমাদের কাছে দুঃখজনক ঘটনা।  আমরা চাই এই মুজিববর্ষে মধ্যেই সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের গ্রহণযোগ্য বিচার হোক।  

তি‌নি আরও ব‌লেন, গত ছয়দিন ধরে আমাদের সহযোদ্ধা কাজল নি‌খোজ।  এ ব্যাপারে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার কাছে আমরা দাবি জানিয়ে আসছি যে তাকে দ্রুত তার পরিবারের কাছে ফিরে আসতে পারে তার একটা ব্যবস্থা করার। ‌ কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন খোজ দি‌তে পা‌রে নাই।  এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় সাংবাদিকদের‌কে নিগ্রহের ঘটনা ঘটছে এ মুখোশধারী দুর্বৃত্ত চক্রদেরকে দ্রুত আইনের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে।  এবং আমরা মনে করি যে সাংবাদিকদের অধিকার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ লড়াই সংগ্রামের কোন বিকল্প নাই।

 
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বলেন, আজ সাগর-রুনির হত্যার বিচার পাইনি বলেই দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় সাংবাদিক নির্যাতন হচ্ছে।  আমরা আর কোনো সাংবাদিক নির্যাতন দেখতে চায় না।

সিনিয়র সাংবাদিক পুলক ঘটক বলেন, একজন ডিসি কত বড় সন্ত্রাসী হলে রাতের আঁধারে আমার ভাইকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে শাস্তি দিতে পারেন।  মেহেরপুর জেলায় মুখোশ পরে আমার ভাইকে নির্যাতন করা হয়, তার কোনো বিচার হয় না।  আমরা এই নির্যাতন আর দেখতে চাই না, সব ঘটনার বিচার চাই।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরীর পরিচালনায় এবং সংগঠনটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদের সভাপতিত্বে আয়োজিত কর্মসূচিতে সিনিয়র সাংবাদিকরা বক্তব্য রাখেন।

সবশেষে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়।  এ সময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী জানান, বিষয়টি তার নজরে আছে।  তিনি দেখবেন।  একই সঙ্গে নিখোজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের বিষয়টি বললে, সেটিও তিনি সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দেশ দিবেন বলে জানান’।

Hits: 30


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ